ঢাকা, ২০২০-১১-২৮ | ১৪ অগ্রাহায়ণ,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

রিপাবলিকান হয়েও বাইডেনকে ভোট দিয়েছি গিয়াস আহমেদ

প্রকাশিত: ০৪:৪৫, ৭ নভেম্বর ২০২০  

 

আজকাল রিপোর্ট
বাংলাদেশি আমেরিকান ব্যবসায়ী ও রিপাবলিকান পার্টির নেতা গিয়াস আহমেদ এবার ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেনকে ভোট দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ফিলিস্তিনিদের অবজ্ঞা করে ইসরায়েলের সঙ্গে অসম চুক্তি, মুসলমানসহ অভিবাসীদের ব্যাপারে ঘৃণাত্মক মনোভাব, মুসলিম ব্যান, অভিবাসনের কর্মসূচিতে কঠোরতা এবং ওবামা কেয়ার নিষিদ্ধে তামাশা করতে থাকায় ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলেছি। এজন্য রেজিস্টার্ড রিপাবলিকান হওয়া সত্ত্বেও ভোট দিয়েছি ডেমোক্র্যাট জো বাইডেনকে।
গিয়াস আহমেদ এর আগেও ফ্লোর পরিবর্তন করে ডেমোক্র্যাটদের ভোট দিয়েছেন। তিনি বলেন, গত নির্বাচনেও হিলারি ক্লিনটনের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা টিমের সদস্য হিসেবে ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে কাজ করেছি। এবারও সব বাংলাদেশিকে উৎসাহিত করেছি ট্রাম্পকে ধরাশায়ী করতে। এক্ষেত্রে আমি জাতীয় স্বার্থ এবং অভিবাসীদের স্বার্থকে সব সময় প্রাধান্য দিয়ে আসছি। এটা আমার গণতান্ত্রিক অধিকার।
এ বছর অনেক বাংলাদেশি যেখানে রিপাবলিকান প্রার্থী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সমর্থন করেছেন সেখানে রিপাবলিকান হয়েও গিয়াস আহমেদের জো বাইডেনকে ভোট দেওয়ার ঘটনায় কমিউনিটিতে আলোচনার জন্ম দিয়েছে। অনেকেই তাকে সাধুবাদও জানিয়েছেন।
২০০২ সালে নিউইয়র্ক স্টেট সিনেট এবং ২০০৪ সালের নির্বাচনে নিউইয়র্ক স্টেট অ্যাসেম্বলিতে রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে লড়েন গিয়াস আহমেদ। জয়ী হতে না পারলেও উঠতি কমিউনিটিকে মার্কিন ধারায় জড়িত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন তিনি।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়