ঢাকা, ২০২২-০১-২৫ | ১২ মাঘ,  ১৪২৮
সর্বশেষ: 
অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় হস্তক্ষেপ না করার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্র বিচার ১২৩ বছর আগে গ্রেপ্তার গাছ, শেকলে বন্দি আজো ফ্রান্স প্রেসিডেন্টকে চড় মারার মাশুল কতটা? কুরআনের আয়াত বাতিলে ‘ফালতু’ রিট করায় আবেদনকারীকে জরিমানা আদালতের দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড ওয়াক্ত ও তারাবি নামাজের জামাতে সর্বোচ্চ ২০ জন বিদেশে মারা গেছে ২৭০০ বাংলাদেশি আর্থিক ক্ষতি মেনেই সাঙ্গ হলো বইমেলা সুন্দরী মডেলের অপহরণ চক্র ! মোটরসাইকেল উৎপাদনে বিপ্লবে দেশ যুক্তরাজ্যে করোনার আরও মারাত্মক ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত ৮ থেকে ১২ সপ্তাহ বিরতিতে অক্সফোর্ডের টিকা বেশি কার্যকর সবাই সপরিবারে নির্ভয়ে করোনা ভ্যাকসিন নিন: প্রধানমন্ত্রী শেষ রাতে দু’রাকাত নামাজ জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে নতুন করোনাভাইরাস আতঙ্কে ইউরোপ-আমেরিকার শেয়ারবাজারে ধস জুনের মধ্যে আসছে আরও ৬ কোটি করোনার টিকা বাড়িভাড়ায় নাভিশ্বাস, ফের বাড়ানোর পাঁয়তারা অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত
সৌদিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বাংলাদেশিসহ আহত ২

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে হুতি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় এক বাংলাদেশিসহ দুই বিদেশি নাগরিক আহত হয়েছে। রবিবার (২৩ জানুয়ারি) এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এসপিএর বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। আহত অপর বিদেশি সুদানের নাগরিক।

ইরান-সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের ছোঁড়া একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র আহাদ আল মাসারিহা শহরে পড়লে তারা আহত হন।

দক্ষিণ-পশ্চিম জাজানের শিল্প শহরকে লক্ষ্য করে চালানো হামলায় বেশ কয়েকটি কারখানা এবং বেসামরিক যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে হুতি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াই করছে।

এদিকে, জোটের সদস্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সোমবার উপসাগরীয় এই দেশটি লক্ষ্য করে দু’টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। তবে ক্ষেপণাস্ত্র দু’টি লক্ষ্যে আঘাত হানার আগেই আকাশে আটকে দেওয়ার পর ধ্বংস করা হয়েছে। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

হামলা প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।


টোঙ্গার অগ্ন্যুৎপাত হিরোশিমা বোমার চেয়ে কয়েকশ গুণ শক্তিশালী

টোঙ্গার অগ্ন্যুৎপাত হিরোশিমা বোমার চেয়ে কয়েকশ গুণ শক্তিশালী

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সময় জাপানের হিরোশিমায় যুক্তরাষ্ট্র যে পারমাণবিক বোমা ফেলেছিল, তার চেয়ে টোঙ্গায় গত সপ্তাহে ঘটে যাওয়া অগ্ন্যুৎপাত কয়েকশ’ গুণ বেশি শক্তিশালী বলে জানিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশটিতে সেদিন আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণে সুনামির পাশাপাশি ‘নিশ্চিহ্ন’ হয়ে যায় গোটা একটি দ্বীপ।

এটিকে তিন দশকের মধ্যে ‘সবচেয়ে ভয়াবহ অগ্ন্যুৎপাত’ উল্লেখ করে টোঙ্গা সরকার জানিয়েছে, সেখানে পাঁচ ভাগের চার ভাগ মানুষ সুনামি ও আকাশ থেকে পড়া আগ্নেয় ছাইয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মারা গেছেন অন্তত তিনজন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ১৫ জানুয়ারি হাঙ্গা টোঙ্গা হাঙ্গা হা’পাই আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে আশপাশের দ্বীপগুলো মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একটি দ্বীপের সব বাড়িঘর ধ্বংস হয়ে গেছে এবং আরেকটি দ্বীপের মাত্র দুটি অবশিষ্ট রয়েছে।

অগ্ন্যুৎপাতের আগে হুঙ্গা টোঙ্গা-হুঙ্গা হা’পাই ছিল দুটি পৃথক দ্বীপ, যার সঙ্গে ২০১৫ সালে নতুন ভূমি যোগ হয়। নাসা জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাত এতটাই শক্তিশালী ছিল যে নতুন ভূমি পুরোপুরি গায়েব হয়ে গেছে, হারিয়ে গেছে পুরোনো দুই দ্বীপের বিশাল অংশও।

আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত ছাই, গ্যাস ও বিষাক্তকণা মোকাবিলা টোঙ্গা সরকারের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। অগ্ন্যুৎপাত ও সুনামির পরপরই ধারণা করা হচ্ছিল, ছাইয়ের পাতলা আস্তরণ পড়ায় সেখানে পানি দূষিত হয়ে গেছে। এতে ডায়রিয়া-কলেরার মতো পানিবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। তবে টোঙ্গার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রাথমিক পরীক্ষায় ভূগর্ভস্থ ও বৃষ্টির পানি পানযোগ্য প্রমাণিত হয়েছে। তবুও জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে রয়েছে আগ্নেয় ছাই। এতে শ্বাসকষ্টসহ হৃদযন্ত্র, ফুসফুস, চোখ ও ত্বকের ক্ষতি হতে পারে।

অগ্ন্যুৎপাত-সুনামিতে ওই এলাকার একমাত্র ক্লিনিক ধ্বংস হয়ে যাওয়ায় অস্থায়ী হাসপাতাল বানিয়ে চিকিৎসাসেবা দিতে হচ্ছে উদ্ধারকারীদের। ধ্বংসলীলার পরপরই টোঙ্গার দিকে সাহয্যের হাত বাড়িয়ে দেয় প্রতিবেশী দেশগুলো। বিমান ও নৌবাহিনী ব্যবহার করে টোঙ্গায় খাবার, পানি, ওষুধ, তাবুসহ ত্রাণ সহায়তা পাঠিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড।

অগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণের পর টানা পাঁচদিন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল টোঙ্গা। বাকি বিশ্বের সঙ্গে যুক্ত করা ফাইবার-অপটিক ক্যাবল ছিঁড়ে যাওয়ায় কোনো ধরনের ইন্টারনেট সংযোগ নেই দ্বীপরাষ্ট্রটিতে। টেলিফোন লাইন মেরামত করে কোনোরকমে যোগাযোগের কাজ চালাতে হচ্ছে।

টোঙ্গা সরকার জানিয়েছে, ইন্টারনেট ক্যাবল সারাতে চলতি সপ্তাহে একটি জাহাজ পৌঁছানোর কথা। তবে সেটি পুরোপুরি সারাতে চার সপ্তাহ পর্যন্ত লেগে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, অগ্ন্যুৎপাতে টোঙ্গার দ্বীপগুলোর ভয়াবহ অবস্থার দৃশ্য ফুটে উঠেছে স্যাটেলাইটের ছবিতে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশটির রাজধানী নুকু’আলোফাও। গত ১৮ জানুয়ারি মহাকাশপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ম্যাক্সার টোঙ্গা দ্বীপপুঞ্জের কিছু ছবি প্রকাশ করেছে। এর কয়েকটি তোলা হয়েছে ২০২১ সালের এপ্রিলে এবং বাকিগুলো অগ্ন্যুৎপাতের পরে।

ছবিতে দেখা যায়, আগ্নেয়গিরি থেকে প্রায় ৬৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত টোঙ্গার রাজধানী শহর পুরোপুরি ছাইয়ের চাদরে ঢাকা। আর অগ্ন্যুৎপাতের কেন্দ্রে থাকা দ্বীপটি এখন প্রায় পুরোটাই পানির নিচে। এর মাত্র কয়েকটি ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন অংশ পানির ওপরে দেখা যাচ্ছে।

অগ্ন্যুৎপাতে শক্তিশালী বিস্ফোরণে সৃষ্ট ছাইয়ের মেঘ ৬৩ হাজার ফুট পর্যন্ত ওপরে উঠেছিল, এর শকওয়েভ টের পাওয়া গেছে সুদূর আলাস্কাতেও।

সূত্র: বিবিসি, ব্লুমবার্গ

মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৩১

করোনায় ভয়াবহ পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধ বাতিল করলো যুক্তরাজ্য

করোনায় ভয়াবহ পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধ বাতিল করলো যুক্তরাজ্য

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রকোপে নাজেহাল বিশ্ব। করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না ইউরোপের বেশিরভাগ দেশ। এরই মধ্যে করোনার সংক্রমণ বিস্তার ঠেকাতে জারি করা বিধিনিষেধ প্রায় প্রত্যাহার করেছে যুক্তরাজ্য।
 এক প্রতিবেদনে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, বুধবার (১৯ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ঘোষণায় বলেন,আগামী সপ্তাহ থেকে প্ল্যান বি’র বিধিনিষেধ কার্যকর থাকবে না।

 ওমিক্রন ঠেকাতে সরকারের প্ল্যান বি বাস্তবায়নের ফলে বুস্টার ডোজ প্রয়োগের সময় পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। বলেন, আমরা ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত বুস্টার ডোজ প্রয়োগের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছি।

এদিকে আশার বাণী শোনালেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি। তিনি বলেন, দ্রুত ছড়াতে থাকা ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট করোনাভাইরাসের মহামারি পর্যায়ের অবসান ঘটিয়ে একে স্থানীয় পর্যায়ের সাধারণ রোগের পর্যায়ে নামিয়ে আনতে পারে। মার্কিন এই শীর্ষ রোগ বিশেষজ্ঞ সোমবার ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৪২

করোনার টিকা না নিলে মাসে মাসে দিতে হবে জরিমানা!

