শুক্রবার   ০৭ অক্টোবর ২০২২   আশ্বিন ২২ ১৪২৯   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
চুক্তিতে বিয়ে করে ইউরোপে পাড়ি আইফোন ১৪ প্রোর ক্যামেরায় নতুন দুই সমস্যা পায়ের কিছু অংশ কাটা হলো গায়ক আকবরের ১৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ডলার নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে আবার বাড়লো স্বর্ণের দাম
২৮

এবার কোহলিদের নিষিদ্ধের দাবি পাকিস্তানের

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০১৯  

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪৫ জন ভারতীয় আধা সামরকি বাহিনী সিআরপিএফ সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনায় ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে এখন যুদ্ধ-যুদ্ধ অবস্থা। দু’দেশের সীমান্তে এখনও চলছে গোলা বিনিময়। দু’দেশেই হচ্ছে বিমান হামলা। এমনকি এরই মধ্যে ভারতীয় বৈমিানিক অভিনন্দনকে গ্রেফতার করে তাকে ছেড়েও দিয়েছে পাকিস্তান।

ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক উত্তেজনাকে ক্রিকেটের মাঠে টেনে নিয়ে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর থেকেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভারতীয় ক্রিকেটাররা। এবার রাজনীতির এই বিষয়টাকে খোদ মাঠে টেনে এনেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

 

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ চলাকালীন সময়ে সেনাদের ক্যাপ পরে মাঠে নামেন বিরাট কোহলি এবং মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। পদক্ষেপটা যে সরাসরি পাকিস্তানের বিপক্ষে, সেটা বলাই বাহূল্য।

ক্রিকেট মাঠে এহেন রাজনীতি টেনে আনার বিরুদ্ধে খেপে উঠেছে পাকিস্তান। তারা ভারতের এই ঘটনার নিন্দা জানায়নি শুধু, উল্টো আইসিসির কাছে দেশটির ক্রিকেটকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েফে পাকিস্তানিরা।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে পাকিস্তানের পরারষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মোহাম্মদ কোরেশি বলেন, ‘আইসিরস উচিৎ এ ঘটনায় ভারতের বিপক্ষে একটি সুয়োমোটো নোটিস জারি করা।’

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সময় জানিয়েছেন, কাশ্মীর হামলা এবং এর পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে দারুণ চাপের মধ্যে রয়েছে ভারত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সামনেই নির্বাচন। এই নির্বাচনের বৈতরণী পার হওয়ার জন্য এখন সম্ভাব্য সবগুলো সেক্টরকেই ব্যবহার করছেন তিনি। যাতে জাতীয় নির্বাচনের ফল তার নিজের দিকে নিয়ে আসতে পারে।

একই সঙ্গে পাকিস্তানের ফেডারেল ইনফরমেশন মিনিস্টার ফওয়াদ চৌধুরী দাবি জানিয়েছেন, আইসিসি থেকে ভারতকে নিষিদ্ধ করার। তিনি বলেন, ‘আইসিসির উচিৎ এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেট দলকে নিষিদ্ধ করা। এবং একই সঙ্গে তাদেরকে জানিয়ে দেয়া উচিৎ যে, ভারতীয় দল কোনোভাবেই আন্তর্জাতিক আইনের বাইরে নয়।’

সাপ্তাহিক আজকাল
সাপ্তাহিক আজকাল