ঢাকা, ২০২০-০৯-২৩ | ৮ আশ্বিন,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

দলীয় নেতার যৌন নিপীড়ন

প্রকাশিত: ০৩:৫১, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০  

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির একজন নেতার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তুললেন আরেক নেত্রী। এবিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে দলের কার্যালয়ে আমরণ অনশনে বসেছেন দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক নেত্রী জলি তালুকদার । ঢাকার পল্টনে সিপিবির দলীয় কার্যালয়ের পাঁচতলায় তিনদিন ধরে অনশন করছেন কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক নেত্রী জলি তালুকদার।

তিনি এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন, তবে অনশনের কারণ হিসাবে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে বিস্তারিত জানাতে চাননি।

আমি যা বলার দলকে বলেছি। এটা আমাদের দলের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। দলের প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা আছে। আশা করছি, দলের ভেতরেই এর একটা সমাধান হবে, বলেছেন জলি তালুকদার।

কী অভিযোগ

সিপিবি সূত্রে জানা গেছে, জলি তালুকদার তেসরা মার্চ দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সেখানে তিনি বলেছেন, ২৮শে ফেব্রুয়ারি বাম গণতান্ত্রিক জোটের একটি সমাবেশে মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় দলটির একজন নেতা তাকে যৌন হয়রানি করেছেন।

তার অভিযোগ: ব্যানার ধরে রাখার সময় তার শরীরের স্পর্শকাতর অংশে কয়েকবার ধাক্কা দেয়া হয়। তাকে মৌখিকভাবে সতর্ক করার পরেও তিনি আবারো এরকম আচরণ করেন। একপর্যায়ে তিনি মিছিল থেকে বেরিয়ে যেতে বাধ্য হন।

কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতি আমার আহ্বান থাকলো, একজন অপরাধীকে বাঁচানোর জন্য যারা এই ষড়যন্ত্রমূলক কৌশল নিয়েছে, তাদের ব্যাপারেও যথাযথ সিদ্ধান্ত নেওয়া পার্টির কর্তব্য। পার্টি যেন সে কর্তব্য পালনে পিছপা না হয়।

ছয় মাসের বেশি সময় ধরে এর বিচার না করে উল্টো তাকে হয়রানি করা হচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। এখন তিনি পল্টন কার্যালয়ে আমরণ অনশনে বসেছেন যাতে কেন্দ্রীয় কমিটি এই ঘটনার সুরাহা করে।

তিনি যেখানে অনশন করছেন, সেখানে তার মাথার কাছে থাকা দুইটি প্ল্যাকার্ডে লেখা রয়েছে: সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে নিপীড়কের পক্ষ নিয়ে আমার প্রতি যে অন্যায় ট্রায়াল চালিয়েছে, তার বিচার চাই। নিপীড়কের বিচার না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে।

অভিযুক্ত নেতা কী বলছেন

যার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ আনা হয়েছে তিনি এসব অভিযোগ মিথ্যা বলে তা নাকচ করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, জলি তালুকদারের সঙ্গে তার রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে এসব অভিযোগ আনা হয়েছে।

তিনি বলেছেন, এটা একেবারেই মিথ্যা অভিযোগ। মিছিলের সামনে থাকলে সেখানে অসংখ্য ক্যামেরা কাজ করে। সচিবালয়ের ওখানে সিসি ক্যামেরাও আছে। আসলে তার সঙ্গে রাজনৈতিক কিছু মতপার্থক্য আছে। রাজনৈতিকভাবে আমাকে ধ্বংস করার জন্য সুপরিকল্পিতভাবে আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আনা হয়েছে। সামনে কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মেলন, সেখানে সুবিধা নেয়ার জন্য তিনি এসব অভিযোগ করছেন বলে আমার ধারণা।

সিপিবির নেতাদের বক্তব্য

সিপিবি বলছে, তেসরা মার্চ এই অভিযোগ দেয়া হলেও করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে গত ছয় মাসে এই ব্যাপারে তারা কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেনি। দলের নেতারা বলছেন, কিছুদিন আগে এবিষয়ে তদন্ত করে একটি রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে।

তদন্ত কমিটির একজন সদস্য, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি লুনা নূর বলছেন, তারা নিয়মতান্ত্রিকভাবে তদন্ত করেছেন, সেখানে কোন পক্ষপাত করা হয়নি।

সিপিবির একজন নেতার বিরুদ্ধে আরেকজন নেতার যৌন নিপীড়নের অভিযোগকে দলের জন্য বিব্রতকর বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। সেই সঙ্গে অভিযোগ ওঠার পরে ছয়মাসেও এর কোন সুরাহা করতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেছেন, এরকম একটি অভিযোগ ওঠার পর বিলম্ব করা ঠিক হয়নি। এই ধরনের ঘটনা হওয়া উচিত নয়। এটার ব্যাপারে আরো আগে, সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেয়া দরকার ছিল। করোনাভাইরাসের কারণে ব্যবস্থা নিতে দেরি হয়েছে। কিন্তু কারণ যাই হোক, এই দেরির জন্য আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি।

তিনি জানান, কেন্দ্রীয় কমিটির মিটিং ডাকা হয়েছে, সেখানে এই বিষয়ে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। সূত্র: বিবিসি বাংলা

সর্বশেষ
জনপ্রিয়