ঢাকা, ২০২০-০৮-১১ | ২৬ শ্রাবণ,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

২ হাজার শিক্ষার্থী সুযোগ পাবেন

বাংলাদেশে পিপলএনটেকের ২ কোটি টাকার বৃত্তি ঘোষণা

প্রকাশিত: ০৬:২৫, ৩১ জুলাই ২০২০  



আজকাল রিপোর্ট
বাংলাদেশে আইটি শিক্ষার্থীদের জন্য ২ কোটি টাকার বিশেষ কোভিড রিকোভারী বৃত্তি ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের সর্ববৃহৎ বাংলাদেশি আইটি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট পিপলএনটেক। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ইঞ্জিনিয়ার আবুবকর হানিপ এনআরবি কানেক্ট টিভি’র এক আলোচনায় এই বৃত্তির ঘোষণা দেন। এই বৃত্তির মূল বিষয়বস্তু হলো, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় পিপলএনটেকের গ্রীনরোডে অবস্থিত ক্যাম্পাসের মাধ্যেমে অন্তত ২০০০ শিক্ষার্থীর প্রযুক্তি দক্ষতা বা আইটি স্কিল ডেভেলাপ করা। আর প্রশিক্ষণ শেষে যেন তারা চাকুরী বাজারে প্রবেশ করতে পারে সেই বিশেষ সহায়তাও প্রদান করা, যার মাধ্যমে মাসে ২ থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আয়ের সুযোগ তৈরী হবে অনেক শিক্ষার্থীর।
একশ ভাগ স্কলারশীপের সুবর্ণ সুযোগটি পেতে নিচে প্রদত্ত এই লিঙ্কে রেজিস্ট্রেশন করার অনুরোধ করা হয়েছেÑ যঃঃঢ়ং://ভড়ৎসং.মষব/ধগণঐশইমঊৎটজ৩ই২ঔঝ৭.
উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত, বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য এক মিলিয়ন ডলার সমমানের স্কলারশিপ প্রদান করা হয়, যার অধীনে ভার্জিনিয়া, নিউইয়র্ক সহ পিপলএনটেক-এর বিভিন্ন ক্যাম্পাস থেকে ৩৮১ জন শিক্ষার্থী প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এছাড়াও ২০১৯ সালে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে এম আব্দুল মোমেন এর নামে তিন লাখ ডলার সমপরিমাণ অর্থের বৃত্তি প্রদান করে পিপলএনটেক। ওইসব শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকেই প্রশিক্ষণ শেষ করে এখন যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারে চাকুরী করে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে সমর্থ হয়েছেন।
পিপলএনটেক যুক্তরাষ্ট্রে বিগত ১৫ বছরে প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থীকে আইটি চাকুরী পাইয়ে দিতে সহায়তা করেছে, যাদের সবাই আমেরিকার নাগরিক অথবা গ্রিনকার্ডধারী। বার্ষিক ৮০ হাজার থেকে দুই লাখ ২০ হাজার ডলার পর্যন্ত আয়ও করছেন পিপলএনটেকের যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষার্থীরা।
বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন ঘোষিত এককালীন বৃত্তির বাইরেও, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য নিয়মিত বৃত্তি প্রদান করে থাকে পিপলএনটেক। প্রতিষ্ঠানটির ফেইসবুক পেইজে বাংলাদেশের অনেক শিক্ষার্থী প্রতিনিয়ত বাংলাদেশে ও অনুরূপ বৃত্তি প্রদানের জন্য অনবরত অনুরোধ লিখতে থাকায়, বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য এই ২ কোটি টাকার বিশেষ বৃত্তি ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার আবুবকর হানিপ।
তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ বা করোনা ভাইরাস আমাদের সবার জীবনকেই বিশেষভাবে নাড়া দিচ্ছে। চাকুরী বাজারে এর প্রভাব হতে পারে দীর্ঘ মেয়াদী। যুক্তরাষ্ট্রের অভিজ্ঞতায় দেখছি, অনেক প্রতিষ্ঠান ফিজিক্যাল যোগাযোগ কমিয়ে দিয়ে অনেক কাজকর্ম রিমোর্ট ওয়ার্কে রূপান্তিরত করছে। বাংলাদেশে করোনার কারণে অনেক তরুণ-তরুণী এরই মধ্যে চাকুরী হারিয়েছেন।’
ইঞ্জিনিয়ার হানিপ আরও বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতি বছর যে হাজার হাজার নতুন ডিগ্রিধারী বের হচ্ছেন তাদের হতাশাও বাড়ছে, কিন্তু ভবিষ্যতে সেটা আরো বহুগুনে বেড়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছি। কেননা, শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি তরুণদের চাকুরীর নিশ্চয়তা দিতে পারছে না। সে কারণে, আমরা মনে করছি, বাড়তি প্রযুক্তি দক্ষতা যদি আমাদের ছেলে মেয়েদের থাকে তাহলে চাকুরী বাজারে তার পয়েন্ট বা পালক যুক্ত করবে। সে প্রতিযোগীদের মধ্যে বিশেষভাবে এগিয়ে থাকতে পারে। সেই এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে আপাতত আমরা ২০০০ শিক্ষার্থীর জন্য বিশেষ এই স্কলারশীপ ঘোষণা করেছি।’
মেধাবী শিক্ষার্থীরা এর পরিপূর্ণ সুযোগ নিলেই পিপলএনটেক-এর উদ্যোগ পরিপূর্ণতা পাবে বলে মনে করেন আবুবকর হানিপ।
পিপলএনটেক এর মূল ক্যাম্পাসটি যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার টাইসন্স কর্নারে অবস্থিত। নিউইয়র্ক ক্যাম্পাস কুইন্সের লং আইল্যান্ড সিটিতে অবস্থিত। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে মোমেন ২০১৯ সালে  নিউইয়র্কে ক্যাম্পাস পরিদর্শনকালে প্রবাসী অভিবাসীদের প্রযুক্তি প্রশিক্ষণদানে বিশেষ ভুমিকা রাখার জন্য পিপলএনটেকের প্রচেষ্টাকে ‘বৈপ্লবিক উদ্যোগ’ বলে উল্লেখ করেন। তিনি প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা আবুবকর হানিপকে একজন ‘ম্যাজিকম্যান’ উপাধি দিয়ে ভুঁয়সী প্রসংশা করেন।
অনলাইনে শতভাগ স্কলারশিপের মাধ্যমে মোট ৯টি যুগোপযোগী আইটি বিষয়ের উপর স্কিল ডেভেলপমেন্টের সুবিধা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। স্কলারশীপের কোর্সগুলো হলো: ঈড়সঢ়ঞওঅ অ+, গরপৎড়ংড়ভঃ ঙভভরপব, গরপৎড়ংড়ভঃ ঊীপবষ, ডবন উবংরমহ, উধঃধনধংব গুঝছখ, অফড়নব চযড়ঃড়ংযড়ঢ়, ঠরফবড় ঊফরঃরহম, চৎড়মৎধসসরহম রহ ঈ#, খড়পধষ ঝঊঙ।
স্কলারশীপের জন্য রেজিষ্ট্রেশনের শেষ তারিখ ২০ আগস্ট ২০২০। ক্লাস শুরু হবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে নিচে প্রদত্ত নম্বরগুলোতে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।  
ফোন: ০১৭৯৯ ৪৪৬৬৫৫, ০১৭৮২ ৬৯০৪৮৬, ০১৮৪৪ ৯৪৪৫৬৬, ০১৮৮৫ ৯৮১২৫০। ঠিকানা: গুড লাক সেন্টার, ৭ম তলা, ১৫১/৭ গ্রীন রোড, ঢাকা ১২০৫।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়