ঢাকা, ২০২০-০৮-১২ | ২৭ শ্রাবণ,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

করোনাকালে কর্মকাণ্ড প্রশংসিত

মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত: ০৩:০০, ২০ জুন ২০২০  



মনোয়ারুল ইসলাম
করোনা একটি অভিশাপের নাম। একটি মহামারির নাম। যা কিনা এতই ছোট যে দেখা যায় না, ধরা যায় না, সীমান্ত মানে না, ইমিগ্রেশন মানে না। বিশ্বের কে শক্তিশালী কিংবা কে দুর্বল তার ধার ধারে না। বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ ও শক্তিশালী রাষ্ট্রপ্রধান ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাদা বাড়িটিতেও ঢুকতে তোয়াক্কা করেনি কোভিড নাইনটিন। বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী সরকার প্রধান বৃটেনের বরিস জনসনকে প্রাক মৃত ঘরে ঢুকাতে দ্বিধা করেনি। রাশিয়ার পুটিনকে এখনও নাকানি চুবানি খাওয়াচ্ছে। ভারতের মোদিরতো ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। প্রিয় বাংলাদেশে আস্তানা গড়বার পাঁয়তারা করছে। তবে মনে হচ্ছে, সরকারের সাথে করোনা লুকোচুরি খেলা খেলছে।
প্রবাসে বিশেষ করে নিউইয়র্কে বাংলাদেশিরা গত ৩ মাস করোনা যুদ্ধে হিমশিম খেয়েছে। কমিউনিটি হারিয়েছে আড়াই শতাধিক বাংলাদেশি। হাজার হাজার মানুষ চাকরিহারা। ঘরে ঘরে স্বজন হারানোর আর্তনাদ। অসহায় চোখগুলো জ্যাকসন হাইটস, জামাইকা, এস্টোরিয়া, চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড ও ব্রংকসে এখনও হারানো আপনজনকে খুঁজে বেড়ায়। মানবতার সেবায় বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউইয়র্ক এর অবদান ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। হায়না করোনা এই সোসাইটির নেতা কামাল আহমেদ ও বাকেরকেও হত্যা করেছে। করোনাকালের এই দুঃসময়ে বাংলাদেশি কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন সংগঠন বসে থাকেনি। তারা পাশে ছিলেন অসহায় মানুষের। তাদের সাথেই কথা বলে এ প্রতিবেদন।
নিউইয়র্ক থেকে হটছে করোনা। আশা ও উল্লাসের দ্বারপ্রান্তে নিউইয়র্ক। সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে সেকেন্ডে ফেজ। স্বাভাবিকতার বাঁকেও বাংলাদেশি কমিউনিটি। আবারও জেগে উঠবার প্রত্যাশার হাতছানি।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান আজকালকে বলেন, করোনা ভাইরাস আর যেন বিস্তার না করতে পারে সে ব্যাপারে সবাইকে সর্তক থাকতে হবে। আগামীতে বাঁচার পথ বের করতে হবে। ‘মুজিববর্ষ’ চলছে। ২৩ জুন আওয়ামী লীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্র্ষিকী। আনুষ্ঠানিক কোন সভা সমাবেশও করতে পারছি না। এদিন জুম ভিডিওর মাধ্যমে আমরা দিবসটি পালন করবো। তা উৎসর্গ করবো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও করোনা শহীদদের জন্য। বাংলাদেশ ও প্রবাসের মানুষেরা এই দুঃসময় কাটিয়ে উঠুক করোনাকালে এ প্রত্যাশা করছি।
বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ বলেন, করোনাকালে বেঁচে আছি এটাই মিরাকল। আল্লাহ’র এটা রহমত। মানুষের মঙ্গলের জন্য বাকী জীবনটা কাটিয়ে দিতে চাই। এক্সটেন্ডেট জীবনটা আছে শুধু মানুষের কল্যাণের জন্য। অভিশপ্ত করোনায় কামাল ভাইসহ অনেক পরিচিত মুখ আমরা হারিয়েছি। সবার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করছি।
ফোবানার কনভেনর, নিউইয়র্ক ইন্সুরেন্স ব্রোকারেজ ও গোল্ডেন এজ হোম কেয়ারের প্রেসিডেন্ট শাহ নেওয়াজ আজকালকে বলেন, করোনা দূর্যোগকালে আমরা মানুষের পাশে ছিলাম। ফেবানা ও আমার ব্যক্তিগত তরফ থেকে হাজার হাজার ডলার অসহায় মানুষের মাঝে বিতরণ করেছি। আমি ও আমার দুই বন্ধু মিলেই সাহায্য করেছি ২ লাখ ডলারের বেশি। এ জন্য আল্লাহ’র কাছে শুকরিয়া। তিনি আমাদেরকে খেদমতের তৌফিক দিয়েছেন।