করোনার টিকা না নিলে মাসে মাসে দিতে হবে জরিমানা!

বয়স ৬০ পেরিয়ে গেছে? এখনো করোনা টিকা নেওয়া হয়নি বা নেওয়ার ইচ্ছাই নেই। এমন হলে আর স্বস্তিতে থাকতে পারবেন না ইউরোপের দেশ গ্রিসের বয়স্ক মানুষেরা।
 
কারণ যাদের বয়স ৬০ হয়ে গেছে। কিন্তু গড়িমসি করে এখনো টিকা নেননি বা নিতে চান না তাদের প্রতিমাসে সরকারকে জরিমানা দিতে হবে।

জানুয়ারি মাসেই এই নিয়ম জারি করেছে দেশটি। জানুয়ারির মধ্যে যারা টিকা নিবেন না তাদের ৫০ ইউরো জরিমানা দিতে হবে। এরপর ফেব্রুয়ারিতে দিতে হবে ১০০ ইউরো।  যতদিন টিকা না দিবেন ততদিন জরিমানা দিয়েই যেতে হবে।

গ্রিসের মোট জনসংখ্যার মোট ৭০ ভাগ মানুষ এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

 গ্রিসের স্বাস্থ্যমন্ত্রী থানোস প্লেভরিভস জানিয়েছেন, ট্যাক্স অফিসের মাধ্যমে এই জরিমানা আদায় করা হবে। জরিমানা হিসেবে আদায়কৃত অর্থগুলো খরচ করা হবে স্বাস্থ্য খাতেই।

থানোস প্লেভরিভস আরো জানান, বয়স্কদের ওপর জরিমানা আরোপ করা হচ্ছে কারণ হাসপাতালগুলোতে বয়স্ক লোকেরাই বেশি প্রভাব ফেলছেন।

পপুলেশন রেফারেন্স ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, গ্রিস হলো পৃথিবীর সপ্তম সর্বোচ্চ বয়স্ক লোকদের দেশ। এই দেশের জনসংখ্যার ৬৫ ভাগের বয়স ৬০ বা তার বেশি।

সূত্র: আল জাজিরা

মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৪৪

টোঙ্গায় অগ্ন্যুৎপাতের পর সুনামির আঘাত

টোঙ্গায় অগ্ন্যুৎপাতের পর সুনামির আঘাত

প্রশান্ত মহাসাগরের নিচে একটি আগ্নেয়গিরিতে বিশাল অগ্ন্যুৎপাতের পর সুনামির বিরাট ঢেউ এসে আঘাত হেনেছে দ্বীপরাষ্ট্র টোঙ্গাতে। সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি চার্চ এবং কয়েকটি বাড়ির ভেতর পানির স্রোত বয়ে যাচ্ছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টোঙ্গার রাজধানী নুকুয়ালোফার আকাশ থেকে আগ্নেয়গিরির ছাই ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে।

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৫৫

জেলখানাতেই কোরআন হিফজ করলেন ৬০৫ বন্দি!
খালিজ টাইমসের প্রতিবেদন

জেলখানাতেই কোরআন হিফজ করলেন ৬০৫ বন্দি!

 জেলখানা মানে অপরাধীদের বন্দিশালা। বিভিন্ন ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িতদের ধরে এখানে রাখা হয়। বিশ্বের প্রায় সব দেশেই এই বন্দিশালা বা জেলখানা রয়েছে। এসব জেলখানায় অপরাধের সাজা হিসেবে বন্দিদের বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে একটি নির্দিষ্ট সময় ধরে থাকতে হয়। তবে এবার অনন্য নজির স্থাপন করল দুবাই কর্তৃপক্ষ। সে দেশের একটি কারাগারে বন্দিদের মধ্য থেকে ৬০৫ জনকে কুরআনের হাফেজ বানিয়েছেন জেলখানা কর্তৃপক্ষ। গত দুই বছরে ধর্মশিক্ষা প্রোগ্রামে অংশ নিয়ে পবিত্র কোরআন হিফজ করেছেন এই ৬০৫ বন্দি।

জানা গেছে, ধর্মশিক্ষা প্রোগ্রামে পবিত্র কোরআন পড়তে ও শিখতে দুবাই পুলিশের শাস্তি ও সংশোধন প্রতিষ্ঠানের সাধারণ বিভাগ নানাভাবে উৎসাহ দিয়ে থাকে। এর অংশ হিসেবেই ৬০৫ বন্দি কোরআন হিফজ করার সুযোগ পায়।
এছাড়াও ২০২১ সালে ২৭৫ জন এবং ২০২০ সালে ৩৩৩ জন এই প্রোগ্রামে অংশ নিয়ে উপকৃত হয়েছেন।

দুবাই কারাবন্দিদের পুনর্বাসনে বিভিন্ন প্রোগ্রামের ব্যবস্থা করে থাকে আরব আমিরাত সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের আওতায় ধর্ম, খেলাধুলা ও পেশাদার বিষয়ক বিভিন্ন প্রোগ্রাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

জানা গেছে, দুবাইয়ের এডুকেশনাল জোন, স্থানীয় ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কলেজের সহায়তায় বন্দিরা নিজেদের শিক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করেন এবং নিয়মিত তাদের কাছে সর্বশেষ প্রকাশিত প্রয়োজনীয় সব বই সরবরাহ করা হয়।

আরব আমিরাতে বন্দিদের জন্য বিভিন্ন কোর্স ও প্রোগ্রামের ব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোর্স হলো সম্প্রদায়ভিত্তিক উদ্যোগ শিল্প কোর্স, গ্রাফিক ডিজাইন, ফিল্ম মেকিং, ইংরেজি ভাষা, চীনা ভাষা, রাগ নিয়ন্ত্রণ, চ্যালেঞ্জ ও সাফল্যের পথ, ক্রিয়েটিভ কোর্স ইত্যাদি।

এর আগে ২০২০ সালে সায়েন্টিফিক কোর্স থেকে উপকৃত হয়েছেন ১৭০ জন বন্দি এবং শিক্ষা কোর্স থেকে উপকৃত হয়েছেন ১৯১ জন বন্দি।

দুবাই পুলিশের শাস্তি ও সংশোধন প্রতিষ্ঠানের সাধারণ বিভাগের পরিচালক মেজর জেনারেল আলি আল শামালি বলেন, এসব প্রোগ্রামের মাধ্যমে বন্দিদের দক্ষতা ও সক্ষমতার বিকাশ, পুনর্বাসন এবং তাদের ধর্মীয় বিশ্বাসকে শক্তিশালী করা। এসব প্রোগ্রামের প্রধান উদ্দেশ্য হল বিভিন্ন মনস্তাত্ত্বিক ও মানসিক সমস্যার মোকাবেলা করা এবং বন্দিদের মুক্তির পর ভয় ও দ্বিধাদ্বন্দের বাধা অপসারণে সহায়তা করা, যেন বন্দিরা সহজেই সমাজের মূলধারায় পুনরায় সংগঠিত হতে পারে। সূত্র: খালিজ টাইমস, ইকনা

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৪২

যৌতুক চাওয়ায় জামাইকে বাড়িতে ডেকে বেধড়ক পিটুনি

যৌতুক চাওয়ায় জামাইকে বাড়িতে ডেকে বেধড়ক পিটুনি

যৌতুক একটি সামাজিক ব্যাধি। ধর্মীয় এবং আইনগতভাবে এটি অবৈধ প্রথা হলেও সমাজে নানাভাবে তা প্রচলিত। এই কুপ্রথার শিকার হয়ে প্রায়ই নির্যাতনের শিকার হন নারীরা। এমনকি ঘৃণ্য এই প্রথার বলি হয়ে অনেক নারীকে প্রাণও হারাতে হয়।

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৬

রানি কাঁদছিলেন, বরিসরা নাচছিলেন

রানি কাঁদছিলেন, বরিসরা নাচছিলেন

 ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ যখন তার স্বামীর শোক করছিলেন তখন বরিস জনসনের কর্মকর্তারা মদের পার্টিতে ফূর্তি করছিলেন। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ও ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আগের সন্ধ্যায় বরিসের সরকারি বাসভবনের ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে দুইটি পার্টি হয়েছিল বলে প্রতিবেদনে এসেছে।

বৃহস্পতিবার টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে ২০২১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর করোনা বিধিনিষেধের মধ্যে দুইটি মদের পার্টি আয়োজন করেছিল।

তবে বরিস জনসন এই পার্টিতে ছিলেন না বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। পার্টিতে প্রায় ৩০ জন বরিসের কর্মকর্তা অংশ নেন। তারা ওইরাতে ভোর পর্যন্ত মদ পান করেন ও নাচেন।

এর পরের দিনই ছিল প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য। এনিয়ে ইতোমধ্যে গতকাল ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের কাছে ক্ষমা চেয়েছে বরিস জনসনের সরকার।

