ঢাকা, ২০২২-০১-২৫ | ১২ মাঘ,  ১৪২৮
সর্বশেষ: 
অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় হস্তক্ষেপ না করার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্র বিচার ১২৩ বছর আগে গ্রেপ্তার গাছ, শেকলে বন্দি আজো ফ্রান্স প্রেসিডেন্টকে চড় মারার মাশুল কতটা? কুরআনের আয়াত বাতিলে ‘ফালতু’ রিট করায় আবেদনকারীকে জরিমানা আদালতের দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড ওয়াক্ত ও তারাবি নামাজের জামাতে সর্বোচ্চ ২০ জন বিদেশে মারা গেছে ২৭০০ বাংলাদেশি আর্থিক ক্ষতি মেনেই সাঙ্গ হলো বইমেলা সুন্দরী মডেলের অপহরণ চক্র ! মোটরসাইকেল উৎপাদনে বিপ্লবে দেশ যুক্তরাজ্যে করোনার আরও মারাত্মক ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত ৮ থেকে ১২ সপ্তাহ বিরতিতে অক্সফোর্ডের টিকা বেশি কার্যকর সবাই সপরিবারে নির্ভয়ে করোনা ভ্যাকসিন নিন: প্রধানমন্ত্রী শেষ রাতে দু’রাকাত নামাজ জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে নতুন করোনাভাইরাস আতঙ্কে ইউরোপ-আমেরিকার শেয়ারবাজারে ধস জুনের মধ্যে আসছে আরও ৬ কোটি করোনার টিকা বাড়িভাড়ায় নাভিশ্বাস, ফের বাড়ানোর পাঁয়তারা অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত
যুক্তরাষ্ট্রের ইঙ্গেলহুডে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারীসহ নিহত ৪

যুক্তরাষ্ট্রে আবার বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রাণ হারিয়েছেন দুই নারীসহ চারজন। হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন একজন। তাকে নিকটবর্তী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, হামলা হয়েছে, লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে ইঙ্গেলহুডে একটি বাড়ি লক্ষ্য করে। ওই বাড়িতে একটি পার্টি চলছিল। অজ্ঞাতপরিচয় এক হামলাকারী ওই বাড়ি লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালান। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান চারজন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করে।

১৯৯০ সালের পর ইঙ্গেলহুডে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার হামলা হলো। কী কারণে হামলা, সে ব্যাপারে পুলিশ কিছু জানাতে পারেনি।

হামলাকারী সংখ্যায় একজন ছিল না একাধিক, সে ব্যাপারেও তারা কিছু জানাতে পারেনি। ঘটনাস্থলের পাশে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তাকে বা তাদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, জেনেশুনে হামলার জন্য বাড়িটিকে চিহ্নিত করে আততায়ী। পুলিশ এর পেছনের ঘটনা জানার চেষ্টা করছে।

ইঙ্গেলহুডের মেয়র জেমস বাট জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় রাত দেড়টায় পুলিশকে ফোন করে হামলার খবর দেয়া হলে পুলিশ সেখানে পৌঁছায়। ঘটনাস্থল থেকে চারজনকে মৃত উদ্ধার করা হয়েছে। একজনের আঘাত গুরুতর। নিকটবর্তী হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে। হামলার কারণ জানতে পুলিশ উচ্চপর্যায়ের তদন্ত করছে। আশা করা যায়, হামলাকারী শিগগির ধরা পড়বে। পুলিশ হতাহতদের নাম প্রকাশ করেনি।

গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভার ও লেকউডে এক বন্দুকধারীর গুলিতে চারজন নিহত হন। পুলিশ জানায়, অন্তত চারটি স্থানে এ হামলা চালানো হয়। প্রথমে ডেনভারে ওই বন্দুকধারীর গুলিতে দুই নারী ও এক পুরুষ নিহত হন। আহত হন এক পুরুষ। পরে বন্দুকধারী পাশের লেকউডে গিয়ে গুলি চালায়। সেখানে মারা যান একজন। তখনও পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে পুলিশের গুলিতে মারা যায় বন্দুকধারী। দুই পক্ষের গোলাগুলিতে এক পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। তবে তখনও হামলাকারীর পরিচয় জানা যায়নি।

সূত্র: বিবিসি


জনপ্রতি আবারও ৩০০ ডলার প্রদানের উদ্যোগ
সন্তানদের সহায়তায় কংগ্রেসে আপোস

জনপ্রতি আবারও ৩০০ ডলার প্রদানের উদ্যোগ

ডেমোক্র্যাটরা নতুনভাবে সন্তান প্রতি ৩০০ ডলার প্রদানের উদ্যোগ নিচ্ছে। এই কর্মসূচির অন্যতম বিরোধিতাকারী দলীয় সিনেটর জো ম্যানচিনের সাথে আপোষ রফার পথ খোঁজা হচ্ছে। তারা মনে করেন, এটি মধ্যবিত্ত ও নি¤œ মধ্যবিত্ত আমেরিকান পরিবারে সবচেয়ে জনপ্রিয় কর্মসূচি। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে তা বন্ধ হয়ে গেছে। অনেক আমেরিকান পরিবার এই চেকের ওপর ছিল নির্ভরশীল্ তাদেও হাত খরচ ও মাসিক গ্রোসারীর যোগান হতো এ অর্থ থেকে। বিল্ড ব্যাক ব্যাটার ১.৮ ট্রিলিয়ন ডলারের বিলে এ কর্মসূচি আরও ১ বছরের জন্য বাড়ানোর প্রস্তাব ছিল। কিন্তু ডেমোক্র্যাট দলীয় ভারজেনিয়ার সিনেটর  ম্যানচিন ও আরিজোনার সিনেটর সিনেমার নেতিবাচক অবস্থানের কারনে তা মৃতপ্রায়। হাউজে বিলটি পাস হবার পরও তাদের জন্যই সিনেটে এখনও ঝুলে আছে।

শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫২

সাবওয়েতে অপরাধ বেড়েছে
বি এবং জি ট্রেন চালু

সাবওয়েতে অপরাধ বেড়েছে

আবার চালু হলো বি ও জি ট্রেইন। ওমিক্রন করোনা ও এমটিএ স্টাফ স্বল্পতায় গেল বছর বি,জি এবং ডব্লিউ ট্রেন সার্ভিস স্থগিত করা হয়েছিল। ডব্লিউ ট্রেন এখনও চালু না হলেও গত বুধবার ১৯ জানুয়ারি যাত্রী সেবা নিয়ে ট্রেন ট্রাকে ফিরে এসেছে বি ও জি সাবওয়ে। এ ছাড়া এমটিএ কর্তৃপক্ষ সিটির ব্যস্ত সময়ে ৬, ৭ ও এ ট্রেনের এক্সপ্রেস সার্ভিস আবার পুর্নবহাল করেছে। করোনার কারনে তা এতদিন বন্ধ ছিল। এখনও এমটিএ এর শতকরা ১৪ ভাগ কর্মচারি করোনায় ছুটিতে রয়েছেন।

শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৪৪

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী মুসলিম ফেডারেল বিচারক

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী মুসলিম ফেডারেল বিচারক

বুধবার হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রথম মুসলিম নারী এবং দ্বিতীয় মুসলিম হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালতের বিচারক হিসেবে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত আমেরিকান নাগরিক আইনজীবী নুসরাত জাহান চৌধুরীকে মনোনীত করেছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।  আল জাজিরা

এখন মার্কিন সিনেট অনুমোদন দিলেই, তিনি নিউইয়র্কের একটি ফেডারেল জেলা আদালতে দায়িত্ব পালন করবেন।

নুসরাত চৌধুরী বর্তমানে নাগরিক অধিকার সমর্থনকারী দল আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নের (এসিএলইউ)  লিগ্যাল ডিরেক্টর হিসাবে কর্মরত আছেন। এর আগে তিনি নিউইয়র্কে এসিএলইউ-এর জাতিগত বিচার কর্মসূচির উপ-পরিচালকসহ বিভিন্ন সংগঠনে কাজ করেছেন।

 উল্লেখ্য, গত বছর জুনে একমাত্র মুসলিম হিসেবে নিউ জার্সির ফেডারেল বেঞ্চে বিচারক  হিসেবে নিয়োগ পান পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত জাহিদ কুরাইশি।

