শুক্রবার   ১৪ জুন ২০২৪   জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১   ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সর্বশেষ:
দিনের বেলায় মরুভূমির চেয়েও উত্তপ্ত চাঁদ ডেঙ্গুতে একদিনে ১১ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ২৩২৭ ৬ কংগ্রেসম্যানের চিঠির সত্যতা চ্যালেঞ্জ করে ২৬৭ প্রবাসী বাংলাদেশি অক্টোবরের মধ্যেই ‘আন্দোলনের ফসল’ ঘরে তুলতে চায় বিএনপি শর্তসাপেক্ষে নিউইয়র্কে মসজিদে আজানের অনুমতি বাংলাদেশ থেকে বিনা খরচে মালয়েশিয়া গেলেন ৩১ কর্মী খেলাপি ঋণ কমাতে কঠোর নির্দেশ জার্মানে পাঁচ বছর বাস করলেই পাওয়া যাবে নাগরিকত্ব বিএনপি-জাপা বৈঠক সিঙ্গাপুরে বাইডেন প্রশাসনকে হাসিনার কড়া বার্তা এবার হাসিনার পাশে রাশিয়া বঙ্গ সম্মেলনের ইতিহাসে ন্যাক্কারজনক ঘটনা স্টুডেন্ট লোন মওকুফ প্রস্তাব বাতিল বাংলাদেশিদের ওপর উপর্যুপরি হামলা যুক্তরাষ্ট্রের উচিত আগে নিজ দেশে মানবাধিকার রক্ষা করা: শেখ হাসিনা তামিমের অবসর অভিযোগের তীর পাপনের দিকে নিউইয়র্কে এখন চোরের উপদ্রুব যুক্তরাষ্ট্রের ২৪৭তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে হাতিরঝিলের ক্ষতি হবেই ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধবিরতি, পাঁচ দিনে নিহত ৩৫ যুক্তরাষ্ট্রে একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটছে বাখমুত থেকে পিছু হটেছে সেনারা, স্বীকার করল রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণ ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ সুপার সাইক্লোন হবে না, দাবি আবহাওয়া অধিদপ্তরের সুদানে যুদ্ধে সাড়ে ৪ লাখ শিশু বাস্তুচ্যুত : জাতিসংঘ পারস্য উপসাগরে সামরিক উপস্থিতি বাড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ এশিয়ায় খেলাপি ঋণে দ্বিতীয় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংকটে সারা দেশে ভোগান্তি রুশ হামলা সামলে ফের বিদ্যুৎ রপ্তানি করতে যাচ্ছে ইউক্রেন রিজার্ভ সংকট, খাদ্যমূল্য বৃদ্ধির জন্য সরকারের দুর্বল নীতিও দায়ী পূজার ‘জিন’ একা দেখতে পারলেই মিলবে লাখ টাকা! সিরিয়ায় আর্টিলারি হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল বাইডেন না দাঁড়ালে প্রার্থী হবেন কে নাইজেরিয়ায় ৭৪ জনকে গুলি করে হত্যা ভারতে বাড়ছে করোনা, বিধিনিষেধ জারি তিন রাজ্যে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন লুলা যে কোনো দিন খুলবে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল শীতে কাঁপছে উত্তরাঞ্চল দেশে করোনার নতুন ধরন, সতর্কতা বিএনপির সব পদ থেকে বহিষ্কার আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া নৌকার প্রার্থীর পক্ষে মাঠে কাজ করবো: মাহিয়া মাহি মর্মান্তিক, মেয়েটিকে ১২ কিলোমিটার টেনে নিয়ে গেল ঘাতক গাড়ি! স্ট্যামফোর্ড-আশাসহ ৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বর্ষবরণে বায়ু-শব্দদূষণ জনস্বাস্থ্যে ধাক্কা কোনো ভুল মানুষকে পাশে রাখতে চাই না বাসস্থানের চরম সংকটে নিউইয়র্কবাসী ট্রাকসেল লাইনে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত একাকার! ছুটি ৬ মাসের বেশি হলে কুয়েতের ভিসা বাতিল ১০ হাজার বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত চুক্তিতে বিয়ে করে ইউরোপে পাড়ি আইফোন ১৪ প্রোর ক্যামেরায় নতুন দুই সমস্যা পায়ের কিছু অংশ কাটা হলো গায়ক আকবরের ১৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ডলার নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে আবার বাড়লো স্বর্ণের দাম
১২৭