এই দুই পার্টিতে অংশ না নিলেও গত বুধবার ২০২০ সালের মে মাসে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টিতে যোগদানের ব্যাপার স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে বরিস বলেন, আমি জনগণের ক্ষোভ বুঝতে পেরেছি।

বুধবার পার্লামেন্টে বরিস বলেন, আমি বুঝি আমার নেতৃত্বের সরকারকে নিয়ে তারা আমার প্রতি ক্ষুব্ধ, কেননা তারা ভাবছে যখন ডাউনিং স্ট্রিটে নিয়মগুলো যারা তৈরি করে তারাই তা সঠিকভাবে মানছে না।

এমন কর্মকাণ্ডে দেশটির প্রধান বিরোধী দলগুলো বরিসের পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন। বিবিসি, এনডিটিভি, আল জাজিরা।

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:১০

ভারতের জলপাইগুড়ি-ময়নাগুড়ি স্টেশনের মাঝে ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা

ভারতের জলপাইগুড়ি-ময়নাগুড়ি স্টেশনের মাঝে ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা

ময়নাগুড়ি ওভারব্রিজের কাছে লাইনচ্যুত হয়ে বিকানের এক্সপ্রেসের চারটে বগি ছিটকে পড়ে। বগিগুলি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়েছে। পাটনা থেকে গুয়াহাটি যাচ্ছিল এই ট্রেনটি। জলপাইগুড়ির জেলা প্রশাসক মৌমিতা গোদারা বসু ব্যাপক প্রাণহানির আশঙ্কা করেছেন। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

দুর্ঘটনার সময় ওই ট্রেনের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ৪০ কিলোমিটার। বিকানের এক্সপ্রেসের ১২টি কামরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ভারতীয় রেলের আলিপুরদুয়ারের ডিআরএম দিলীপ কুমার সিং বলেছেন, উদ্ধারকাজ চলছে। দুর্ঘটনাস্থলে ৫১টি অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছেছে। অন্ধকারে বিকল্প আলো দিয়ে উদ্ধারকাজ চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকট শব্দ শুনে বাড়ির বাইরে এসে তারা দেখেন গুয়াহাটি-বিকানির এক্সপ্রেসের কয়েকটি কামরা উল্টে গিয়েছে। ভেতরে আটকে রয়েছেন বহু যাত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীদের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনার সময় এই রেল দুর্ঘটনার খবর পান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। খোঁজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও।

বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৩৮

বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্য রেখায় ভারতীয় গ্রাম রেখে বেড়া নির্মাণ

বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্য রেখায় ভারতীয় গ্রাম রেখে বেড়া নির্মাণ

ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্য রেখায় একটি গ্রাম রেখে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। সিলেটের বিছানাকান্দি ওপারে মেঘালয়ের পূর্ব খাসি জেলার লিংখং গ্রামে ৯০ জন বাসিন্দা রয়েছে। এই বেড়া নির্মাণ হলে গ্রামটি ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন ওই গ্রামের বাসিন্দারা।

 ভারতের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই মঙ্গলবার এ খবর দিয়েছে। পত্রিকাটি জানায়, গ্রামের প্রবীণরা জানিয়েছেন ভারতীয় সীমান্তের ভেতরে ১৫০ গজ বেড়া নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এটি নির্মাণ হলে ভারত সীমান্তের বাইরে চলে যাবে গ্রামটি। এটি বাংলাদেশের শূন্য রেখার পিলার থেকে মাত্র কয়েক ফিট দূরে অবস্থিত; অদূরে বাংলাদেশের গ্রাম রয়েছে। সীমান্তের শূন্য রেখার দুই গ্রামের বাসিন্দাররা দীর্ঘদিন ধরে মিলেমিশে বসবাস করে আসছে।

 লিংখং গ্রামের একজন জমির মালিক পিটিআইকে বলেন, ‘বেড়া তৈরি হয়ে গেলে আমাদের গ্রাম ভারতের ভূখণ্ডের বাইরে চলে যাবে। এতে আমরা নিরাপদ বোধ করছি না। আমরা এখানে আদিকাল থেকে বাস করছি… ভারত সরকারের উচিত আমাদের নিরাপত্তার জন্য কিছু করা।

 পিটিআই এর খবরে বলা হয়, শূন্য রেখায় অবস্থিত দুই দেশকে আলাদা করতে এখানকার বাসিন্দারা গত এক বছর আগে বাঁশ ও ডালপালা দিয়ে অস্থায়ী বেড়া নির্মাণ করেছে।
 ভারতের মেঘালয়ের সঙ্গে বাংলাদেশে ৪৪৩ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্তে বেড়া নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। কিন্তু অনেক এলাকায় গ্রামবাসীদের প্রতিবাদ কাজ বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে ঠিকাদাররা । মেঘালয়ে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে প্রায় ৮০ শতাংশ বেড়ার কাজ সম্পন্ন হয়েছে।


 বিএসএফ মেঘালয় ফ্রন্টিয়ারের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা পিটিআইকে বলেছেন, আন্তর্জাতিক কনভেনশনের নিয়মঅনুসারে, শূন্য রেখা থেকে কমপক্ষে ১৫০ গজ দূরে বেড়া নির্মাণ করতে হয়। তবে কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি শূন্য রেখার কাছাকাছি বেড়া নির্মাণের অনুমতি দেয়। লিংখং গ্রাম তাদের মধ্যে একটি, যেটি নির্মাণের জন্য বিজিবি কনভেনশনের নিয়মের বাইরে গিয়ে অনুমতি দিয়েছে।

 তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকার মেঘালয়ের সীমান্তে এমন অন্তত ৭টি স্থানে এই নিয়ম শিথিল করার জন্য ‘সম্মতি’ দিয়েছে। বর্তমানে এমন অন্তত ১৩টি এলাকা রয়েছে যেখানে বিজিবির মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এর আগে ২০১১ সালে একটি অনুরূপ প্রস্তাব পাঠিয়েছিলাম এবং প্রায় দুই বছর আগে কিছু এলাকায় সম্মতি পেয়েছি।

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৪০

সৌদি আরবের রাস্তায় তরুণীদের সাম্বা নৃত্য, নড়েচড়ে বসল প্রশাসন

সৌদি আরবের রাস্তায় তরুণীদের সাম্বা নৃত্য, নড়েচড়ে বসল প্রশাসন

 রক্ষণশীল দেশ সৌদির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহর জাজানের রাস্তায় তিন বিদেশি তরুণীর সাম্বা নৃত্য। শীতকালীন উৎসবের অংশ হিসেবে ব্রাজিলের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে নৃত্যে মেতে উঠতে দেখা গেছে তাদের। হাত, পা খোলা রেখে রঙিন পোশাকে করা এমন নৃত্য নিয়ে দেশটিতে চলছে সমালোচনার ঝড়।

এরই মধ্যে এ আয়োজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সৌদি নাগরিকেরা। নড়েচড়ে বসেছে সৌদি প্রশাসনও। তদন্তে নেমেছে কর্তৃপক্ষ। বার্তা সংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে পাকিস্তানের ডন নিউজ এ তথ্য জানিয়েছে।
এদিকে, গত সপ্তাহজুড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল ওই নৃত্য। তবে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে কার্নিভাল প্যারেডে সাম্বা নৃত্যশিল্পীরা যতোটা খোলামেলাভাবে নাচ পরিবেশন করেন, ততোটা খোলামেলা দেখা যায়নি ওই তরুণীদের। তবে সৌদি রাষ্ট্র পরিচালিত টিভি চ্যানেল আল আকবরিয়ায় সংবাদ প্রকাশের সময় ঝাপসা করে দেখানো হয় ওই তরুণীদের নৃত্য।

আল আকবরিয়ায় দেওয়া বক্তব্যে জাজান শহরের বাসিন্দা মোহাম্মদ আল-বাজভি বলেন, ‘অনুষ্ঠানের আয়োজন বিনোদনের জন্য, ভালো বিষয়গুলোকে আক্রমণ করার জন্য এবং ধর্মীয় ও সামাজিক নৈতিকতার বিরুদ্ধে থাকার জন্য নয়।’

এদিকে আহমেদ আল-সানেহ নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, ওই তরুণীদের নাচের পোশাককে খুব বেশি অশালীন বলে মনে করছেন না তিনি।

অন্যদিকে, রক্ষণশীল প্রতিক্রিয়ার পর জাজানের গভর্নর প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নাসের গত শনিবার ঘটনাটি অনুসন্ধান এবং প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন।

সৌদি আরবের মোট জনসসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশের বয়স ৩০ বছরের কম। এর মধ্যে গত পাঁচ বছরে তারা সৌদিতে বিভিন্ন বিনোদন মাধ্যমের সঙ্গে পরিচিত হয়েছেন। সিনেমা হল থেকে শুরু করে কনসার্ট ও ফর্মূলা ওয়ান গ্র্যান্ড প্রিক্স অটো রেসের সঙ্গে পরিচিত হয়েছেন সৌদি নাগরিকেরা।

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৮

ওমিক্রনের নতুন ৩টি উপসর্গ

ওমিক্রনের নতুন ৩টি উপসর্গ

করোনার সবচেয়ে সংক্রামক ধরন হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে ওমিক্রন। খুব দ্রুতই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে নতুন এই ধরনটি। ইউরোপের তথ্য তুলে ধরে ডব্লিউএইচও বলছে, ‘যে হারে সংক্রমণ বাড়ছে, এটি অব্যাহত থাকলে আগামী ৬ থেকে আট সপ্তাহের মধ্যে ইউরোপে ৫০ শতাংশেরও বেশি মানুষ ওমিক্রনে আক্রান্ত হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।’