জাহিদ ২০১৯ সালে নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যে ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর তিনি নিউ জার্সির ফেডারেল বেঞ্চে বিচারক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন। নিউ জার্সি থেকে সে বছর প্রথম কোনো এশীয় বংশোদ্ভূত ব্যক্তি ফেডারেল কোর্টের বিচারক হয়েছিলো। সিনেটে অনুমোদন পেলে, এই তালিকায় দ্বিতীয় এশীয় হিসেবে নাম লেখাবেন নুসরাত জাহান চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:১০

বাংলাদেশকে আরো ৯৬ লাখ ডোজ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশকে আরো ৯৬ লাখ ডোজ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশকে ফাইজারের আরো ৯৬ লাখ ডোজ টিকা অনুদান হিসেবে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যা বাংলাদেশের জনগণের জন্য আমেরিকান জনগণের উপহার। এই অনুদানের ফলে বাংলাদেশকে অনুদান দেওয়া যুক্তরাষ্ট্রের মোট টিকা ডোজের পরিমাণ দুই কোটি ৮০ লাখ ছাড়াল।

আজ শনিবার মার্কিন দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এ বিষয়ে রাষ্ট্রদূত মিলার বলেন, 'বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে গত তিন বছরে করোনা মোকাবেলায় আমরা একসাথে কাজ করতে পেরে যে গর্ব অন্য কোনো কিছুতে আমি সেটা খুঁজে পাই না। আমি আনন্দের সাথে জানাচ্ছি আমেরিকান জনগণ তাদের উদার ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে বাংলাদেশের জনগণের জন্য আরো ৯৬ লাখ টিকা ডোজ উপহার দিয়েছে।' ফলে এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে দুই কোটি ৮০ লাখ ডোজেরও বেশি টিকা বিনা মূল্যে প্রদান করেছে। আরো টিকা ডোজ আসার পথে রয়েছে।

তিনি বলেন, 'আমরা বাংলাদেশি স্বাস্থ্যসেবা দানকারীদের ও আমাদের অংশীদারদের অভিবাদন জানাই এবং তাদের সাথেই আছি। কারণ আমরা যৌথভাবে আমাদের উভয় মহান দেশের জনগণের সুস্বাস্থ্য ও উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

মিলার বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই ফাইজার টিকা অনুদান ২০২২ সালে বিশ্বব্যাপী শতকোটি টিকা ডোজ পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে কভিড-১৯ মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব দেওয়ার প্রতিশ্রুতির অংশ। টিকা অনুদান দেওয়া ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র মহামারি মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় কভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম প্রচারাভিযানে সহায়তা করার পাশাপাশি এই কার্যক্রমকে জোরদার করতে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে। যুক্তরাষ্ট্র টিকার সঠিক ব্যবস্থাপনা ও সঠিক পদ্ধতিতে টিকাদান বিষয়ে সাত হাজারের বেশি বাংলাদেশি স্বাস্থ্যসেবা দানকারীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র কভিডসংশ্লিষ্ট উন্নয়ন ও মানবিক সহায়তা হিসেবে ইউএসএআইডি, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর এবং যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের মাধ্যমে ১২১ মিলিয়ন ডলার বা ১,০৪০ কোটি টাকারও বেশি অনুদান দিয়েছে। এই সহায়তা মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে এবং কভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা পেতে সহায়তা করার পাশাপাশি রোগের পরীক্ষা করা ও মনিটরিংয়ের সামর্থ্য জোরদার করেছে, রোগী ব্যবস্থাপনা ও সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের উপায়গুলো শক্তিশালী করেছে এবং সরবরাহ ব্যবস্থা ও লজিস্টিক ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি উন্নত করেছে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা সম্মুখসারির কর্মীদের সুরক্ষিত করেছে এবং জনগণের মধ্যে সংক্রমণ থেকে নিজেদের আরো ভালোভাবে রক্ষা করা সংক্রান্ত জ্ঞান বাড়িয়েছে।

তিনি আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বব্যাপী কোভ্যাক্স প্রচেষ্টাকে সহায়তা করতে চার বিলিয়ন ডলার বা ৩৪ হাজার কোটি টাকা সহায়তা করেছে। যার মধ্যে আল্ট্রা-কোল্ড চেইন পদ্ধতিতে কভিড টিকা সংরক্ষণ, পরিবহন, নিরাপদ ব্যবস্থাপনা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বব্যাপী কভিড-১৯ টিকার ন্যায়সংগত প্রবেশগম্যতা তৈরিতে বিশ্বের বৃহত্তম দাতা দেশে পরিণত হয়েছে।

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৫৯

যুক্তরাষ্ট্রে কনসার্টে হামলা: নিহত ১, আহত ৬

যুক্তরাষ্ট্রে কনসার্টে হামলা: নিহত ১, আহত ৬

যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন রাজ্যের ইউজিনে একটি কনসার্ট চলাকালে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন একজন ও আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ছয়জন। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) এবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, কনসার্ট চলাকালে কনভেনশন হলের বাইরে একাধিক গুলি চালানোর শব্দ শোনা যায়। এ সময় লিল বিন ও জে ব্যাং পারফর্ম করছিলেন। পুলিশ ও অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

ইউজিন পুলিশ বিভাগের প্রধান ক্রিস স্কিনার শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গুলিবিদ্ধ ছয়জনের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তবে নির্বিচারে নাকি নির্দিষ্ট কাউকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে সে ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

স্কিনার বলেন, আমরা একজন সন্দেহভাজনকে খুঁজছি। চেহারা ঢাকা অবস্থায় ওই ব্যক্তি ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে পশ্চিম দিকে গেছে। এখানকার মানুষের জন্য বড় কোনো নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই। তবে হামলাকারী কাছে এখনো অস্ত্র থাকতে পারে যা খুবই বিপজ্জনক বলেও জানান তিনি।

কনভেনশন হলের বোর্ড চেয়ারম্যান জ্যাসি গুয়েরেনা ও অন্তর্বর্তী নির্বাহী পরিচালক দেব মাহের এক বিবৃতিতে জানান, আপনারা হয়তো কনসার্ট চলাকালে বাইরে গুলির শব্দ শুনেছেন। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য নেই আমাদের কাছে। কি উদ্দেশ্যে কারা গুলি চালিয়েছে তাও জানা যায়নি। আমরা বিষয়টি নিয়ে ভাবতেও চাই না।

যারা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন তাদের বিশেষ করে প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান গুয়েরেনা ও মাহের।

হলের জন্য এটা একটি নজিরবিহীন ঘটনা। পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত করছে। পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান তারা।

রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৩৩

সর্বোচ্চ ভোট পেলেন জাকির

সর্বোচ্চ ভোট পেলেন জাকির

জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন অব এনওয়াই (জেবিবিএ)-এর দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে রেকর্ড করলেন প্রিন্ট ফেয়ারের স্বত্ত্বাধিকারী আতিকুল ইসলাম জাকির। জেবিবিএ’র গত নির্বাচনেও একই পদে দাঁড়িয়ে জাকির সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন।
জেবিবিএ’র নির্বাচনে আতিকুল ইসলাম জাকির গিয়াস-তারেক পরিষদ থেকে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দাঁড়িয়ে পেয়েছেন ২৩১ ভোট। তার প্রতিদ্বন্দ্বী মো. দেলোয়ার হোসেন পেয়েছেন ১৩৩ ভোট।

শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৭

ভোটাধিকার রুখতে মামলা
নন সিটিজেনদের বিরুদ্ধে রিপাবলিকানরা

ভোটাধিকার রুখতে মামলা

নন সিটিজেন ইমিগ্র্যান্টদের ভোটাধিকার রুখতে মামলা করলো রিপাবলিকানরা। গত সোমবার স্ট্যাটেন আইল্যান্ড ব্যরো প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান দলের নেতা ভিটো ফসিলা রিচমন্ড কাউন্টি স্টেট সুপ্রীম কোর্টে এ মামলা দায়ের করেন। গত মাসে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল সিটিতে বসবসরত গ্রীন কার্ড ও ওয়ার্ক পারমিটধারী ইমিগ্র্যান্টদের স্থানীয় নির্বাচনে ভোটাধিকার দেবার লক্ষ্যে একটি আইন পাস করে। যাতে সিটিতে বসবাসকারি প্রায় ৮ লাখ অভিবাসীর ভোটাধিকার পাবার সম্ভাবনা উন্মোচিত হয়।

শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৫

যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র ধ্বংসের মুখে
৫৮ শতাংশ মার্কিনির মতামত

যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র ধ্বংসের মুখে

অসংখ্য বিষয়ে গভীর বিভাজন থাকা সত্ত্বেও মার্কিনিরা রাজনৈতিকভাবে একটি বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে। প্রায় ৬০ শতাংশ মনে করছেন ধ্বংসের মুখে পতিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র। কুইনিপিয়াক বিশ্ববিদ্যালয়ের পোলিং ইনস্টিটিউটের সাম্প্রতিক জরিপে এ শঙ্কার কথা বলা হয়েছে।

শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:২৯

ডিপোর্টেশনের মুখে আড়াই লাখ তরুণ
গ্রীনকার্ড ও কোটা জটিলতা

ডিপোর্টেশনের মুখে আড়াই লাখ তরুণ

গ্রীনকার্ড জটিলতায় দুই লাখ ৫০ হাজার তরুণ-তরুণী অবৈধ হয়ে পড়েছেন। তারা এখন ডিপোর্টেশনের মুখোমুখি। ২১ বছরে পা দেবার সাথে সাথে তাদের ভাগ্যে নেমে এসেছে ইমিগ্রেশনের খড়গনামা।

শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:২৭

চার দশকে সবচেয়ে বেশি মুদ্রাস্ফীতি যুক্তরাষ্ট্রে

চার দশকে সবচেয়ে বেশি মুদ্রাস্ফীতি যুক্তরাষ্ট্রে

চার দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রাস্ফীতি। বর্তমানে তা সাত শতাংশে ঠেকেছে বলে সতর্ক করেছে দেশটির সর্বোচ্চ ব্যাংক।

২০২১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রাস্ফীতি পাঁচ দশমিক পাঁচ শতাংশে পৌঁছেছিল। মূলত করোনার কারণেই অর্থনৈতিক সংকট তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছিল প্রশাসন।

জো বাইডেনের প্রশাসন জনগণকে জানিয়েছিলেন, অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য তারা সবরকম ব্যবস্থা নেবে। এই ব্যবস্থাপনার আলোকে শিগগিরই মার্কিন অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে বলে জানানো হয়েছিলো।

বস্তুত, বাইডেন অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য বেশ কিছু পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছিলেন। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, কোনো কিছুতেই কোনো লাভ হয়নি। অর্থনীতি আরো সঙ্কটের মুখে পড়েছে। যার জেরে এই বছরের শুরুতেই মুদ্রাস্ফীতি সাত শতাংশ গিয়ে ঠেকেছে। যা গত চার দশকের মধ্যে কখনো ঘটেনি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ১৯৮২ সালের জুন মাসে শেষবার এই পরিমাণ মুদ্রাস্ফীতি দেখেছিল যুক্তরাষ্ট্র। বস্তুত, গত বছরের পাঁচ দশমিক পাঁচ শতাংশ মুদ্রাস্ফীতিও ঐতিহাসিক ঘটনা ছিল। ১৯৯১ সালে শেষবার ওই পরিমাণ মুদ্রাস্ফীতি হয়েছিল।

মুদ্রাস্ফীতির জেরে বাজার দর অনেক বেড়ে গেছে। বাড়ি ভাড়া থেকে শুরু করে সেকেন্ডহ্যান্ড গাড়ি, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস থেকে কাঁচা বাজার-- সব কিছুর দামই ঊর্ধ্বমুখী। হিসেব বলছে, গত কিছুদিনে বাড়িভাড়া বেড়েছে চার দশমিক এক শতাংশ। খাবারের দাম বেড়েছে ছয় দশমিক তিন শতাংশ। পুরনো গাড়ির দাম বেড়েছে ৩৭ দশমিক তিন শতাংশ। এছাড়াও জামাকাপড়, জুতো, ওষুধ সব কিছুরই দাম বেড়েছে এবং ক্রমশ বেড়েই চলেছে।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন অবশ্য বুধবারও মার্কিন জনগণকে আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এখনই মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। বিশ্বজুড়ে করোনা প্রকোপের জন্যই এমনটা ঘটেছে। অর্থনীতি যাতে ঘুরে দাঁড়াতে পারে, তার জন্য সরকার সবরকম ব্যবস্থা নিচ্ছে। ফলে ভয় পাওয়ার কারণ নেই। শিগগিরই এই পরিস্থিতি থেকে সাধারণ মানুষ মুক্তি পাবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্কিন নাগরিকদের কাছে এখন মুদ্রাস্ফীতি সবচেয়ে বড় আলোচনার বিষয়। করোনার চেয়েও এ বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে বেশি। সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত। বস্তুত, সর্বোচ্চ মার্কিন ব্যাংকও মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে। দ্রুত এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন বলেও সরকারকে তারা জানিয়েছে।

সূত্র : ডয়চে ভেলে

বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৪০

হাসপাতালে ভর্তি কোভিড রোগীর  সংখ্যা বেড়েছে ৩৩ শতাংশ

হাসপাতালে ভর্তি কোভিড রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৩৩ শতাংশ

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের প্রধান বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত সপ্তাহ থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা প্রায় ৩৩ শতাংশ বেড়েছে। পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ৪০ শতাংশ। আল জাজিরা

 সামনে আরো বেশি ঝুঁকি এড়াতে মার্কিন সরকার কোভিড চিকিৎসায় ব্যবহৃত অ্যান্টিবডি ককটেইল ইভুশেল্ড ওষুধের অতিরিক্ত ৫ লক্ষ ডোজ মজুদ করবে বলে জানিয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। অতিরিক্ত ডোজগুলো এই বছর মার্চে মাস নাগাদ সরবরাহ করা হবে বলে মার্কিন সরকার নিশ্চিত করেছে। রয়টার্স

গেলো ডিসেম্বরে ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) অ্যাস্ট্রাজেনেকার ল্যাবে তৈরী এই বিশেষ অ্যান্টিবডি ওষুধটির অনুমোদন দেয়। যেসব মানুষ এখনো করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি এবং সাম্প্রতিক সময়ে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন এমন ব্যক্তিদের সংস্পর্শে যাননি, শুধু সেসব প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি এবং কিশোরদের জন্য ওষুধটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৩৫

ওমিক্রন `দাবানলে` আমেরিকার সবাই আক্রান্ত হতে পারে: ফাউসি

ওমিক্রন `দাবানলে` আমেরিকার সবাই আক্রান্ত হতে পারে: ফাউসি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি বলেছেন, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন দাবানলের মতো আমেরিকার ছড়িয়ে পড়তে পাড়ে। আর এতে সবাই আক্রান্ত হতে পারে।

আমেরিকার ওমিক্রন পরিস্থিতি নিয়ে সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট জে স্টিফেন মরিসনের সঙ্গে কথা বলেছেন ফাউসি।খবর সিএনএনের।

ফাউসি তাকে আরও বলেন, অমিক্রনের সংক্রমণক্ষমতা অস্বাভাবিক। শেষমেশ হয়তো এটি সবার মধ্যে ছড়িয়ে পড়বে।

যারা টিকা নিয়েছেন, বুস্টার ডোজ নিয়েছেন, তারাও এর সংস্পর্শে আসতে পারেন। তাদের মধ্যে অনেকে আক্রান্ত হতে পারেন।

তবে কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া টিকা নেওয়া যারা আক্রান্ত হবেন, তাদের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কিংবা মারা যাওয়ার আশঙ্কা কম।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি দেশটির সরকারের প্রত্যাশা অনুযায়ী এগোয়নি। দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে।

টিকা কর্মসূচি শুরুর পর বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে সাপ্তাহিক পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছিল।

কিন্তু এরপরও দেশটির সাড়ে ছয় কোটি মানুষ এখনো টিকা নেননি। টিকা নিতে সক্ষম প্রতি পাঁচজনে একজন এখনও টিকা নেননি।

বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৩২

যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডের দৈনিক সংক্রমণ ও হাসপাতালে ভর্তির রেকর্ড

যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডের দৈনিক সংক্রমণ ও হাসপাতালে ভর্তির রেকর্ড

যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ১৩ লাখ ৫০ হাজার মানুষের কোভিড শনাক্ত হয়েছে। এটিই মহামারি শুরু হওয়ার পর দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এছাড়া বিশ্বের যে কোনো দেশের জন্যেই একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড এটি। যুক্তরাষ্ট্রের ওই ভয়াবহ সংক্রমণের জন্য দায়ী করা হচ্ছে কোভিডের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টকে। এটি বজ্রের গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বজুড়ে এবং শীগগিরই এটির থেমে যাওয়ার কোনো ইঙ্গিত নেই।
বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে এর আগে গত ৩ জানুয়ারি একদিনে রেকর্ড হওয়া কেসের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়েছিল। দেশটির অনেক প্রদেশই রোববার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রিপোর্ট প্রকাশ করে না। সেগুলো একসঙ্গে সোমবারের সঙ্গে যুক্ত করা হয়।
এতেই সোমবারে এত বেশি কেস রেকর্ড হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে গত দুই সপ্তাহ ধরেই দেশটিতে গড়ে প্রতিদিন ৭ লাখের বেশি মানুষ কোভিডে সংক্রমিত হয়েছে।
এদিকে শুধু সংক্রমনই নয়, হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রেও রেকর্ড হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। গত তিন সপ্তাহে কোভিড আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা দুইগুন বেড়েছে সেখানে। সোমবার দেশটিতে ১ লাখ ৩৬ হাজার ৬০৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হন কোভিড জটিলটা নিয়ে। এর আগে গত বছরের জানুয়ারিতে একদিনে ১ লাখ ৩২ হাজার ৫১ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। যদিও ওমিক্রনকে তুলনামূলক দুর্বল উপসর্গের ভ্যারিয়েন্ট মনে করা হচ্ছে, তারপরেও পরিস্থিতি ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছেন যে, স্বাস্থ্য সেবা যে কোনো সময় বিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে।

বুধবার, ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:১৫

মার্কিন আদালত ট্রাম্পের ছেলে মেয়েকে তলব

মার্কিন আদালত ট্রাম্পের ছেলে মেয়েকে তলব

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বড় ছেলে ট্রাম্প জুনিয়র ও তার মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্পকে তলব করেছেন নিউইয়র্কের একটি আদালত। নিউইয়র্ক আদালতের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিশিয়া জেমস ট্রাম্পের দুই সন্তানের ব্যবসায়ী সংক্রান্ত নথি চেয়ে তাদের তলব করেছেন।
এর আগেও তাদের সম্পদের তথ্য চেয়ে একাধিকবার তলব করেন আদালত। কিন্তু তারা হাজির হননি। এবারও ট্রাম্প জুনিয়র ও ইভাঙ্কা ট্রাম্প আদালতে হাজির হবেন না বলে জানিয়েছেন।

শনিবার, ৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৪৪

ট্রাম্প সমর্থকদের কড়া সমালোচনায় বাইডেন
ক্যাপিটল হিল হামলার এক বছর

ট্রাম্প সমর্থকদের কড়া সমালোচনায় বাইডেন

ক্যাপিটল হিলে হামলার প্রথম বর্ষপূর্তিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তিনি যে ঘোষণা দিয়েছিলেন তা ‘ঈশ্বরের সত্য’। গত বছর ৬ জানুয়ারি সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা ক্যাপিটল হিলে হামলা করে যা যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে মৌলিক পরিবর্তন ঘটিয়েছে। এ দেশের গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ নিয়ে বিশ্বব্যাপী উদ্বেগের সৃষ্টি করে।

শনিবার, ৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৪১

যুক্তরাষ্ট্রে স্কুল খোলা রাখার মত পর্যাপ্ত শিক্ষক নেই

যুক্তরাষ্ট্রে স্কুল খোলা রাখার মত পর্যাপ্ত শিক্ষক নেই

যুক্তরাষ্ট্রের ক্লিভল্যান্ড, ওহাইও, চার্লস কাউন্টি, ম্যারিল্যান্ড, রিডিং, পেনসিলভানিয়া, উইহাউকেন, নিউ জার্সি, শিকাগোসহ বিভিন্ন স্থানে সাড়ে ৪ হাজার স্কুলে তীব্র শিক্ষক সংকটের কারণে নতুন বছরের ক্লাস শুরু করা সম্ভব হচ্ছে না। ভক্স

 কিছু স্কুল খোলা সম্ভব হচ্ছে না ওমিক্রনের সংক্রমণে।

শিক্ষক ছাড়াও প্রয়োজনীয় কর্মচারি সংকটও রয়েছে এসব স্কুলে।

এ ধরনের সংকট রেস্টুরেন্ট, খুচরা বিক্রি বা শিপিংয়ে দেখা যায়নি। কোভিডের পূর্ব থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি স্কুলগুলোতে শিক্ষক ও কর্মচারি সংকট চলছে কয়েক দশক ধরে।

এছাড়া জরাজীর্ণ ভবন, উপচে পড়া শ্রেণীকক্ষ এবং কম বেতনের শিক্ষক এমন সমস্যাও রয়েছে।


ওয়াশিংটনের একটি হাইস্কুলের গণিত শিক্ষক সোবিয়া শেখ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যেভাবে পাবলিক স্কুল ব্যবস্থাপনার মূল্যায়ন ও অর্থায়ন করছে প্রকৃত পরিবর্তন ছাড়াই, তাতে সংকট আরো দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে।

বৃহস্পতিবার, ৬ জানুয়ারি ২০২২, ২০:০৮

যুক্তরাষ্ট্রে ৯০ বছরের সিংহাসন হারালো জেনারেল মোটরস

যুক্তরাষ্ট্রে ৯০ বছরের সিংহাসন হারালো জেনারেল মোটরস

সেই ১৯৩১ সালে ফোর্ডকে সরিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে শীর্ষ গাড়ি বিক্রেতার মুকুট মাথায় তুলেছিল জেনারেল মোটরস (জিএম)। এরপর বিগত নয় দশকে একবারের জন্যও সিংহাসন থেকে নড়ানো যায়নি তাদের। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির আঘাতে সেই দাপট আর অক্ষত থাকলো না। ২০২১ সালে জিএমকে হটিয়ে প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি গাড়ি বিক্রির রেকর্ড নিজেদের করে নিয়েছে জাপানি জায়ান্ট টয়োটা।

ব্লুমবার্গের খবর অনুসারে, গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে ২৩ লাখ গাড়ি বিক্রি করেছে টয়োটা। বিপরীতে জেনারেল মোটরসের গাড়ি বিক্রি হয়েছে ২২ লাখ ইউনিট। ২০২১ সালে দেশটিতে টয়োটার গাড়ি বিক্রি বেড়েছে ১০ শতাংশ। তবে বছরের চতুর্থ প্রান্তিকে তাদের বিক্রি কমে গিয়েছিল অন্তত ২৮ শতাংশ।

গত মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রে প্রধান কয়েকটি গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠান তাদের বার্ষিক ও চতুর্থ প্রান্তিকের বিক্রয় হিসাবে প্রকাশ করেছে। ফোর্ড মোটরের হিসাব বুধবার প্রকাশ হওয়ার কথা রয়েছে।

কক্স অটোমোটিভের হিসাবে, গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ১ কোটি ৪৯ লাখ গাড়ি বিক্রি হয়েছে, যা করোনাবিধ্বস্ত ২০২০ সালের চেয়ে ২ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি।

২০২০ সালের মতো ২০২১ সালও গাড়ি শিল্পের জন্য কঠিন ছিল। সরবরাহ ব্যবস্থায় বাধা, সেমিকন্ডাক্টরের ব্যাপক ঘাটতিতে চ্যালেঞ্জের মুখে ছিল উৎপাদকরা। তবে কিছু ক্ষেত্রে নতুন আশাও দেখা গেছে। যেমন- এ সময়ে ইলেক্ট্রিক গাড়ি বিক্রি ব্যাপক হারে বেড়েছে। অভাবনীয় ব্যবসা করেছে টেসলা।


শীর্ষস্থান হারিয়েছে জিএম
২০২১ সালে জেনারেল মোটরসের গাড়ি বিক্রি ১৩ শতাংশ কম হয়েছে, এর মধ্যে শুধু চতুর্থ প্রান্তিকেই বিক্রি কমেছে ৪৩ শতাংশ। তাদের জনপ্রিয় মডেল শেভি সিলভেরাডোর বিক্রি কমেছে ৩০ শতাংশের বেশি, জিএমসি সিয়েরার বিক্রি কম হয়েছে অন্তত ২১ শতাংশ। মার্কিন অটো জায়ান্ট তাদের এই দুর্ভোগের জন্য চিপ সংকটকে দায়ী করেছে।

