সোমবার   ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   মাঘ ২৩ ১৪২৯   ১৫ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন লুলা যে কোনো দিন খুলবে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল শীতে কাঁপছে উত্তরাঞ্চল দেশে করোনার নতুন ধরন, সতর্কতা বিএনপির সব পদ থেকে বহিষ্কার আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া নৌকার প্রার্থীর পক্ষে মাঠে কাজ করবো: মাহিয়া মাহি মর্মান্তিক, মেয়েটিকে ১২ কিলোমিটার টেনে নিয়ে গেল ঘাতক গাড়ি! স্ট্যামফোর্ড-আশাসহ ৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বর্ষবরণে বায়ু-শব্দদূষণ জনস্বাস্থ্যে ধাক্কা কোনো ভুল মানুষকে পাশে রাখতে চাই না বাসস্থানের চরম সংকটে নিউইয়র্কবাসী ট্রাকসেল লাইনে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত একাকার! ছুটি ৬ মাসের বেশি হলে কুয়েতের ভিসা বাতিল ১০ হাজার বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত চুক্তিতে বিয়ে করে ইউরোপে পাড়ি আইফোন ১৪ প্রোর ক্যামেরায় নতুন দুই সমস্যা পায়ের কিছু অংশ কাটা হলো গায়ক আকবরের ১৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ডলার নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে আবার বাড়লো স্বর্ণের দাম
১০৬৪

নির্বাচনী  প্রচারণায় ধানের শীষের পাশে নেই বিএনপি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১ ডিসেম্বর ২০১৮  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনে জমিয়ত নেতা মনির হোসাইন কাশেমী ১০ ডিসেম্বর সোমবার ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন। এদিন আনুষ্ঠানিকভাবে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছ থেকে ওই প্রতীক নেন। কিন্তু প্রতীক বরাদ্দের সময় কাশেমীর পাশে ছিলেন না বিএনপির কোন নেতা।

বিএনপির নেতারা বলছেন, তাদের সঙ্গে কোন ধরনের যোগাযোগ হয়নি। কেউ ডাকেনি। সে কারণেই কেউ ডিসি কার্যালয়ে যায়নি। ১০ বছর পর যেখানে বিএনপি নির্বাচনে যাচ্ছে সেখানে ধানের শীষের পক্ষে জয়গানের কথা। উল্লাস উদ্দীপনায় সকলের মাঠে থাকার কথা। কিন্তু ধানের শীষের পাশে নেই বিএনপি।

এর আগে বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ধানের শীষের চূড়ান্ত চিঠিও জমা দিয়েছেন। ৯ ডিসেম্বর রোববার বিকেলে জেলা নির্বাচন অফিসে তিনি এই চিঠি জমা দেন। মনির হোসাইন কাশেমী বিএনপির নেতৃত্বে ২০ দলীয় জোটের মমোনীত প্রার্থী হলেও চিঠি জমা দেয়ার সময় তার সাথে বিএনপির কোন নেতাকর্মী ছিলেন না। বিএনপির নেতাদের অভিযোগ বিএনপির নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ না করলেও আওয়ামী লীগের নেতাদের দোয়া নিয়েই জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ঢুকেন মনির হোসাইন।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন সিকদার নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমাদের কাউকেই জানানো হয়নি। ধানের শীষের প্রার্থী হলেন মনির হোসাইন। এ প্রতীক কারো না এটা বিএনপির। কিন্তু সেই বিএনপির নেতাদের বাদ দিয়েই মনোনয়ন পত্র জমা দেন ও প্রতীক নেন মনির।

জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রথম থেকেই নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী শাহ আলমের লড়াই করার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে জোট ভিত্তিক আসনের ভাগাভাগি নিয়ে শুরু হয় নাটকীয়তা। গত ৭ ডিসেম্বর দুপুর থেকে চলা অভ্যন্তরীণ নাটকের  সমাপ্তি ঘটে শাহ আলমের সরে যাওয়ার মাধ্যমে। জোরালো লবিং করে এই আসনে প্রার্থীতা বাগিয়ে নিলো জনপ্রিয়তার তলানীতে থাকা জমিয়তে উলামায়ে বাংলাদেশ।

সাপ্তাহিক আজকাল
সাপ্তাহিক আজকাল
এই বিভাগের আরো খবর