এদিকে ওমিক্রনের উপসর্গগুলো তুলনামূলকভাবে কম সক্রিয় হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা শতাংশ হারে বেশ কম। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, কোনো একটিও উপসর্গ দেখা দিলে একেবারে হালকা ভাবে নেওয়া উচিত হবে না।

ওমিক্রনের সাধারণ লক্ষণগুলো

যুক্তরাষ্ট্রের ‘সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন অ্যানালাইসিস’-এর তথ্য অনুসারে, কাশি, অত্যধিক ক্লান্তি, নাক বন্ধ এবং নাক দিয়ে পানি পড়া ওমিক্রনের সাধারণ উপসর্গ। এছাড়াও হালকা জ্বর, ঘামাচি, শরীরে ব্যথা, অতিরিক্ত ঘামও ওমিক্রনের উপসর্গ।

লন্ডনের কিংস কলেজের জেনেটিক এপিডেমিওলজির অধ্যাপক টিম স্পেক্টর একটি সমীক্ষার মাধ্যমে জানিয়েছেন, ওমিক্রন আক্রান্ত রোগীদের বমি বমি ভাব, বমি হওয়া, খিদে হ্রাস পাওয়ার মতো উপসর্গও দেখা দিচ্ছে।

এছাড়াও ওমিক্রনের আরও কয়েকটি নতুন উপসর্গ সামনে এসেছে, যেগুলি আপাতদৃষ্টিতে মনে হতে পারে শীতকালীন ঠান্ডা লাগার কারণে হচ্ছে। কিন্তু এগুলোও হতে পারে ওমিক্রন সংক্রমণের ইঙ্গিত—

• গলা চুলকানো বা গলা জ্বালা ভাব।

• মাথা ব্যথা।

• ঘন ঘন নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওপরের কোনো একটি বা ততোধিক উপসর্গ দেখা দিলে দেরি না করে দ্রুত করোনা পরীক্ষা করানো দরকার।

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:২৯

যৌন হয়রানি: সৌদিতে প্রথমবারের মতো দোষী ব্যক্তির নাম প্রকাশ

যৌন হয়রানি: সৌদিতে প্রথমবারের মতো দোষী ব্যক্তির নাম প্রকাশ

সৌদি আরবে যৌন হয়রানির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত এক ব্যক্তিকে জেল-জরিমানা ছাড়াও জনসমক্ষে তার নাম প্রকাশ করার রায় দেওয়া হয়েছে।

ঐতিহাসিক এ রায় ঘোষণা করেন মদিনার একটি ফৌজদারি আদালত। দেশটিতে যৌন হয়রানির মামলায় অপরাধীর নাম প্রকাশ করার এটিই প্রথম রায়।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শাস্তি পাওয়া ব্যক্তির নাম ইয়াসির আল-আরাভি। এক নারীকে অশ্লীল মন্তব্য করে তিনি দোষী সাব্যস্ত হন। তাকে আট মাসের জেল ও এক হাজার ৩৩০ ডলার জরিমানা করা হয়।

খবরে বলা হয়, গত বছর যৌন হয়রানি বিরোধী আইনটি সংশোধন করা হয়। যেখানে অপরাধীর নাম এবং শাস্তির বিষয়টি সংবাদপত্রে প্রকাশ করার অনুমতি দেওয়া হয়।

আইনে বলা হয়েছে, যৌন হয়রানিতে অভিযুক্ত ব্যক্তি যদি দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে ওই ব্যক্তির নিজ খরচে স্থানীয় সংবাদপত্রে তার নামসহ রায়ের সারাংশ প্রকাশ করা যেতে পারে।

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:১০

বিশ্বের ইতিহাসে উষ্ণতম বছরের তালিকায় ২০২১ পঞ্চম: ইইউ

বিশ্বের ইতিহাসে উষ্ণতম বছরের তালিকায় ২০২১ পঞ্চম: ইইউ

 গত সাত বছর ছিল উষ্ণতম বছর। আর এই তালিকায় পঞ্চম অবস্থানে ছিল ২০২১ সাল। বছরটিতে বেশ কিছু এলাকায় রেকর্ড পরিমাণ গরম পড়েছিল, এমনটাই জানিয়েছে ইউরোপীয় কমিশনের জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক সংস্থা দ্য কোপারনিকাস ক্লাইমেট চেঞ্জ সার্ভিস।

সোমবার তাদের দেওয়া এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৮৫০ সালের পরে রেকর্ড অনুযায়ী গত ৭ বছর সবচেয়ে বেশী উষ্ণ ছিল এবং ২০২১ সালে গড় বৈশ্বিক তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১ দশমিক ১ ডিগ্রি থেকে ১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসে কার্বন ডাই–অক্সাইডের ঘনত্ব গত বছর প্রতি ১০ লাখে ৪১৪ দশমিক ৩–এ পৌঁছেছে।

 বিজ্ঞানীরা সতর্ক করে বলেন, মিথেন গ্যাসের নির্গমন কমিয়ে আনা খুব জরুরি। কারণ মিথেন গ্যাস কার্বন ডাই–অক্সাইডের চেয়ে বেশি জোরালো অবস্থান রেখেছে বাতাসে।

 কোপারনিকাসের তথ্য বলছে, ২০১৫ ও ২০১৮ সালের তুলনায় ২০২১ সালের অবস্থান গরমের দিক দিয়ে পঞ্চম। সংস্থাটি আরও বলছে, গত সাত বছর ছিল সবচেয়ে গরম বছর। ২০২১ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে একাধিক দাবানল ও বন্যা হয়েছে। গত সাত বছরে সবচেয়ে উষ্ণতম তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

গত বছর অনুষ্ঠিত জলবায়ু সম্মেলনে বিশ্বনেতারা বৈশ্বিক তাপমাত্রা ১ দশমিক ৫ ডিগ্রিতে সীমিত রাখার কথা বলেন। তবে বিজ্ঞানীরা সতর্কতা জারি করে বলেছেন, সময় দ্রুত শেষ হয়ে যাচ্ছে।

তথ্যসূত্র: রয়টার্স, স্টার্ট আপ পাকিস্তান

 

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:০৭

কাজাখস্তানে ‘সন্ত্রাসীদের’ বিরুদ্ধে বিজয় দাবি পুতিনের

কাজাখস্তানে ‘সন্ত্রাসীদের’ বিরুদ্ধে বিজয় দাবি পুতিনের

গত কয়েক দিনের ভয়াবহ সহিংসতার পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে কাজাখস্তানের বৃহত্তম শহর আলমাটি। আজ সোমবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কাজাখস্তানে বিদেশি মদদপুষ্ট ‘সন্ত্রাসীদের’ বিরুদ্ধে বিজয়ের দাবি করেছেন। খবর রয়টার্সের।

কাজাখস্তান ছাড়াও সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের অন্যান্য রাষ্ট্রগুলোর নেতাদের পুতিন আশ্বস্ত করে বলেছেন, মস্কোর নেতৃত্বাধীন জোট তাদের রক্ষা করতেও পাশে থাকবে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত কয়েক দিনের ভয়াবহ সহিংসতার পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে কাজাখস্তান। রাস্তা থেকে ধ্বংসাবশেষ সরাচ্ছে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। দোকানপাট খুলেছে, গণপরিবহন চালু হয়েছে, ইন্টারনেট সংযোগ ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত সপ্তাহে কাজাখস্তানে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভ রূপ নেয় সহিংসতায়। সহিংসতায় নিরাপত্তাকর্মী ও বিক্ষোভকারী উভয় পক্ষেই হতাহতের ঘটনা ঘটে। মোট ১৬৪ জন নিহতের খবর পাওয়া যায়। কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট কাসিম জোমার্ট তোকায়েভের অনুরোধে কাজাখস্তানে সেনা পাঠায় রাশিয়া। সেনা পাঠানো নিয়ে নানান আলোচনা ওঠে।

যুক্তরাষ্ট্র জানায়, রাশিয়ার সেনা পাঠানোর বিষয়টিকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে তারা। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, মানবাধিকার লঙ্ঘন ইস্যুতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্ব কাজাখস্তানকে পর্যবেক্ষণে রাখবে।

মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:০৬

জাপানে মার্কিন ঘাঁটিগুলোতে ব্যাপক কড়াকড়ি আরোপ

জাপানে মার্কিন ঘাঁটিগুলোতে ব্যাপক কড়াকড়ি আরোপ

 জাপানের ওকিনাওয়া দ্বীপসহ যে সমস্ত ঘাঁটিতে মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে সেসব ঘাঁটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলার জন্য অত্যন্ত কড়া বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এসব ঘাঁটিতে করোনা মহামারী দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

জাপানে মোতায়েন মার্কিন সেনাবাহিনী এবং জাপান সরকারের যৌথ বিবৃতিতে এ কড়াকড়ি আরোপের বিষয়টি জানানো হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়, দুই সপ্তাহের জন্য মার্কিন ঘাঁটিগুলো থেকে একান্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া সেনারা বাইরে যেতে পারবে না। এছাড়া প্রতিটি সেনাসদস্যকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরতে হবে।

জাপানের ওকিনাওয়া দ্বীপে গতকাল রবিবার ১ হাজার ৫৩৩টি করোনা সংক্রমণের ঘটনা শনাক্ত করা হয়। তার আগের দিন ওকিনাওয়ায় সর্বোচ্চ ১ হাজার ৭৯৫ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল।