টয়োটার মুকুটজয়
করোলা ও ক্যামরির মতো সেডান গাড়ি বিক্রি বাড়িয়ে ২০২১ সালে অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছে টয়োটা। এ দুটি গাড়ির বিক্রি বেড়েছে যথাক্রমে ৫ শতাংশ ও ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। অবশ্য একই বছর টয়োটার সবচেয়ে বেশি বিক্রিত গাড়ি র‌্যাভ৪-এর বিক্রি ৫ শতাংশ কম হয়েছে।


অগ্রযাত্রায় হোন্ডা ক্রসওভার
অনেকটা টয়োটার মতোই শেষভাগে খারাপ সময় গেলেও পুরো বছরে বিক্রি বেড়েছে জাপানের আরেক গাড়িনির্মাতা হোন্ডা মোটরের। ডিসেম্বরে তাদের বিক্রি ২৩ শতাংশ কমে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৮ ইউনিটে দাঁড়ালেও ২০২১ সালজুড়ে তাদের গাড়ি বিক্রি হয়েছে অন্তত ১৪ লাখ ৭০ হাজার, যা আগের বছরের তুলনায় ৮ দশমিক ৯ শতাংশ বেশি।

হোন্ডার গাড়ি বিক্রিতে শীর্ষে ছিল সিআর-ভি কম্প্যাক্ট ক্রসওভার। গত বছর এর বিক্রি বেড়েছে অন্তত ৮ দশমিক ৩ শতাংশ। ভালো করেছে সিভিক কম্প্যাক্ট এবং অ্যাকর্ডও। সেডানের বাজারে আধিপত্য ধরে রেখে রেখেছে তারা।

বড় লাভে হুন্দাই
২০২১ সালে বড় লাভ করা গাড়ি নির্মাতাদের মধ্যে অন্যতম দক্ষিণ কোরিয়ার হুন্দাই মোটর। গত বছর তাদের বিক্রি বেড়েছে অন্তত ১৯ শতাংশ। তবে অন্যদের মতো হুন্দাইয়েরও বছরের শেষভাগ খারাপ গেছে। শুধু ডিসেম্বরেই তাদের বিক্রি কমেছে ২৩ শতাংশ।

এরপরও ২০২১ সালে নিজেদের ইতিহাসে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি গাড়ি বিক্রির রেকর্ড গড়েছে হুন্দাই। এতে বড় অবদান তাদের বাজেটবান্ধব ভেন্যু সাবকম্প্যাক্ট ক্রসওভারের। ভালো ব্যবসা করেছে কনা সাবকম্প্যাক্ট এসইউভি এবং টাকসন কম্প্যাক্ট এসইউভিও।

বৃহস্পতিবার, ৬ জানুয়ারি ২০২২, ০২:২৫

একদিনে ১০ লক্ষাধিক করোনা শনাক্তের রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

একদিনে ১০ লক্ষাধিক করোনা শনাক্তের রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন যে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে, সেই আশঙ্কা আগেই করা হয়েছিল। কিন্তু এতটা পারে, তা জানা ছিল না। যুক্তরাষ্ট্রে কেবল সোমবারই ১০ লাখের বেশি মানুষের সংক্রমিত হওয়ার তথ্য দিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা, যা সব ধারণাকে ছাড়িয়ে গেছে।

ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, দুই বছর আগে বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর কোনো দেশে আর কখনও একদিনে এর অর্ধেক রোগীও শনাক্ত হয়নি।

সোমবার শনাক্ত রোগীর এই সংখ্যা এর আগের রেকর্ডের প্রায় দ্বিগুণ। চারদিন আগে পাঁচ লাখ ৯০ হাজার রোগী শনাক্তের সেই রেকর্ডও যুক্তরাষ্ট্রেই হয়েছিল।

এর আগে করোনাভাইরাসের ডেল্টা ধরনের দাপটের সময় একদিনে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা সর্বোচ্চ যে পর্যায়ে পৌঁছেছিল, সেটাও এর অর্ধেকের কম।

ডেল্টা ধরনের বিস্তারের মধ্যে গতবছর ৭ মে ভারতে একদিনে চার লাখ ১৪ হাজার রোগী শনাক্ত হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে এটাই এখন পর্যন্ত একদিনের সর্বোচ্চ।

ইউএসএ টুডে বলেছে, নববর্ষ আর সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে জমে থাকা কিছু নমুনার তথ্যও সোমবারের হিসাবের সঙ্গে যোগ হয়েছে, যা এই উল্লম্ফনে কিছুটা ভূমিকা রেখেছে।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য বলছে, গত এক সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি একশ নাগরিকের একজন কভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে কেবল সোমবারই রোগী বেড়েছে ১০ লাখ ৪২ হাজার।

করোনা সংক্রমণের এই সুনামি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের জীবনের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রকে বিপর্যস্ত করে ফেলছে বলেও জানিয়েছে ব্লুমবার্গ।

এদিকে ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, নিউইয়র্কে সোমবার কভিড নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন সাড়ে নয় হাজার মানুষ, যা আগের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।

বুধবার, ৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৪

ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সমন

ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সমন

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তাঁর ছেলে ট্রাম্প জুনিয়র এবং ইভাংকা ট্রাম্পকে তদন্তের অধীনে আনার জন্য সমন পাঠানো হয়েছে। ট্রাম্পের আইনজীবীরা এই সমন রদ করার চেষ্টা করছেন। নিউ ইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল সোমবার এই সমন জারি করেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিশিয়া জেমসের অফিস জানিয়েছে, ট্রাম্প ও তাঁর সন্তানদের মালিকানাধীন কম্পানির সম্পত্তির মূল্য নির্ধারণ সম্পর্কিত তদন্তের জন্য জবানবন্দি নিতে ও সংশ্লিষ্ট দলিলপত্র খতিয়ে দেখতে এই সমন জারি করা হয়েছে। সাবেক প্রেসিডেন্ট ও তাঁর কম্পানির সম্পত্তির মূল্য নির্ধারণে ইচ্ছাকৃতভাবে কম বা বেশি দেখানো হয়েছে, এ সন্দেহে ফৌজদারি তদন্ত চলছে।

দুই বছর ধরে অ্যাটর্নি জেনারেল জেমস এই তদন্ত চালিয়ে আসছেন। সম্পত্তির দাম বেশি দেখিয়ে ঋণ সুবিধা নেওয়া এবং কম দেখিয়ে আয়কর কম দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ট্রাম্পের কম্পানির বিরুদ্ধে।

এদিকে ট্রাম্পের আইনজীবীরা এই সমন রদ করার জন্য গত সোমবার আদালতে আবেদন করেছেন। তাঁরা এই সমনের ঘটনাকে 'সংবিধানবিরোধী' বলছেন। অ্যাটর্নি জেনারেল এই সমনের মাধ্যমে ট্রাম্পের জবানবন্দি নিয়ে সাক্ষ্য-প্রমাণ হিসেবে অন্য মামলায় ব্যবহার করবেন—এই আশঙ্কাও তাঁরা করছেন।

ট্রাম্পের আইনজীবীদের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় অ্যাটর্নি জেনারেল জেমস জানান, ট্রাম্প ও তাঁর পরিবার যতই বিখ্যাত হন না কেন, আর সবার মতোই তাঁদের নিয়ম অনুযায়ীই চলতে হবে। রদ করার আবেদন তদন্তকে দেরি করানোর একটি কৌশল মাত্র।
সূত্র : ডয়চে ভেলে

বুধবার, ৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৪৬

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মেয়র তৈয়বের শপথ

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মেয়র তৈয়বের শপথ

 যুক্তরাষ্ট্রে এই প্রথম একটি সিটির মেয়র হলেন বাংলাদেশি-আমেরিকান মাহবুবুল আলম তৈয়ব। পেনসিলভেনিয়া স্টেটের মিলবোর্ন সিটির মেয়র হিসেবে চট্টগ্রামের সন্তান মাহবুবুল আলম তৈয়ব ৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় অনাড়ম্বর এক অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন ছুঁয়ে শপথ গ্রহণ করেন। সেখানকার জজ হ্যারি ক্যাপারেডিয়া তাকে শপথ করান।

