ঢাকা, ২০২০-১০-২৬ | ১০ কার্তিক,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ

বিরোধে নতুন মাত্রা সিদ্দিকীর বহিষ্কার

প্রকাশিত: ০১:৫৫, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  



আজকাল রিপোর্ট
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক পদ থেকে মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিস্কারের কারণ হিসাবে তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনিকে নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ, মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া, বিভ্রান্তিকর, আদর্শবিরোধী বক্তব্য দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। বলা হয়েছে, একটি বিশেষ মহলের স্বাথ পূরণে তিনি উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে এই বক্তব্য দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে এই অভিয়োগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাডুত হওয়ায়, সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ৪৭ (ক) ধারা মোতাবেক তাকে কেন্দ্রের নির্দেশ অনুযায়ী তাকে বহিস্কার করা হয়েছে। এ বহিস্কারাদেশ ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ থেকে কার্যকর হবে।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ স্বাক্ষরিত এক পত্রে মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর এই বহিস্কারের কথা জানানো হয়েছে। মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীকে পাঠানো আওয়ামী লীগের ‘বহিস্কার নোটিশ’-এ বলা হয়েছে, ‘শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি একজন সফল রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, আইনজীবী, সাহিত্যিক, লেখক, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, মুজিব বাহিনীর প্রধান, দৈনিক বাংলার বানী ও সাপ্তাহিক সিনেমা পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা, বাংলাদেশ আওয়ামী যুব লীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, ৬০-৬৩ সালে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক, তদানিন্তন সময়ে স্বৈরাচারী পাকিস্তান সরকারের  শিক্ষা কমিশন সুপারিশ বাতিল করতে গিয়ে কারাবরণকারী। তাঁর এম এ পাশ করা ডিগ্রীও এই আন্দোলনের কারণে বাতিল করা হয়। পাকিস্তানের স্বৈরাচার সরকার বিরোধী প্রতিটি আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে অনেকবার তিনি কারাবরণ করেছেন। শহীদ শেখ মনির বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন সংক্ষেপে বিবৃত করা কারো পক্ষে সম্ভব নয়। এখানে উল্লেখ্য যে ৭৫ এর ১৫ আগষ্টের বঙ্গবন্ধু হত্যার পূর্বেই শহীদ শেখ মনিকে সস্ত্রিক হত্যা করা হয়েছিলো। এর অন্যতম কারণ, খুনীরা ভালো করেই জানত, বঙ্গবন্ধুর বিশ্বস্ত অনুসারী শেখ ফজলুল হক মনি বেঁচে থাকলে বাংলার মাটিতে খুনীদের স্থান হবে না।  
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী সম্প্রতি একটি জুম মিটিংয়ে এ বর্ণ্যাঢ্য রাজনীতিবিদ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্য এবং  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ফুফাতো ভাই, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র জনাব শেখ ফজলে নুর তাপস এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান জনাব শেখ ফজলে শামস পরশের পিতা, শেখ ফজলুল হক মনিকে নিয়ে মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর আপত্তিকর বক্তব্য দানের জন্য তার বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
এব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম জানান, সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলীকে বহিস্কার সম্পর্কিত চিঠি ও তথ্য এবং বহিষ্কার নোটিশের অনুলিপি কেন্দ্রীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সহ  অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে পাঠানো হয়েছে।
এই বহিষ্কারাদেশের প্রতিবাদ জানিয়েছেন মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী। তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ কমিটিকে বিলুপ্ত অভিহিত করে বলেছেন, কাউকে বহিষ্কার করার কোন এখতিয়ার এই বিলুপ্ত কমিটির নেই। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ স্বাক্ষরিত ও ফেসবুকে প্রচারিত আমার বিরুদ্ধে একটি বহিষ্কারাদেশ দেখে যারপরনাই বিস্মিত ও হতবাক হয়েছি।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ২০১৯ এর সেপ্টেম্বরে তার হোটেল স্যুটে অনেকের সামনে কে›ন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবাহান গোলাপকে ডেকে যুক্তরাষ্ট্র  আওয়ামী লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে ড. সিদ্দিকুর রহমানকে জানিয়ে দিতে বলেন। দু’দিন পর প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে আয়োজিত গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জননেত্রী শেখ হাসিনা নীজেই সভাপতিত্ব করেন এবং সিদ্দিকুর রহমান দর্শক সারিতে বসে থাকেন।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের বিলুপ্ত কমিটির পক্ষে কাউকে বহিষ্কার বা আবিষ্কার করার কোন এখতিয়ার নেই। এছাড়াও কমিটির কাউকেই দলের গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী অব্যাহতি দিতে হলে কার্যকরী কমিটির সভায় অনুমোদন নিয়ে নূন্যতম দু’সপ্তাহ সময় দিয়ে কারণ দর্শাও নোটিশ দিতে হয়। জবাবে সন্তুষ্ট না হলে যে কোন শাস্তির জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠিয়ে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে তা কার্যকরী কমিটির অনুমোদনের ও সিদ্ধান্তে জন্যে অপেক্ষা করতে হয়। উক্ত সময়ের মধ্যে কোনো সিদ্ধান্ত না হলে তা আপনাআপনি বাতিল হয়ে যায়। এটাই গঠনতন্ত্রের নিয়ম।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ পরিবার আয়োজিত ১৫ আগস্টের জাতীয় শোক দিবসের এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় দেয়া তার বক্তব্যেও বিকৃত ব্যখ্যা করা হচ্ছে এবং তার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ পরিবারের সাম্প্রতিক কাজকর্মে ঈর্ষান্বিত হয়ে বিলূপ্ত কমিটির কতিপয় নেতাকর্মী ও কতিপয় সুযোগ সন্ধানী চক্রান্তকারী মিথ্যাচার ও অপপ্রচার করে আমাকে ফাঁসানোর হীন প্রচেষ্টা করছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

 

কমিউনিটি সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়