ওকিনাওয়া দ্বীপে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের মধ্যে ৪২৯ জন নতুন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

গত ডিসেম্বর মাস থেকে জাপানে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটিগুলোতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে।

মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:০৪

অভ্যুত্থানের উদ্দেশ্যে বিক্ষোভ হয়েছিল : কাজাক প্রেসিডেন্ট

অভ্যুত্থানের উদ্দেশ্যে বিক্ষোভ হয়েছিল : কাজাক প্রেসিডেন্ট

 অভ্যুত্থানের উদ্দেশ্যেই সরকারবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছিল বলে দাবি করেছেন কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট কাসিম জোমরাত তোকায়েভ। তিনি সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সামরিক জোটের নেতাদের বলেন, ওই কর্মকাণ্ড ‘একটি জায়গা’ থেকেই সমন্বয় করা হয়েছে। তবে তার দৃষ্টিতে দায়ী ওই ব্যক্তিদের নাম বলেননি।   

এদিকে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার মধ্য এশিয়ার প্রতিবেশী এই রাষ্ট্রকে রক্ষা করার জন্য বিজয় দাবি করেছেন। এরপর সোমবার দেশটির রাষ্ট্রপতি কাসিম জোমার্ত তোকায়েভ ওই বিক্ষোভকে ‌‘অভ্যুত্থানের চেষ্টা’ হিসেবে বর্ণনা করে এমনটাই জানিয়েছেন।
রাশিয়ান নেতৃত্বাধীন যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থার (সিএসটিও) একটি অনলাইন সভায় কথা বলার সময় কাসিম জোমরাত তোকায়েভ বলেন,  কাজাখস্তানে শৃঙ্খলা পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, বর্তমান শান্তির কৃতিত্ব কাজাখস্তানের সরকার ও কাজাখ-রুশ যৌথ বাহিনীর।

ভার্চুয়াল ওই বৈঠকে পুতিন আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসী, অপরাধী ও লুটেরাদের আক্রমণ থেকে কাজাখস্তান রাষ্ট্রের মূল ভিত্তি ও জনগণকে রক্ষা করেছে কাজাখ-রুশ সেনাবাহিনী। কাজাখস্তানে সম্প্রতি যা ঘটল, তাতে এটি পরিষ্কার যে বাইরের শক্তি আমাদের সাবেক সোভিয়েত রাষ্ট্রসমূহের অভ্যন্তরীণ স্থিতিশীলতা ও শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে; কিন্তু কাজাখস্তানে সিএসটিও স্পষ্টভাবে দেখিয়ে দিয়েছে যে, আমরা বাইরের কোনো শক্তিকে আমাদের বাড়ি লক্ষ্য করে পাথর ছুড়তে দেব না।’

সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স ও আল-জাজিরা  

মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৫৭

তাইগ্রেতে বিমান হামলায় নিহত ৫৬

তাইগ্রেতে বিমান হামলায় নিহত ৫৬

পূর্ব আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার উত্তরাঞ্চলের তাইগ্রেতে অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুতদের এক আশ্রয় শিবিরে বিমান হামলায় অন্তত ৫৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন।

তাইগ্রে অঞ্চলের উত্তর-পশ্চিমের দেদেবিত শহরের কাছের এক শরণার্থী শিবিরে ওই বিমান হামলা হয়েছে। শহরটির সঙ্গে প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সীমান্ত রয়েছে।

গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি না থাকায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই দুই দাতব্য কর্মী বলেন, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ বিমান হামলায় নিহতের তথ্য নিশ্চিত করেছে। হাসপাতালে শিশুসহ অন্যান্য আহতের চিকিৎসা নেওয়ার ছবি রয়টার্সের কাছে পাঠিয়েছেন তাইগ্রের ওই দুই দাতব্য কর্মী।

রয়টার্স মন্তব্যের জন্য যোগাযোগ করলেও তাৎক্ষণিকভাবে সাড়া দেননি দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল গেতনেত আদানে এবং সরকারের মুখপাত্র লিগেসে তুলু।

এর আগে তাইগ্রে বিদ্রোহীদের সঙ্গে ১৪ মাসের সংঘাতে বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইথিওপিয়ার সরকার।

রোববার, ৯ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:২০

ভিসা ছাড়াই চীন যেতে পারবে মালদ্বীপের মানুষ

ভিসা ছাড়াই চীন যেতে পারবে মালদ্বীপের মানুষ

কভিড মহামারির পর মালদ্বীপের নাগরিকদের চীনে যেতে ভিসার প্রয়োজন হবে না। গতকাল শনিবার দেশ দুটির মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর আওতায় তারা ভিসা ছাড়াই চীনে গিয়ে ৩০ দিন পর্যন্ত অবস্থান করতে পারবে।

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ শহীদ এবং চীনের স্টেট কাউন্সেলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর উপস্থিতিতে ভিসা অব্যাহতিসহ পাঁচটি চুক্তি ও সমঝোতা হয়। মালদ্বীপ ও চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যৌথভাবে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীর বিশেষ লোগো উন্মোচন করেন।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ইরিত্রিয়া, কেনিয়া, কমোরোস, মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কা সফরের অংশ হিসেবে গত শুক্রবার মালেতে পৌঁছান। তিনি এমন একসময় মালদ্বীপ সফর করেছেন যখন মালদ্বীপে ভারতীয় সামরিক উপস্থিতির বিরুদ্ধে মহলবিশেষের প্রচারণা জোরালো হয়েছে। এ ছাড়া এই অঞ্চলে চীনের ক্রমবর্ধমান প্রভাবের পটভূমিতে মালদ্বীপে এই সফরকে বিশ্লেষকরা বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন।

মালদ্বীপের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল এক বিজ্ঞপ্তিতে চীনের সঙ্গে ভিসা অব্যাহতি ছাড়া আরো চারটি চুক্তি, সমঝোতা ও দলিল সইয়ের কথা জানিয়েছে। এর মধ্যে অর্থনৈতিক ও কারিগরি সহায়তা চুক্তিতে সামাজিক, জীবন-জীবিকা ও অবকাঠামো প্রকল্পে মঞ্জুরি সহায়তাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। চীন-মালদ্বীপ মৈত্রী সেতুর ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ বিষয়ে সমীক্ষার জন্য একটি ‘লেটার অব এক্সচেঞ্জ’ স্বাক্ষরিত হয়েছে। মালের সঙ্গে হুলেমালে দ্বীপের সংযোগকারী ১.৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ওই সেতু চীনের ২০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যমানের সহায়তায় নির্মাণ করা হয়েছে সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিনের আমলে।

প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিনকে চীন-ঘনিষ্ঠ হিসেবে দেখা হয়। আর ওই সেতু মালদ্বীপে চীনের ফ্ল্যাগশিপ প্রকল্প। অতীতে বিভিন্ন সময় নেওয়া ঋণ বাবদ মালদ্বীপের কাছে চীনের পাওনা প্রায় ১৪০ কোটি মার্কিন ডলার। মালদ্বীপের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম সলিহর সরকার চীনের ওই ঋণ পুনর্বিন্যাস করতে চায়।

মালদ্বীপের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই সফরে মালদ্বীপ চীনা অর্থায়নে সামুদ্রিক পানির লবণাক্ততা দূর করার প্রকল্প বাস্তবায়নে সম্পূরক কার্যাদেশও স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ ছাড়া মালদ্বীপ ও চীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা খাতে সহযোগিতা বিষয়েও একটি চুক্তি হয়েছে।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট সলিহর সরকার এখন পররাষ্ট্রনীতির ক্ষেত্রে প্রকাশ্যেই ‘ভারত প্রথম’ অনুসরণ করার কথা বলছে। সলিহর সরকার ২০১৮ সালে মালদ্বীপে ক্ষমতায় আসার পর ওই দ্বীপরাষ্ট্রটির উন্নয়নে ভারত ১৪০ কোটি মার্কিন ডলার দেওয়ার অঙ্গীকার করেছে।

এদিকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই গতকাল মালদ্বীপ থেকে শ্রীলঙ্কা সফরে গেছেন। শ্রীলঙ্কা এখন অর্থনৈতিকভাবে বেশ নাজুক অবস্থায় আছে।

রোববার, ৯ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:০৭

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামির সঙ্গে চুম্বনে নারী বিচারক (ভিডিও)

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামির সঙ্গে চুম্বনে নারী বিচারক (ভিডিও)

পুলিশকে হত্যার অভিযোগে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত হয়েছে এক আসামি। বন্দি হয়ে আছে জেলে। জেলের ভিতরে ওই আসামিকে চুম্বন করেছেন এক নারী বিচারক। চুম্বনের ওই দৃশ্য সিসিটিভি ফুটেজে ধারণ হয়েছে এবং এই দৃশ্য ভাইরাল হয়েছে। এই ঘটনা আর্জেন্টিনার।

দেশটির দক্ষিণ চুবুত প্রদেশের মারিয়েল সুয়ারেজ নামে ওই বিচারক গত ২৯ ডিসেম্বর দেশটির ত্রিলেউ শহরের কাছে ক্রিস্টিয়ান বাস্টোস নামের সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে চুম্বন দিতে দেখা যায়।