উল্লেখ্য, ডেমোক্রেটিক পার্টির এই নেতা আগের দুই মেয়াদে এই সিটির কাউন্সিলম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ফিলাডেলফিয়া মেট্রোপলিটন এলাকায় অবস্থিত এই সিটি কাউন্সিলে মোশারফ হোসেন নামক আরেক বাংলাদেশি আমেরিকান কাউন্সিলম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া ট্যাক্স কালেক্টর পদটিও জুটেছে মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেনের। শপথ অনুষ্ঠানে বিশিষ্টজনদের মধ্যে ছিলেন পেনসিলভেনিয়ার স্টেট সিনেটর টিম কিয়ারনি, স্টেট রিপ্রেজেনটেটিভ জিনা কারি প্রমুখ।
২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তৈয়ব বিজয়ী হয়েছেন। মেয়র তৈয়ব বলেন, এলাকাবাসীর কল্যাণে নিজেকে নিবেদিত রেখে রাজনীতির পথ-পরিক্রমা অতিক্রম করতে চাই। এক্ষেত্রে প্রবাসীরা সমর্থন দিয়ে যাবেন বলে আশা করছি।

একই নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলওম্যান শাহানা হানিফ। বিশ্বের রাজধানী খ্যাত নিউইয়র্ক সিটিতে এর আগে আর কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান জয়ী হতে পারেননি।

উল্লেখ্য, শাহানা হানিফ হলেন উত্তর আমেরিকাস্থ চট্টগ্রাম সমিতির সাবেক সভাপতি ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মোহাম্মদ হানিফের কন্যা।

বুধবার, ৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৩০

বাংলাদেশ থেকে ক্রিকেটার নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশ থেকে ক্রিকেটার নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশ থেকে কোচ ও ক্রিকেটার নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। নিজেদের ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্য অনেকদিন ধরে তারা বিভিন্ন দেশ থেকে ক্রিকেটার নিচ্ছে। সেই লক্ষ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে ইউএসএ ক্রিকেটের প্রতিনিধি হাসান তারেক ইতোমধ্যে আলোচনা করেছেন। ক্রিকেটার ও কোচের পাশাপাশি বাংলাদেশের কিউরেটরও নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। দুদেশের মধ্যে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট সিরিজ আয়োজনেও আগ্রহী তারা।

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:০৪

আবারও বন্দুকধারীর ঘামলা : নিহত ৫

আবারও বন্দুকধারীর ঘামলা : নিহত ৫

আবারও বন্দুকধারীর
ঘামলা : নিহত ৫
আজকাল রিপোর্ট
যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারে এক বন্দুকধারীর হামলায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন। পরে পুলিশের গুলিতে বন্দুকধারীও মারা যান। ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে ডেনভার পুলিশের প্রধান পল প্যাজেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘যে ধারাবাহিক সহিংস অপরাধ ঘটে গেল তার জন্য একজন ব্যক্তি দায়ী।’
বন্দুকধারীদের গুলিতে আহত ব্যক্তিদের অবস্থা সম্পর্কেও এখনও কিছু জানা যায়নি। প্যাজেন জানান, স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় বন্দুকধারী প্রথমে একজন নারীকে গুলি করে হত্যা এবং একজন পুরুষকে আহত করেন। তারপর তিনি গাড়ি চালিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। যেতে যেতে ইস্ট ডেনভারে চিজম্যান পার্কে আরেক ব্যক্তিকে গুলি করেন। তারপর ডেনভারের পশ্চিম দিকে গিয়ে আবার গুলি চালান। তবে তখন গুলি কারও গায়ে লাগেনি।
সেখান থেকে সরে যাওয়ার সময় তাকে অনুসরণরত পুলিশের ওপরও গুলি চালান ওই বন্দুকধারী। তারপর লেকউডে গিয়ে আরেক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেন।
লেকউডের পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, সেখানে পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির এক পর্যায়ে বন্দুকধারী গাড়ি থেকে নেমে দৌড়ে একটি হোটেলে ঢুকে এক কর্মীকে গুলি করেন। পুলিশ এলে এক পুলিশ কর্মকর্তাকেও গুলিতে আহত করেন এবং তারপর পুলিশের গুলিতে বন্দুকধারীও নিহত হন।
এর আগে গত মে মাসে কলোরাডো স্প্রিংসে এক পার্টিতে নিজের গার্লফ্রেন্ডসহ পাঁচ জনকে আহত করে আত্মহত্যা করেন ২৮ বছর বয়সী টিওডোরো ম্যাসিয়াস। ডেনভার থেকে ১১০ কিলোমিটার দূরের ওই ঘটনার আগে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার দূরের বৌল্ডারে ঘটেছিল আরও ভয়াবহ ঘটনা। মার্চ মাসের সেই ঘটনায় ২২ বছর বয়সী আহমাদ আল আলিউই একটি সুপার মার্কেটে ১০ জনকে গুলি করে হত্যা করেন।

 

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:০২

বকেয়া ১.৭ ট্রিলিয়ন ডলার
আগামী মে পর্যন্ত স্টুডেন্ট লোন পরিশোধ স্থগিত

বকেয়া ১.৭ ট্রিলিয়ন ডলার

আগামী মে পর্যন্ত স্টুডেন্ট লোন পরিশোধ করতে হবে না। গুণতে হবে না লোনের ওপর কোনো সুদ। আগামী ১ ফেব্রয়ারি থেকে ৪ কোটি ২০ লাখ আমেরিকানকে ডলার গুনতে হতো স্টুডেন্ট লোন পরিশেধের জন্য। বাইডেন প্রশাসন গত বুধবার এই ঘোষণা দেয়।

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৫৭

বিস্মিত পুলিশ কমিশনার ও ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি
কুইন্সে কোকেন ও হিরোইন ব্যবসার বিশাল নেটওয়ার্ক

বিস্মিত পুলিশ কমিশনার ও ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি

কুইন্সে কোকেইন ও হিরোইনের তথ্যে বিস্মিত পুলিশ কমিশনার ডেরমট শে। ড্রাগের এমন নেটওয়ার্কের কথা শুনে নড়েচড়ে ওঠেন তিনি। তাৎক্ষণিকভাবে ভয়াবহ নেটওয়ার্ক ধ্বংস করার জন্য আইনশৃংখলা বাহিনীকে নির্দেশ দেন।

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৫৩

যুক্তরাষ্ট্র উদীচীতে বিভক্তি
পাল্টাপাল্টি বিবৃতি সম্মেলন নিয়ে

যুক্তরাষ্ট্র উদীচীতে বিভক্তি

আগামী ৯ জানুয়ারী যুক্তরাষ্ট্র উদীচীর দ্বি-বার্ষিক যে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তাকে কেন্দ্র করে সংগঠনে বিভক্তি দেখা দিয়েছে। নতুন গঠিত আহ্বায়ক কমিটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আগামী ১০, ১১ ও ১২ই মার্চ বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী কেন্দ্রীয় সংসদের জাতীয় সম্মেলন। স্বাভাবিকভাবে জেলা শাখাগুলোকে বাধ্যতামূলকভাবে তার আগে নতুন সদস্য সংগ্রহ এবং সদস্য নবায়নের মাধ্যমে সম্মেলন সম্পন্ন করতে হয়। ৯ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্র উদীচীর সেই সম্মেলনই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে।

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:৫১

বাংলাদেশকে কী বার্তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?

বাংলাদেশকে কী বার্তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?

ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্কে ঝড়ো হাওয়া বইতে শুরু করেছে। ঘটনাসমূহ দৃশ্যপটে আসার পর অনেকে বিস্মিত হলেও এগুলো বিনামেঘে বজ্রপাতের মতো কোনও ঘটনা নয়। বাংলাদেশের ভেতরের পরিস্থিতির সঙ্গে সম্পর্কিত। বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে পরিস্থিতির উন্নতি না হলে ভবিষ্যতে যুক্তরাষ্ট্রের তরফে আরও ‘অ্যাকশন’ আসার আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না। যুক্তরাষ্ট্রের তরফে এগুলি সতর্কবার্তা বলে অনুমিত হচ্ছে।

শনিবার, ১ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৩

একদিনে রেকর্ড ১৬ লাখ শনাক্ত, শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

একদিনে রেকর্ড ১৬ লাখ শনাক্ত, শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বজুড়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড ১৯) সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েই চলেছে। বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ১৫ লাখ ৯৪ হাজার ৯৯৬ জন। সারাবিশ্বে একদিনে এটাই সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। এর আগে গত ২৩ ডিসেম্বর ১০ লক্ষাধিক শনাক্ত হয়েছিল। এর মধ্যে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই আক্রান্ত হয়েছে সাড়ে ৪ লক্ষাধিক। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সাত হাজার ৫৫ জন মারা গেছেন। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৯৮ হাজার ১০১ জন।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) সকালে বৈশ্বিক পর্যায়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার আপডেট দেওয়া ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮ কোটি ৪৮ লাখ ৭২ হাজার ৬৪১ জনে। আর বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৪ লাখ ৩৮ হাজার ৩০৬ জন।