ফোবানার এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি ও বিএনপি নেতা কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম আজকালকে বলেন, ৩০ বছর যাবৎ প্রবাসে ও দেশে মানুষের সেবা দিয়ে আসছি। করোনা দুর্যোগকালে আমরাই প্রথম বাড়ি বাড়ি গিয়ে অভাবী মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেছি। বাংলাদেশেও গণস্বাস্থের তহবিলে আড়াই হাজার ডলার দিয়েছি। গত তিন মাস মানুষের পাশে দাঁড়াতে আমাদের দারুনভাবে সাহায্য করেছে মার্কস হোম কেয়ার। তাদের কাছে আমরা ঋণী।
কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট ও মূলধারার রাজনীতিক এম এন মজুমদার আজকালকে বলেন, করোনাকালের তিন মাস কমিউনিটির সেবায় দিনরাত কাজ করেছি। এখনও প্রবাসী প্রিয় বালাদেশিদের বলবো সতর্ক হয়ে চলাফেরা করুন। কাজে যোগ দিন। ২৩ জুনের ভোটে অংশ নিন। বাংলাদেশি প্রার্থীদের ভোট দিন।
যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট মিল্টন ভূঁইয়া আজকালকে বলেন, আমি মনে করি, করোনা মহামারিতে মানুষের মানবিকতার অনেক পরিবর্তন ঘটেছে। বদলে যাবার বার্তা আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। মানষের মূল্যবোধ অনেক বেড়েছে। উদার হয়েছে। করোনা মহামারিকালে গত দুটি মাস হাজার হাজার মানুষকে আমি হালাল খাবার সরবরাহের ব্যবস্থা করেছিলাম। এজন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া।
নিউইর্য়কে বাংলাদেশি কমিউনিটির লিডিং কেয়ার সার্ভিস ‘মার্কস হোম কেয়ার’ এর ব্যবস্থাপক আলমাস আলী আজকালকে বলেন, করোনাকালে আমাদের কোম্পানীর মিশন ও ভিশন ছিল অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো। আল্লাহর রহমতে আমরা সফল হয়েছি। কাগজপত্রবিহীন প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাশে যখন কেউ ছিল না, মার্কস হোম কেয়ার তখন দু’হাত খুলে তাদের সাহায্য করেছে। করোনাকালে আমরা শতশত প্রবাসী বাংলাদেশিকে অর্থ ও গ্রোসারি দিয়েছি। কভিড-১৯ টেস্টের আয়োজনও করেছিলাম জ্যাকসন হাইটস, জামাইকা ও ব্রকলিনে। ব্রঙ্কসেও টেস্ট করানোর উদ্যোগ আমরা নিচ্ছি।
বারী হোম কেয়ারের সিও ও কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট আসেফ বারী টুটুল আজকালকে বলেন, করোনা এখনও পুরোপুরি শেষ হয়নি। আবারও হানা দিতে পারে। তাই আমাদেরকে সজাগ ও সর্তক থাকতে হবে। করোনাকালে বারী হোম কেয়ার দাঁড়িয়েছিল কমিউনিটির পাশে। জনাব বারী আজকালকে বলেন, করোনায় শহীদ ৩০ জন বাংলাদেশির ফিউনারেলে বারী হোম কেয়ার সহায়তা দিয়েছে। সিটির বিভিন্ন এলাকায় আমরা অসহায়দের সাহায্য করেছি। এখন প্রয়োজন সিডিসি’র গাইড মেনে চলা।
জামাইকা ফ্রেন্ডস সোসাইটির সভাপতি ও কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট ফকরুল ইসলাম দেলোয়ার আজকালকে বলেন, করোনাকালে যে কাজটুকু আমরা করেছি এবং এখনও করছি তা সমাজের কাছে দায়বদ্ধতা থেকেই। আগামীতে যেন এই রোগ আমরা প্রতিরোধ করতে পারি তার জন্য কাজ করতে হবে। একই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা সৈয়দ আল আমিন রাসেল বলেন, আমি জামাইকা ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও বাংলাদেশ স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের হয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলাম। ১০০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেছি। ভবিষ্যতে যেন আর আমাদের মাঝে করোনা ফিরে না আসে তার জন্য মানুষের অ্যাওয়ারনেস বাড়াতে হবে। যেমন, সোশাল ডিসট্যান্স বজায় রাখা অত্যাবশ্যক।

 

কমিউনিটি সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়