রোববার, ৯ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৪৬

ওমরাহ পালনে নতুন নির্দেশনা সৌদির

ওমরাহ পালনে নতুন নির্দেশনা সৌদির

ওমরাহ পালনে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে সৌদি আরব। দেশটির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, প্রথমবার ওমরাহ পালন শেষে ১০ দিনের বিরতি দিয়ে দ্বিতীয়বার ওমরাহ পালন করা যাবে। সব বয়সীদের জন্যই নতুন এই শর্ত প্রযোজ্য হবে।

সৌদি গেজেটের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রথমবার ওমরাহ পালনের পর কেউ দ্বিতীয়বার ওমরাহ পালন করতে চাইলে নির্দিষ্ট ১০ দিনের সময় শেষে ইটমারানা বা তাওয়াক্কালনা অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে দ্বিতীয় ওমরার জন্য আবেদন করতে পারবেন। ওমরাহ পালনকারীদের প্রশ্নের জবাবে দেশটির মন্ত্রণালয় এক টুইট বার্তায় এই তথ্য জানিয়েছে।

দেশটিতে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ায় বিশেষ করে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের হানায় মক্কা ও মদিনায় দেশটির মন্ত্রণালয় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। মাস্ক পরিধান, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মত বিধিনিষেধ আরোপ করেছে দেশটির মন্ত্রণালয়।

এর আগে দেশটির এই মন্ত্রণালয় দুইবার ওমরাহ পালনের ক্ষেত্রে ১৫ দিনের বিরতির নির্দেশনা দেয়। তবে তা গতবছরের অক্টোবরে বাতিল করা হয়।

সৌদিতে করোনা শুরুর পর এ পর্যন্ত পাঁচ লাখ ৫৪ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছে ৮ হাজার ৮৭৪ জনের বেশি।

নতুন করে করোনার সংক্রমণ বাড়ায় গত রবিবার দেশটির সরকার ঘোষণা করে, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে দোকানপাট, শপিং সেন্টার এবং রেস্তোরাঁয় যেতে চাইলে সব সৌদি নাগরিক কিংবা সে দেশে বসবাসকারী ও দর্শনার্থীকে কোভিড বুস্টারের সনদ দেখাতে হবে। ইত্তেফাক

শুক্রবার, ৭ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৮

৩০০০ লিটার মদ নালায় ঢেলে দিল তালেবান

৩০০০ লিটার মদ নালায় ঢেলে দিল তালেবান

আফগানিস্তানের কাবুলের একটি নালায় ঢেলে ফেলা হলো ৩০০০ লিটার মদ। দেশটির গোয়েন্দা সংস্থার কর্মীরা এ কাজটি করেন এবং বলেন, তালেবান কর্তৃপক্ষের অ্যালকোহলবিরোধী কঠোর অবস্থানের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দপ্তর থেকে ছাড়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, গোয়েন্দা সংস্থার বেশ কয়েকজন সদস্য কাবুলের একটি নালায় রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে জব্দকৃত মদ ঢেলে ফেলে দিচ্ছেন।

আজ রবিবার টুইটারে ওই ভিডিও ফুটেজের ক্যাপশনে লেখা হয়, 'মুসলমানদের জন্য মদ তৈরি ও বিপণন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ'।

তবে ওই ভিডিও ফুটেজ থেকে এটা বোঝা বা জানা যায়নি যে কবে, কোথায় ওই জব্দের অভিযান চালানো হয় এবং কোথাই-বা তা ধ্বংস করা হয়। তবে গোয়েন্দা সংস্থা এক বিবৃতিতে বলে, তিনজন মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী পশ্চিমা-সমর্থিত সরকারের সময়ও মদ বিক্রি ও সেবন নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু কট্টরপন্থী ইসলামী দল তালেবান মদের বিরোধিতায় কঠোর। ১৫ আগস্ট তাদের ক্ষমতা দখলের পর দেশজুড়ে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান বেড়েছে।
সূত্র : দ্য নিউ আরব

সোমবার, ৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৪২

সৌদি আরবে ৫০০ পর্দায় চলছে সিনেমা, বার্ষিক আয় ৩৮৫০ কোটি টাকা

সৌদি আরবে ৫০০ পর্দায় চলছে সিনেমা, বার্ষিক আয় ৩৮৫০ কোটি টাকা

চার বছর ধরে সৌদি আরবে চলচ্চিত্র মুক্তি পাচ্ছে। ৩৫ বছর নিষিদ্ধ থাকার পর চলচ্চিত্র মুক্তি পাচ্ছে শর্ত সাপেক্ষে। যৌনতা ও সমকামিতা স্পর্শ করে, এমন সিনেমা এখনো নিষিদ্ধ সৌদি আরবে। সংবেদনশীল ধর্মীয় বা রাজনৈতিক বিষয় রয়েছে, এমন সিনেমাও প্রদর্শন করা যাবে না। পশ্চিম এশিয়ার সিনেমাগুলো সবচেয়ে বেশি মুক্তি পায় দেশটিতে।

সিনেমার বাজার বেশ রমরমিয়ে বাড়ছে সৌদি আরবে। ফলে পশ্চিম এশিয়ার শীর্ষ সিনেমার বাজারে পরিণত হতে যাচ্ছে সৌদি আরব। ২০২০ সালে সৌদি আরবের সিনেমার বাজার থেকে আয় হয়েছে ১৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এক বছরের ব্যবধানে সেই আয় বেড়েছে তিন গুণ। ২০২১ সালে সিনেমার বাজার থেকে সৌদি আরবের আয় ৪৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় তিন হাজার ৮৫০ কোটি টাকার বেশি।

এমন আয়ের ফলে গবেষণা সংস্থা ওমদিয়া বলছে, ২০২৫ সালে সৌদি আরব বিশ্বের দশম বৃহত্তম সিনেমা বাজার হওয়ার পূর্বাভাস দিচ্ছে।  চলচ্চিত্র পরিবেশক সংস্থা ভক্স তিন বছর আগে সৌদি আরবে প্রবেশ করে। যারা এই তিন বছরে দেশটির ছয়টি শহরে নতুন ১৫টি সিনেমা হল খুলেছে। বর্তমানে দেশটিতে ১৫৪টি সিনেমা হল চালু আছে, যাতে ৫০০ স্ক্রিনে সিনেমা প্রদর্শিত হয়।

সৌদি আরব তাদের বিনোদন খাতে ৬৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। এই সামগ্রিক বিনিয়োগ আগামী দশকে এই বাজারকে আরো গতিশীল করবে।

চলচ্চিত্র ছাড়াও সৌদি আরব বর্তমানে নৃত্য উৎসব  আয়োজনে জোর দিতে চায়। এরই মধ্যে সৌদি রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে দ্বিতীয়বারের মতো এমন একটি আয়োজন হয়েছে, যেখানে এক লাখ ৮০ হাজার মানুষের সমাগম ঘটে।

সূত্র : ভ্যারাইটি ডটকম

সোমবার, ৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৯

ওমিক্রন : ভয়ংকর পরিস্থিতিতে পড়তে যাচ্ছে ভারত

ওমিক্রন : ভয়ংকর পরিস্থিতিতে পড়তে যাচ্ছে ভারত

মহামারিতে নতুন এক আতঙ্ক তৈরি করেছে গত নভেম্বরের শেষের দিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের অতি-সংক্রামক ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট। বিশ্বজুড়ে এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে; বিশেষ করে ইউরোপের দেশগুলোতে ওমিক্রনের ব্যাপক আধিপত্য চলছে। প্রতিবেশী ভারতেও এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ ব্যাপক বিপজ্জনক পরিণতি ডেকে আনতে পারে বলে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক বিশ্লেষণে উঠে এসেছে।

এনডিটিভির মেহের পান্ডে এবং সৌরভ গুপ্ত দেশটিতে বর্তমান সংক্রমণের বিশেষ তথ্য বিশ্লেষণের পর বলেছেন, ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের দাপটে ভারতে প্রত্যেক দিন গড়ে ৬০ হাজারের মতো মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি করার মতো পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।
দেশটির সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ভারতে মোট করোনা রোগীর মধ্যে ২ শতাংশেরও কম বর্তমানে ওমিক্রনে আক্রান্ত। কিন্তু এনডিটিভির গবেষণা বলছে, প্রকৃত চিত্র আসলে এরচেয়ে ভয়াবহ। ভারতে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আধিপত্যশীল হয়ে ওঠায় শিগগিরই দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সংকট তৈরি হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন মেহের পান্ডে এবং সৌরভ গুপ্ত।

ভারতের স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যে দেশটিতে বর্তমানে ওমিক্রন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার বলে ধারণা করা হলেও প্রকৃত সংখ্যা তার চেয়ে ১০ গুণেরও বেশি। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ভারতে ১৮ হাজার মানুষ ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন এবং প্রত্যেক দিন সেই সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের পথে হাঁটছে ভারতও; অনেক দেশে বর্তমানে যারা নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের প্রায় ৯০ শতাংশই ওমিক্রনে সংক্রমিত। ওমিক্রন শনাক্তের জন্য অপরিহার্য জিনোম সিকোয়েন্সিং ব্যবস্থা, পরীক্ষাগার ও ল্যাবরেটরির সংখ্যা কম হওয়ায় ভারতে ওমিক্রন রোগীর সরকারি চিত্র এখনও অনেক কম।

তবে ওমিক্রন শনাক্ত করতে সক্ষম এমন দুটি ল্যাবের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে এনডিটিভি। সেই তথ্য বিশ্লেষণে পাওয়া ওমিক্রন রোগীর সংখ্যা সরকারিভাবে ঘোষিত সংখ্যার ভিন্ন গল্প বলছে।