২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এসময়ে দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৬৫ হাজার ৬৭০ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৭৭৭ জন। এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮৩ হাজার ১৮১ জন। এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ কোটি ৪৬ লাখ ৫৬ হাজার ৮৬৬ জন ও মারা গেছেন ৮ লাখ ৪৪ হাজার ২৭২ জন। দৈনিক সংক্রমণের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের পরই ফ্রান্সের অবস্থান। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হন ২ লাখ ৮ হাজার ৯৯ জন।

আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৪৭ জন। নতুন করে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন ৯ হাজার ১২৮ জন। মহামারি শুরুর পর এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ২২ লাখ ৬৩ হাজার ৮৩৪ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৬ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৪ জন।

আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৪৮ লাখ ১৪ হাজার ২৭১ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৮০ হাজার ৫৯২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ৫ হাজার ৩৮৫ জন।

তালিকায় এর পরের স্থানগুলোতে রয়েছে যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স, তুরস্ক, জার্মানি, ইরান, স্পেন, ইতালি ও আর্জেন্টিনা।

তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩২ নম্বরে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৮৪ হাজার ৫১৮ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ২৮ হাজার ৬৩ জন। দেশে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সেরে উঠেছেন মোট ১৫ লাখ ৪৮ হাজার ৪১৬ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান প্রদেশের হুবেই শহরে প্রথম করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়। কয়েক মাসের মধ্যেই ভাইরাসটি বিশ্বের অধিকাংশ দেশে ছড়িয়ে পড়ে। গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে।

বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০৪

সামরিক খাতে ৭৭০ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের বিলে স্বাক্ষর বাইডেনের

সামরিক খাতে ৭৭০ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের বিলে স্বাক্ষর বাইডেনের

২০২২ অর্থবছরে সামরিক খাতে ৭৭০ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করবে যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সোমবার এ সংক্রান্ত একটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন বলে বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছে হোয়াইট হাউস।

মার্কিন সামরিক ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে  ‘ন্যাশনাল ডিফেন্স অথরাইজেশন অ্যাক্ট, ২০২২’ বা এনডিএএ নামের এই বিল চলতি ডিসেম্বর মাসের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস ও উচ্চকক্ষ সিনেটে এই বিলটি উত্থাপন করা হয়। তারপর রিপাবলিকান পার্টি ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টি- উভয় দলের এমপিদের ব্যাপক সমর্থনসহ পাস হয় বিলটি।


জো বাইডেনের স্বাক্ষরের মাধ্যমে আইনে পরিণত হলো এই বিলটি। স্বাক্ষরের পর এক বিবৃতিতে বাইডেন বলেন, ‘দেশের সামরিক ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করার জন্য এই আইন অত্যন্ত উপযোগী। পাশাপাশি, নতুন এই আইনের মাধ্যমে মার্কিন সেনা সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি ন্যায়বিচার ও সরকারের যে অংশ মূলত সমালোচক, জাতীয় প্রতিরক্ষার প্রতি তাদের সমর্থনও নিশ্চিত হয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড়, সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী সামরিক বাহিনী হলো মার্কিন সামরিক বাহিনী। এই বাহিনীর বহুমাত্রিকতা ও বিস্তৃতির কারণে প্রতি বছর মার্কিন্ সামরিক খাতে সরকারি অর্থায়নের জন্য রীতিমত আইন প্রণয়ন করতে হয়। সেই আইনের নামই হলো ন্যাশনাল ডিফেন্স অথারাইজেশন অ্যাক্ট (এনডিএএ)।

গত ৬ দশক ধরে প্রতিবছরই জারি হচ্ছে এনডিএএ। চলতি বছরের আইনের নাম ‘এনডিএএ ২০২২’।

সদ্য শেষ হওয়া ২০২১ অর্থবছরের তুলনায় ২০২২ সালে সামরিক খাতে ৫ শতাংশ ব্যায় বাড়ানো হয়েছে। বর্ধিত এই ব্যায়ের অর্ধেকেরও বেশি খরচ হবে সেনাবহর সমৃদ্ধকরণ, যুদ্ধবিমান ও যুদ্ধজাহাজ ক্রয়বিষয়ক খাতে।

ADVERTISEMENT

এছাড়া নতুন এনডিএএ অনুযায়ী, ইউক্রেনকে ৩০০ মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিরক্ষা বিভাগকে ৪ বিলিয়ন এবং বাল্টিক অঞ্চলের প্রতিরক্ষা বিভাগকে ১৫০ মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

এছাড়া, চীনকে ‘উপযুক্ত শিক্ষা’ দেওয়ার জন্য তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য নতুন আইনের আওতায় তাইওয়ানকে ৭ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার দেওয়া হবে।

এছাড়া আফগানিস্তানে সদ্য শেষ হওয়া ২০ বছরের যুদ্ধ, যা ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে দীর্ঘ যুদ্ধ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে, সেটি পর্যালোচনা করার জন্য ১৬ সদস্যের একটি কমিশন গঠনের বিষয়েও উল্লেখ রয়েছে নতুন এনডিএএ ২০২২ আইনে।

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪৯

মার্কিন টিভি চ্যানেলে হিজাব পরে সংবাদ উপস্থাপন

মার্কিন টিভি চ্যানেলে হিজাব পরে সংবাদ উপস্থাপন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি টিভি চ্যানেলে ক্রিসমাসের দিন প্রথমবারের মতো এক হিজাবি নারীকে সংবাদ উপস্থাপন করতে দেখা গেছে। গত শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যের ডাব্লিউএফএসবি নিউজ চ্যানেলে হিজাব পরে সংবাদ উপস্থাপন করে আলোড়ন তৈরি করেন আয়াহ জালাল নামের এক নারী। 

সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:১৫

সঙ্গীসহ মেজর জিয়ার সন্ধানে পুরস্কার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

সঙ্গীসহ মেজর জিয়ার সন্ধানে পুরস্কার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

বাংলাদেশি বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যায় দণ্ডিত পলাতক মেজর (চাকরিচ্যুত) সৈয়দ জিয়াউল হক, আকরাম হোসেনসহ হামলার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের সন্ত্রাসবিরোধী পুরস্কার কর্মসূচি রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস গতকাল সোমবার মেজর জিয়া ও আকরামের সন্ধান চেয়ে ৫০ লাখ মার্কিন ডলার (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা হিসাব ধরে ৪২ কোটি ৫০ লাখ টাকা) পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

kalerkanthoরিওয়ার্ড ফর জাস্টিসের ঘোষণার প্রায় দুই ঘণ্টা পর যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্রের কার্যালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এরই মধ্যে অভিজিৎ হত্যাকারীদের তথ্যদাতাদের জন্য সর্বোচ্চ ৫০ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়ার বিষয়টি অনুমোদন করেছেন। পররাষ্ট্র দপ্তরের কূটনৈতিক নিরাপত্তা বিভাগ তার ‘রিওয়ার্ডস ফর জাস্টিসের’ মাধ্যমে এরই মধ্যে তথ্য আহ্বান করেছে।

অভিজিৎ হত্যার দায়ে জিয়া ও আকরামকে খুঁজছে বাংলাদেশও। ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গত ১৬ ফেব্রুয়ারি অভিজিৎ হত্যার দায়ে মেজর (চাকরিচ্যুত) সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে জিয়া, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির ও মো. আরাফাত রহমানকে মৃত্যুদণ্ড দেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন শফিউর রহমান ফারাবিকে। এঁরা আনসার আল ইসলামের সদস্য। ২০১৭ সালে বাংলাদেশ সরকার সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ করে।

পলাতক জিয়া ও আকরামকে এখনো ধরতে পারেনি বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী। তবে দণ্ড পাওয়া অন্য আসামিরা কারাগারে আছেন।

তবে রিওয়ার্ড ফর জাস্টিসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জঙ্গিগোষ্ঠী ভারতীয় উপমহাদেশের আল-কায়েদার (একিউআইএস) এক নেতা বলেছেন, হামলাকারীরা ধরা পড়েননি। অভিজিতের ওপর হামলাকারীরা এখনো বাংলাদেশে আছেন বলেই বিশ্বাস করা হয়—এমন তথ্যও রয়েছে মার্কিন বিজ্ঞপ্তিতে। বাংলাদেশের পুলিশও মেজর জিয়াকে ধরিয়ে দিতে পারলে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা করেছে।

