ঢাকা, ২০২০-১১-২৮ | ১৪ অগ্রাহায়ণ,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

বাইডেন প্রশাসনের দৌড়ে চার বাংলাদেশি

প্রকাশিত: ০৪:১৯, ২১ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ০৪:৩৬, ২১ নভেম্বর ২০২০

জ্বালানী মন্ত্রী হিসেবে এগিয়ে আছেন ভারতীয় বাঙালি অধ্যাপক অরুণ মজুমদার

আজকাল রিপোর্ট
যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন জো বাইডেন। নতুন সরকারের প্রস্তুতি হিসেবে কেবিনেট সদস্যদের বিষয়টি এখন আলোচনায়। সর্বত্রই গুঞ্জন কে কে স্থান পাচ্ছেন বাইডেনের নতুন প্রশাসনে। এই আলোচনায় ইতোমধ্যেই স্থান পেয়েছে গুগলের সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বাঙালি অধ্যাপক অরুণ মজুমদার। যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমের খবরে আভাস দেয়া হয়েছে, এই ভারতীয় বাঙালি জ্বালানিমন্ত্রী হতে পারেন। কেবিনেট ও অন্যান্য বিভিন্ন পদে দৌঁড়ে অন্তত চারজন বাংলাদেশিও রয়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে। তারা হলেন, সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ওসমান সিদ্দিক, ওয়াশিংটনের সিয়াটলের অ্যাটর্নি তাহমিনা ওয়াটসন, মিশিগানের অ্যাটর্নি মৌসুমী এম. খান এবং ভার্জিনিয়ার তরুণ ডেমোক্র্যাটিক নেতা আনিকা রহমান। তবে তাদের কারোর বিষয়টিই নিশ্চিত নয়। জানা গেছে, এদের মধ্যে কেউ কেউ বাইডেন-কামালার ট্রানজিশন প্রশাসনে যোগদানের ইচ্ছাপোষণ করে লবিং শুরু করছেন।  
নিউইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্ট, দ্য স্ট্যানফোর্ড ডেইলি জানিয়েছে, বাইডেনের মন্ত্রিসভায় অরুণ মজুমদারের থাকার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, অরুণ মজুমদার এনার্জি বা জ্বালানিমন্ত্রী হতে পারেন।  
ডয়েচে ভেলে বলছে, বাংলাদেশ ও ভারতের বাইরে কোনো দেশে এখন কোনো বাঙালি মন্ত্রী নেই। যুক্তরাজ্যে লেবার পার্টি ভোটে জিতলে হয়ত শামি চক্রবর্তী মন্ত্রী হতে পারতেন। লেবার জেতেনি। ফলে তারও মন্ত্রী হওয়া হয়নি। এই অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রে অরুন যদি মন্ত্রী হতে পারেন, তা হলে তা অবশ্যই এক বঙ্গসন্তানের বড় কৃতিত্ব হিসাবে চিহ্নিত হবে। অপরদিকে, বাংলাদেশি কেউ বাইডেনের নতুন প্রশাসনে স্থান পেয়ে তাও হবে বাংলাদেশিদের কাছে গর্বের, অহঙ্কারের। উল্লেখ্য, ওবামা প্রশাসনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নীনা আহমেদ উপদেষ্টা হিসেবে ছিলেন।
অপরদিকে, ভারতীয় বাঙালি অরুণ মজুমদার যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের একটি ইউনিটের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। বাইডেনের অধীনে এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে যারা এগিয়ে রয়েছেন তিনি তাদের মধ্যে রয়েছেন।
মঙ্গলবার বাইডেনের ট্রানজিশন টিমের জ্বালানি বিষয়ক প্রধান হিসেবে আমেরিকা প্রবাসী ভারতীয়-বাঙালি অরুণ মজুমদারের নাম প্রকাশ করা হয়েছে; সম্ভাব্য জ্বালানিমন্ত্রীর সংক্ষিপ্ত তালিকায়ও তার নাম রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি জানিয়েছে।
ওয়াশিংটন পোস্টের খবর অনুযায়ী, তিনি দুই দলের কাছেই জনপ্রিয়। তাই তিনি এনার্জিমন্ত্রী হলে সিনেটের অনুমোদন পাওয়া সহজ হবে। তাই তিনি এনার্জিমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। তবে সম্ভাব্য এনার্জিমন্ত্রী হিসাবে আরো তিনজনের নাম নিয়েও আলোচনা হচ্ছে।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়