প্রধান দুটি ল্যাব—যার একটি দিল্লি এবং অপরটি মুম্বাইয়ে ওমিক্রন পরীক্ষা করে। তাদের পরীক্ষার তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, করোনা আক্রান্ত সব রোগীর মধ্যে প্রায় ৬০ শতাংশের নমুনায় ওমিক্রন পাওয়া গেছে। মুম্বাইয়ের অপর একটি ল্যাবের তথ্যও একই ধরনের কথা বলছে। সেই ল্যাবে করোনা পজিটিভ রোগীদের মধ্যে প্রায় ৬০ শতাংশের নমুনায় ওমিক্রন পাওয়া গেছে। এক সপ্তাহ আগেও সেখানে এই হার ছিল সর্বোচ্চ ৩৭ শতাংশ।

এনডিটিভি বলছে, বিশেষ উদ্বেগজনক সত্য হলো ওমিক্রন সংক্রমণ ডেল্টার তুলনায় অনেক দ্রুত বাড়ছে। দুই থেকে তিন সপ্তাহ আগে মোট কোভিড রোগীর প্রায় ২ শতাংশের ওমিক্রন ছিল; তারপর কয়েক দিন আগে সেটি ৩০ শতাংশ হলেও এখন তা ৬০ শতাংশের কাছাকাছি। এই সময়ের মধ্যে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত কমেছে এবং ওমিক্রন ভারতে আধিপত্য বিস্তারকারী ভ্যারিয়েন্টে পরিণত হয়েছে।

তবে এই সংবাদ ভারতের জন্য একদিক থেকে ভালো মনে হলেও অন্যদিক থেকে খারাপ। সুসংবাদ হলো ডেল্টার তুলনায় ওমিক্রন কম গুরুতর অসুস্থতা তৈরি করে। কারণ ডেল্টায় আক্রান্ত উচ্চসংখ্যক রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয় এবং ওমিক্রনের তুলনায় ডেল্টায় মৃত্যুর হারও বেশি।

কিন্তু ভারতের জন্য উদ্বেগজনক খবর হলো, ওমিক্রন ডেল্টার চেয়ে দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ে। নতুন এই ধরন ডেল্টার চেয়ে ৪ থেকে ৫ গুণ বেশি সংক্রামক বলে ধারণা করা হচ্ছে। সুতরাং এটি এমন এক ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, সারা বিশ্বের মতো ভারতেও যদি করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ে, তাহলে দেশটি সংক্রমণের চূড়ায় পৌঁছালে প্রত্যেক দিন ১৬ থেকে ২০ লাখ পর্যন্ত মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন। দেশটিতে দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় ডেল্টা সংক্রমণের সর্বোচ্চ চূড়ায় যে সংখ্যা ছিল ৪ লাখ।

এনডিটিভি বলছে, এমন পরিস্থিতি ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থার ওপর নিয়ন্ত্রণহীন চাপ তৈরি করবে। হাসপাতালের শয্যা, অক্সিজেন সিলিন্ডার, চিকিৎসক এবং ওষুধপ্রাপ্তির মতো সংকট দেখা দেবে। ওমিক্রনে আক্রান্তদের মধ্যে কয়েক শতাংশকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন হলেও মোট রোগী এবং সংক্রমণের সংখ্যা অনেক বেশি হবে।

ভারতীয় এই সংবাদমাধ্যমের গবেষণা বলছে, ডেল্টায় আক্রান্ত ১০০ জনের মধ্যে অন্তত ৬ জনকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। কিন্তু ওমিক্রনের ক্ষেত্রে সেই সংখ্যা ডেল্টার তুলনায় অর্ধেক। অর্থাৎ ওমিক্রনে আক্রান্ত ১০০ জনের মধ্যে তিনজনকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন হয়।


ওমিক্রন এবং ডেল্টায় হাসপাতালে ভর্তির এই তথ্য অনুযায়ী, ভারতে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ চূড়ায় পৌঁছানোর সময় দৈনিক সর্বোচ্চ ৪ লাখ মানুষ ডেল্টায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। এর মধ্যে শতকরা হিসেবে দৈনিক প্রায় ২৪ হাজার মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়। কিন্তু সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে তৃতীয় ঢেউ চূড়ায় পৌঁছালে দেশটিতে দৈনিক ওমিক্রন রোগী পাওয়া যাবে ২০ লাখ। শতকরা হিসেবে ওমিক্রন আক্রান্ত এই রোগীদের মধ্যে দৈনিক প্রায় ৬০ হাজার মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে।

ডেল্টা-চালিত দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রায় ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছিল। ওমিক্রনে আক্রান্ত ৩ শতাংশ মানুষকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন হলেও ভারত বড় ধরনের স্বাস্থ্য সংকটের মুখে পড়তে পারে। তবে ভারত একটি ইতিবাচক আশা করতে পারে যে, ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ডেল্টার চেয়ে অনেক বেশি খারাপ হলেও বেশিদিন স্থায়ী নাও হতে পারে।

কারণ দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্তে দেখা গেছে, ওমিক্রন সংক্রমণের ঢেউ ডেল্টার চেয়ে দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং দ্রুতই শেষ হয়ে যায়।

সোমবার, ৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৫

ওমিক্রন ও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট করোনাকে ভয়াবহ করে তুলছে: ডাব্লিউএইচও

ওমিক্রন ও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট করোনাকে ভয়াবহ করে তুলছে: ডাব্লিউএইচও

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের দেশগুলোতে করোনার সংক্রমন বৃদ্ধি সংক্রান্ত আলোচনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) এর প্রধান তেদ্রোস অধানম এ কথা বলেছেন। বিবিসি

 জন হপকিংস বিশ^বিদ্যালয়ের দেয়া তথ্য মতে, গত এক সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় দৈনিক নতুন সংক্রমনের গড় ২ লাখ ৬৫ হাজার ৪২৭। ইউরোপে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে ফ্রান্সে। বুধবার ইউরোপে সর্বোচ্চ মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে পোল্যান্ডে ৭৯৪ জন। মৃতদের ৭৫ ভাগেরও বেশি টিকা গ্রহণ করেনি।

[ সংক্রমন বৃদ্ধির হার অব্যাহত থাকলে স্বাস্থ্যখাত ভেঙ্গে পড়তে পারে বলে সর্তক করেছেন ডাব্লিউএইচও এর প্রধানতেদ্রোস অধানম।

বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৫৭

`বাড়ি ফিরে আয় বাবা, লায়লাই হবে তোর জীবনসঙ্গী`

`বাড়ি ফিরে আয় বাবা, লায়লাই হবে তোর জীবনসঙ্গী`

কাউকে খুঁজে না পাওয়া গেলে সংবাদপত্রে বা টেলিভিশনে নিখোঁজ বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়ে থাকে। কত দিন ধরে নিখোঁজ, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির গায়ের রং, হারিয়ে যাওয়ার সময় কী ধরনের পোশাক পরা ছিল, শারীরিক গঠন ইত্যাদি সবিস্তারে লেখা হয় বিজ্ঞাপনে। কিন্তু সম্প্রতি এক দম্পতি তার ছেলের যে নিখোঁজ বিজ্ঞাপন দিয়েছেন তা দেখে চোখ চড়ক গাছ হওয়ার জোগাড়।  

পছন্দের পাত্রীর সঙ্গে বিয়ে না দেওয়ায় এবং পছন্দের দোকান থেকে শেরওয়ানি না কেনায় বাড়ি ছেড়ে নিরুদ্দেশ হয়েছেন তাদের ছেলে। আর তাকে বাড়ি ফেরাতেই অভিনব এক বিজ্ঞাপন দিয়েছেন ওই বাবা-মা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বিজ্ঞপনের বর্ণনায় বলা হয়েছে, ছেলের বয়স ২৪। ফর্সা, সুন্দর এবং উঁচু-লম্বা। পাশেই লেখা, নিখোঁজ!

তার ঠিক নীচেই বাবা-মায়ের আর্জি, 'বাড়ি ফিরে আয় বাবা মজনু। তোর জন্য সবাই ভীষণ চিন্তায় আছি।' বিজ্ঞাপন দেখে বোঝা যাচ্ছে ছেলের পছন্দমতো পাত্রীর সঙ্গে বিয়ে না দেওয়ায় বাড়ি ছেড়েছেন। আর তাতেই দিশাহারা পরিবার। ছেলের দাবি মানা হবে, এই কথা জানিয়েই তাকে ফিরে আসার অনুরোধ করেছেন বাবা-মা।

'দ্য টেলিগ্রাফ'-এর ওই বিজ্ঞাপনে আরও লেখা হয়েছে, 'আমরা তোর দাবি মেনে নিয়েছি। লায়লাই হবে তোর জীবনসঙ্গী। তোর পছন্দমতো দোকান থেকেই শেরওয়ানি কেনা হবে। নিউ মার্কেটের সেই দোকানেই আমরা যাব। ওখানে গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা আছে। তাছাড়া তোর বৌভাতের দিনের জন্য আমরা সবাই ওই দোকান থেকেই কুর্তা কিনব।'

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪৫

এস-৪০০ ও প্যাট্রিয়টের আদলে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বানা

এস-৪০০ ও প্যাট্রিয়টের আদলে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বানা