তদন্ত চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র; সন্দেহে এবিটি, একিউআইএস :  বাংলাদেশ অভিজিৎ হত্যার বিচার করলেও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর বলেছে, অভিজিৎ হত্যার তদন্ত এখনো চলছে। গত রাতে পররাষ্ট্র দপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘এই ঘৃণ্য সন্ত্রাসী হামলার হোতাদের বিচারের আওতায় আনতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর জন্য সহায়ক হবে এমন তথ্য আমরা খুঁজছি।’

পররাষ্ট্র দপ্তর আরো জানায়, দুটি গোষ্ঠী ওই হামলার দায় স্বীকার করেছিল। আল-কায়েদায় উদ্বুদ্ধ বাংলাদেশভিত্তিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আনসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি) প্রথমে ওই হামলার দায় স্বীকার করে। এর পরপরই একিউআইএস নেতা অসীম ওমর দাবি করেন, একিউআইএস অনুসারীরাই অভিজিৎ রায় ও বন্যা আহমেদের ওপর হামলা করেছে।

বাংলাদেশে ট্রাইব্যুনালের রায়ে আনসার আল ইসলাম সদস্যদের সাজা : ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান গত ১৬ ফেব্রুয়ারি রায় ঘোষণার সময় পর্যবেক্ষণে বলেছিলেন, বাংলা একাডেমির বইমেলায় বিজ্ঞানমনস্ক লেখকদের আড্ডায় অংশ নিয়ে ফেরার পথে অভিজিৎ ও তাঁর স্ত্রী বন্যা আক্রমণের শিকার হন। নাস্তিকতার অভিযোগ এনে নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্যরা অর্থাৎ এই মামলার অভিযুক্তরাসহ মূল হামলাকারীরা সাংগঠনিকভাবে অভিজিৎ রায়কে নৃশংসভাবে হত্যা করে। স্বাধীনভাবে লেখালেখি ও মত প্রকাশের জন্য অভিজিৎ রায়কে নিজের জীবন দিয়ে মূল্য দিতে হয়। অভিজিৎ রায়কে হত্যার উদ্দেশ্য ছিল জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে রুদ্ধ এবং নিরুৎসাহ করা, যাতে ভবিষ্যতে কেউ স্বাধীনভাবে লেখালেখি ও মত প্রকাশ না করতে পারে।

যা বলছে রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস : রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস তার ফেসবুক ও টুইটার পেজে অভিজিৎ হত্যার দুই পরিকল্পনাকারীর সন্ধান ও পুরস্কার ঘোষণা দিয়ে গতকাল পোস্টারও প্রকাশ করেছে। ওই পোস্টারে হামলার শিকার অভিজিৎ ও বন্যার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে।

তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে জন্মগ্রহণকারী আমেরিকান নাগরিক অভিজিৎ রায় ও তাঁর স্ত্রী রাফিদা বন্যা আহমেদ ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বইমেলার জন্য ঢাকা সফরকালে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের চাপাতি হামলার শিকার হন। ওই ঘটনায় অভিজিৎ নিহত ও বন্যা গুরুতর আহত হন।

রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস বলেছে, লেখক, ব্লগার ও কর্মী হিসেবে অভিজিৎ মত প্রকাশের পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে বাংলাদেশে মৌলবাদকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। বাংলাদেশে ব্লগারদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে তিনি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিবাদ কর্মসূচি সমন্বয় করেছিলেন। এ ছাড়া সামাজিক নিপীড়নের বিষয়ে সমালোচক হিসেবেও তিনি সুপরিচিত ছিলেন।

রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস বলেছে, অভিজিৎ রায় তাঁর বিশ্বাস ও কাজের জন্য হামলার শিকার ও নিহত হন। বাংলাদেশি জঙ্গিগোষ্ঠী আনসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছিল। কাউকে ইসলামবিরোধী মনে করলে তাকে হত্যা করতে তরুণদের উদ্বুদ্ধ করে এবিটি। সংগঠনটিকে বাংলাদেশ সরকারও নিষিদ্ধ করেছে।

রিওয়ার্ড ফর জাস্টিসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ১ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর অভিবাসন ও নাগরিকত্ব আইনের ২১৯ ধারা অনুযায়ী একিউআইএসকে বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করে। এর আগে ওই বছরের ৩০ জুন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর ১৩২২৪ নম্বর নির্বাহী আদেশের আলোকে একিউআইএসকে ‘বিশেষভাবে চিহ্নিত বৈশ্বিক সন্ত্রাসী’ ঘোষণা করে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের অধীন এলাকায় একিউআইএসের সব সম্পদ বাজেয়াপ্ত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের একিউআইএসের সঙ্গে যোগাযোগ ও লেনদেন নিষিদ্ধ। একিউআইএসকে জ্ঞাতসারে সহযোগিতা করাও যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধ।

রিওয়ার্ড ফর জাস্টিসের প্রকাশিত পোস্টারে জিয়া, আকরাম হোসেন বা হামলার সঙ্গে জড়িত অন্য কারো সম্পর্কে কোনো তথ্য থাকলে, সিগন্যাল, টেলিগ্রাম বা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তা পাঠাতে বলা হয়েছে। এ জন্য দেওয়া ফোন নম্বর +১-২০২-৭০২-৭৮৪৩ এবং টুইটার হ্যান্ডেল — @RFJ_USA।

পোস্টারের নিচে বাঁ দিকের কোনায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের নাম ও প্রতীক, কূটনৈতিক নিরাপত্তা বিভাগ ও রিওয়ার্ডস ফর জাস্টিসের নাম রয়েছে।

রিওয়ার্ডস ফর জাস্টিস হচ্ছে সন্ত্রাস দমনের কাজে ভূমিকার জন্য পুরস্কার দেওয়ার লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র দপ্তরের একটি কর্মসূচি। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীদের বিচারের আওতায় আনা এবং যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ব্যক্তি বা সম্পত্তির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিহত করা। এ কর্মসূচির অধীনে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন কোনো তথ্যের জন্য কাউকে পুরস্কৃত করতে পারেন, যার ফলে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বা কর্মকাণ্ডের চেষ্টা অথবা এর পরিকল্পনা, অর্থায়ন বা সহায়তার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার বা দোষী সাব্যস্ত করা যায়। এ উদ্যোগের আওতায় এ পর্যন্ত ১০০-এরও বেশি লোককে ২০ কোটি ডলারেরও বেশি অর্থ পুরস্কার হিসেবে দিয়েছে তারা।

ন্যায়বিচার নিয়ে প্রশ্ন ছিল রাফিদা আহমেদের : অভিজিতের স্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত রাফিদা আহমেদ গত রাতে তাঁর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পররাষ্ট্র দপ্তর ও রিওয়ার্ড ফর জাস্টিসের বিজ্ঞপ্তিগুলো পোস্ট করেছেন। বাংলাদেশে ওই মামলার বিচার ও ন্যায়বিচার পাওয়া নিয়ে তিনি আগেই প্রশ্ন তুলেছিলেন। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি রায়ের পরপরই ফেসবুকে জানান, তিনি অভিজিৎ রায়ের ওপর হামলার প্রত্যক্ষদর্শী। তিনি নিজেও হামলার শিকার হয়েছেন। অথচ অভিজিৎ হত্যা মামলার তদন্তের সঙ্গে জড়িতদের কেউ তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেননি, বক্তব্যও নেননি।

রাফিদা আহমেদ জানান, অভিজিতের মতো লেখক, ব্লগারদের হত্যার পেছনে যারা টাকা খরচ করেছে, তাদের সম্পর্কে কোনো তথ্য পুলিশের তদন্তে উঠে আসেনি। অল্প কিছু চুনোপুঁটির বিচারকাজ সম্পাদন করে এবং জঙ্গিবাদের উত্থান ও শিকড় উপেক্ষা করে এ হত্যার ন্যায়বিচার হতে পারে না।

অভিজিৎ হত্যার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে ২০১৫ সালের মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের ছয়জন কংগ্রেসম্যান তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিকে চিঠি লিখেছিলেন। তদন্তে সহযোগিতার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল তদন্ত সংস্থা এফবিআইকেও ঢাকায় পাঠানো হয়েছিল।

মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:০৬

সর্বশেষ
জনপ্রিয়