ঢাকা, ২০২১-০১-২০ | ৭ মাঘ,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
শেষ রাতে দু’রাকাত নামাজ জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে নতুন করোনাভাইরাস আতঙ্কে ইউরোপ-আমেরিকার শেয়ারবাজারে ধস জুনের মধ্যে আসছে আরও ৬ কোটি করোনার টিকা বাড়িভাড়ায় নাভিশ্বাস, ফের বাড়ানোর পাঁয়তারা অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

ক্যাপিটল হিলে সমর্থকদের হামলা

ট্রাম্পের নিন্দায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা

প্রকাশিত: ০৩:১৩, ৯ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০৩:১৪, ৯ জানুয়ারি ২০২১



           
আজকাল রিপোর্ট
আমেরিকার গণতন্ত্রের বাতিঘর ক্যাপিটল হিলে হামলায় বিস্মিত গোটা বিশ্ব। আর এ হামলার জন্য প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে দায়ী করা হচ্ছে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। অভিযোগ উঠছে ট্রাম্পের নির্দেশেই আমেরিকার গণতন্ত্রের পাঠশালা আজ রক্তাক্ত। আমেরিকার বিকন ভুলুন্ঠিত। ট্রাম্পের উন্মাদনায় আমেরিকান নাগরিকের জীবন দিতে হলো ক্যাপিটাল হিলের ভেতরেই। প্রবাসী বাংলাদেশিরা এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার জন্য সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীর আলোকে তাকে অপসারনের দাবি জানিয়েছেন। তাদের মতে, ট্রাম্পের হাতে আর একদিনও আমেরিকা নিরাপদ নয়। এ ব্যাপারে আজকালকে দেওয়া আমেরিকায় বসবাসরত বিশিষ্ট কয়েকজন নাগরিকের মতামত তুলে ধরা হলো।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান আজকালকে বলেন, ট্রাম্প সারা বিশ্বের কাছে আমেরিকার গণতন্ত্রের ঐতিহ্যের কবর রচনা করেছেন। আড়াই শ’ বছরের সুনাম নষ্ট করেছেন। সংসদের ভেতর ভাইস প্রেসিডেন্ট, সিনেটর ও হাউজ প্রতিনিধিদের জীবন নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করতে দেখা গেছে। টিভি দেখে মনে হচ্ছিল তৃতীয় বিশ্বের কোন দৃশ্য দেখছি। এ আমেরিকা দেখার জন্যতো বাংলাদেশ থেকে আসিনি।
একুশের পদকপ্রাপ্ত বুদ্ধিজীবী ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্রের সভাপতি ড. নুরুন নবী বলেন, ক্যাপিটল হিলে নতুন সরকারের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার জন্য বৈঠক চলছিল। যাতে সভাপতিত্ব করছিলেন দেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। তখনই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশে ক্যাপিটল হিলে হামলা হয়। তিনি এ গর্হিত কাজের জন্য ইমপিচেবল। ইতিহাসে কলংকিত ও নিন্দিত হয়ে থাকবেন।
প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ আজকালকে বলেন, খুবই দুঃখজনক ঘটনা। গ্রেটেস্ট ডেমোক্রেসির দেশে এ ঘটনা দেখতে হলো। এর জন্য ট্রাম্পই দায়ী। তার জন্যই আমেরিকায় আজ গৃহযুদ্ধ অবস্থার তৈরি হলো। তিনি সারা দেশে একটি জঙ্গিগোষ্ঠী তৈরি করেছেন। ট্রাম্পের হাতে এ দিশটি একদিনের জন্যও আর নিরাপদ নয়। ক্ষমতায় থাকার জন্য যেকোন কাজ করতে পারেন আগামী ১০ দিনে। জারি করতে পারে মার্শল ’ল । যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে পারে ইরানের সাথে।
সাংবাদিক হাসান ফেরদৌস আজকালকে দেয়া এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, অভাবিত, অবিশ্বাস্য ও গভীর বেদনাদায়ক ঘটনা। আমেরিকা বিশ্বের মানুষের কাছে গণতন্ত্রের প্রতীক। প্রথম জনপ্রতিনিধিত্বমূলক রাষ্ট্র। সেখানে সরকার প্রধানের প্রত্যক্ষ মদদে ও উৎসাহে আইন সভায় এমন নগ্ন হামলা হতে পারে তা না দেখলে বিশ্বাস করা যেতো না। এটা স্পষ্টত একটা ক্যু বা অগণতান্ত্রিক ক্ষমতা দখলের চেষ্টা। সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীর মাধ্যমে ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করে এখনই ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের হাতে দায়িত্ব দেয়া উচিত। এমন দুষ্কর্ম বিনা শাস্তিতে পার পেতে পারে না।
যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি রিপাবলিকান নেতা আজকালকে গিয়াস আহমেদ বলেন, ট্রাম্প রাজনীতিক নয়। একজন অসৎ ব্যবসায়ী। রাজনীতিকে তিনি ব্যবসার অংশ হিসেবেই নিয়েছেন। ক্ষমতায় আসা ও আরও ৪ বছর থাকার জন্য জাতিকে বিভক্ত করেছেন। সাদাদের সাথে বিভাজন গড়ে তুলেছেন সকল মাইনোরিটি গ্রুপের। নিজ দল রিপাবলিকান পার্টিতেও বিভাজন এনেছেন। ক্ষমতায় থাকার স্বপ্নভঙ্গ হবার পরপরই পাগলের মতো আচরণ শুরু করেছেন। ক্যাপিটল হিলে জঙ্গি বাহিনী পাঠিয়ে আমেরিকার গণতন্ত্রকে কলংকিত করেছেন। নিন্দা জানানোর ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।
বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু আজকালকে বলেন, ট্রাম্প রিপাবলিকান পার্টিতে রেডিক্যালাইজেশন চালাচ্ছিল। তাতে কট্ররপন্থীরা দলে দলে ভীড় করছিল। ক্যাপিটল হিলে হামলার মধ্যদিয়ে ট্রাম্পইজমের পতন শুরু হলো। ২০ জানুয়ারির পর এ পতনের হার আরও বাড়বে। ট্রাম্পের আচরণে সারা বিশ্বে আজ নিন্দার ঝড় উঠেছে।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়