 তুরস্ক অভ্যন্তরীণ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্রকল্পের অংশ হিসেবে নতুন আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরির কাজ অব্যাহত রাখবে। এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার এস-৪০০ এবং আমেরিকার প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার অনুরূপ হবে।

মঙ্গলবার তুরস্কের গণমাধ্যম এ খবর দিয়েছে।
তুরস্কের জাতীয় দৈনিক ‘সাবাহ’ জানিয়েছে, ২০২২ সালে তুর্কি সরকার অভ্যন্তরীণভাবে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির প্রকল্প অব্যাহত রাখবে। এরইমধ্যে হিসার এবং সাইপার নামে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র সফলতার সাথে পরীক্ষা করা হয়েছে।

দৈনিক সাবাহ পত্রিকা দাবি করছে, এসব ক্ষেপণাস্ত্র অত্যন্ত দ্রুতগতির লক্ষ্যবস্তু সফলতার সঙ্গে ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে।

পত্রিকাটি বলেছে, তুরস্ক সাইপার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার এক কদম দূরে অবস্থান করছে। প্রকল্প সফল হলে সাইপার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার এস-৪০০ এবং আমেরিকার প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

তুরস্ক আশা করছে, ২০২৩ সাল থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সামরিক বাহিনীতে যুক্ত হবে এবং শত্রুর যে কোনো হুমকি অত্যন্ত নির্ভরযোগ্য উপায়ে ধ্বংস করতে পারবে।

এছাড়া, হিসার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা স্বল্প ও মধ্যম পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হিসেবে কাজ করবে। পাশাপাশি তুরস্কের সামরিক এবং কৌশলগত দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রক্ষার কাজ করবে হিসার-ও (HISAR-O) ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

সূত্র: পার্সটুডে

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪১

দুটি বেলুনের মাঝখানে রশির ওপর ৬ হাজার ১শ ফুট হেঁটে বিশ্বরেকর্ড

দুটি বেলুনের মাঝখানে রশির ওপর ৬ হাজার ১শ ফুট হেঁটে বিশ্বরেকর্ড

দুটি হটএয়ার বেলুনের মাঝে এভাবে হাঁটলেন রাফায়েলে জুগনো ব্রিদি। তার আগে তারই দেশি ব্রাজিলের প্রাইয়া গ্রান্ডির এভাবে ১ মাইলের বেশি হাঁটার রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেন তিনি। ডেইলি মেইল

 অর্থাৎ বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবন বুর্জ খলিফার দ্বিগুণ উচ্চতারও বেশি পথ মাত্র এক ইঞ্চি প্রশস্ত দড়ির ওপর দিয়ে হাঁটেন ব্রিদি। বুর্জ খলিফার উচ্চতা হচ্ছে ২ হাজার ৭২২ ফুট।

খালি পায়ে দড়ির ওপর এভাবে হাঁটার সময় ব্রিদিকে এক পশলা মেঘও ছুঁয়ে যায়।

 ব্রিদা বলেন, এভাবে হেঁটে স্বাধীনতা ও সংবেদনশীলতার স্বাদ পরখ করতে চাই আমি।

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:২৫

দিল্লীতে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ওমিক্রনের প্রভাব
আজ থেকে নাইট কারফিউ

দিল্লীতে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ওমিক্রনের প্রভাব

বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্টের মাধ্যমে ভারতে আসতে পারে কোভিডের তৃতীয় ঢেউ। সোমবার সকালে জানা গেল, তার আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিডের ওই ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৩৭ শতাংশ। এখন ভারতে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭৮। রবিবার দেশে ওই ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪২২। সামগ্রিকভাবে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫৩১ জন। রবিবারের তুলনায় সংক্রমণ কমেছে ৬.৫ শতাংশ।

সোমবার রাত ১১ টা থেকে রাজধানীতে জারি হচ্ছে নাইট কারফিউ। রবিবার ওই শহরে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২৯০ জন। তার পরেই নাইট কারফিউ জারির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 এতদিন মহারাষ্ট্রেই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছিলেন। সোমবার জানা গেল, ওই রাজ্যকে ছাড়িয়ে গিয়েছে দিল্লী। রাজধানীতে এখন ওই ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্তের সংখ্যা ১৪২। মহারাষ্ট্রে ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা ১৪১। কেরলে ৫৭ জন, গুজরাতে ৪৯ জন এবং রাজস্থানে ৪৩ জন ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন। দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ১৫১ জন ওমিক্রন আক্রান্ত।

 বর্তমানে দেশে অ্যাকটিভ কোভিড কেসের সংখ্যা ৭৫,৮৪১। মোট যতজন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের ০.২২ শতাংশ কেস এখন অ্যাকটিভ। ২০২০ সালের মার্চের পরে কখনই অ্যাকটিভ কেসের হার এত কম ছিল না। সুস্থ হয়ে ওঠার হার এখন ৯৮.৪০ শতাংশ।

উৎসবের মরসুমে দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে বলে বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা। দিল্লী কলকাতা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বড়দিনে রাস্তায় বহু মানুষকে ভিড় করতে দেখা গিয়েছে। তাদের অনেকের মুখে মাস্ক ছিল না। এর পরেই বিভিন্ন রাজ্য কোভিড বিধি নিয়ে কড়াকড়ি করে।


ভয়েস অব আমেরিকা

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪৫

‘বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারবেন মুসলিম মেয়েরা’

‘বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারবেন মুসলিম মেয়েরা’

 বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারেবেন মুসলিম মেয়েরা বলে রায় দিয়েছেন ভারতের পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট। কোর্ট বলেছে, ১৮ বছরের সাবালিকাও হতে হবে না, বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারে মুসলিম মেয়েরা।

এদিকে আদালতের এই রায় ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছে দেশটিতে। মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে যখন দেশজুড়ে আলোচনা ও তর্ক চলছে, তখনই দেশটির পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট এই রায় দিলো।
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দ্যা ওয়ালের খবরে বলা হয়েছে, হিন্দু যুবকের সঙ্গে এক মুসলিম নাবালিকার বিয়ে নিয়ে মামলা চলছিল পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে। ১৭ বছরের মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করেছে তার হিন্দু প্রেমিক। মেয়েটির পরিবারের মত ছিল না বিয়েতে। তার উপর মেয়ের বিয়ের বয়স হয়নি বলে এই বিয়েকে অবৈধ বলে দাবি করেন মেয়েটির পরিবারের সদস্যরা। এর বিরুদ্ধে আবার আদালতে পাল্টা পিটিশন দাখিল করে মেয়েটি নিজে।

এই মামলার রায় দিতে গিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি হরনরেশ সিং গিল দাবি করেন, বয়ঃসন্ধি পেরোনোর পরে মুসলিম মেয়ের বিবাহ সংক্রান্ত সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করতে পারেন না তাঁর পরিবারের সদস্যরা। মুসলিম পার্সোনাল ল অনুযায়ী এমনটাই আইন এবং নিয়ম বলে উল্লেখ করেন তিনি।

আর বিচারপতি গিল জানান, মেয়েটি পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করছে মানে এই নয়, যে সে তার মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে। আদালত চোখ বন্ধ করে থাকতে পারে না। আইন অনুযায়ী, ইসলাম ধর্মালম্বী মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিবাহযোগ্য।

শুধু তাই নয়, বিচারপতি উল্লেখ করেন ‘Principles of Mohammedan Law by Sir Dinshah Fardunji Mulla’-আইনের কথাও। সেই আইনই বলছে, বয়ঃসন্ধি পেরোনোর পরে মুসলিম মেয়ে নিজের পছন্দ অনুযায়ী পাত্রকে বিয়ে করতেই পারে। এখানে যেহেতু মেয়েটির বয়স ১৭, ফলে তার বিয়ে করতে কোনও বাধা নেই।

সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:৪৬

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সমকামী বিশপ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সমকামী বিশপ

 সমকামীর দায়ে ২০০৮ সালে নিউ হ্যাম্পশায়ারের বৈশ্বিক বিশপ সম্মেলন থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সমকামী বিশপ জেন রবিনসনকে। এ ঘটনায় জেন রবিনসনের পাশে দাঁড়ান সদ্য প্রয়াত ডেসমন্ড টুটু। রবিনসনের প্রকাশ করা একটি বইয়ে টুটুর লেখা ছাপা হয়েছে।

ডেসমন্ড টুটু সেখানে লিখেছেন, জেন রবিনসন দারুণ মানুষ। একই গির্জায় তাকে পেয়ে আমি গর্বিত।
এর আগে ২০০৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম সমকামী ব্যক্তি হিসেবে বিশপ নির্বাচিত হন জেন রবিনসন। জেন রবিনসন স্থানীয় সময় রবিবার বলেছেন, আমি পরাবাস্তব পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলাম। সারাবিশ্ব থেকেই আমি দুঃখ পাচ্ছিলাম। সম্ভবত ওই সময় থেকে এ পর্যন্ত সারাবিশ্বের কেউ ডেসমন্ড টুটুর চেয়ে কাছের ছিল না।

দক্ষিণ আফ্রিকার নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অ্যাক্টিভিস্ট ডেসমন্ড টুটু ৯০ বছর বয়সে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। তিনি ছিলেন বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আপসহীন নেতা, দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদী নিপীড়নের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর। সেইসাথে সমকামী অধিকার এবং সমকামী বিয়ের জন্য একজন নেতৃস্থানীয় উকিল। সূত্র: পলিটিকো ডটকম

সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:৪৫

সর্বশেষ
জনপ্রিয়