জালালাবাদ এসোসিয়েশনের অর্থ কেলেংকারি

প্রকাশিত: ২০ মে ২০২৩  


তদন্তে ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি অফিস
 
আজকাল রিপোর্ট:
জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকার আর্থিক অনিয়মের কিছু নির্দিষ্ট অভিযোগ নিয়ে কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি অফিস তদন্ত শুরু করেছে। সংগঠনের তহবিল থেকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ ডলার উত্তোলন ও তা ব্যক্তিগত খাতে ব্যবহারের অভিযোগ এনেছে জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা’র কার্যকরি পরিষদ।
গেল সপ্তাহে কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি অফিস বাদী পক্ষের স্টেটমেন্ট গ্রহণ করেছে। তারা ব্যাংক স্টেটমেন্ট, সংবিধানের কপি ও বিভিন্ন সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহও উপস্থাপন করেন। এটি একটি ক্রিমিনাল কেস হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। কেসটির ওপর তদন্ত অব্যাহত থাকবে। এটর্নি অফিস জালালাবাদ এসোসিয়েশনের বর্তমান ও সাবেক কর্মকর্তা, সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম (সাময়িকভাবে বহিস্কৃত) এবং সাবেক ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যদের বক্তব্যও নেবেন। করোনাকালীন সময়ে নন-প্রোফিট সংগঠন জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আড়াই লাখ ডলার কিভাবে ওয়্যার ট্রান্সফারের মাধ্যমে একটি কনস্ট্রাকশন ফামের্র একাউন্টে জমা হলো তাও খতিয়ে দেখবেন তদন্তকারী অফিসাররা। কার্যকরি কমিটির পক্ষ থেকে ট্রাস্টি বোর্ডের  কাছে এটর্নি জেনারেল অফিসে দাখিলকৃত অভিযোগের কপি হস্তান্তর করা হয়েছে।
এদিকে আগামী ১১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হচ্ছে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাধারণ সভা। এই সভাতেই ভাগ্য নির্ধারিত হবে সাময়িক বহিস্কৃত সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলামের ভাগ্য। তাকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হবে নাকি স্বপদে ফিরে আসবেন সে সিদ্ধান্ত এদিনেই হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে সংগঠনের অর্থে নিজের ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠানের নামে বাড়ি কেনার।
জালালাবাদের সংকট নিরসনে সমঝোতা ও আপোষের কোন পথ খোলা আছে কিনা সংগঠনের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এটর্র্নি মঈন চৌধুরীর কাছে তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনও আছে। তবে উভয় পক্ষকেই নরম হতে হবে। গেল সপ্তাহে পৃথক পৃথকভাবে উভয় পক্ষের সাথে ট্রাস্টিবোর্ড বসেছিল। তাদের বক্তব্য আমরা শুনেছি। সমঝোতার কাছাকাছি আসতে আমরা পারিনি। এভাবে সমাধান না হলে কোর্টে কোন ফয়সালা সম্ভব কিনা জানতে চাওয়া হলে মঈন চৌধুরী বলেন, কোর্টেও সমঝোতা হতে পারে। তবে তা পরিহার করে আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করতে পারলে ভাল হয়।  
নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক জালালাবাদ এসোসিয়েশনের প্রবীন এক নেতা বলেন, ট্রাস্টি বোর্ডের সভায় মইনুল তার কেনা বাড়ি, যাকে কিনা জালালাবাদ ভবন বলা হচ্ছে, তা বাড়ি হস্তান্তরের জন্য ১.২ মিলিয়ন ডলার দাবি করেছেন। এই মূল্যে জালালাবাদ এসোসিয়েশন বাড়িটি নিতে আগ্রহী নয়। জালালাবাদ এসোসিয়েশন বাড়িটি গ্রহণ করলে মর্টগেজ প্রদানে সমস্যায় পড়তে হবে। বরং তারা সংগঠনের সাড়ে ৩ লাখ ডলার মইনুলের কাছ থেকে ফিরে পেতে চায়।
আইনী পদক্ষেপের ব্যাপারে জালালাবাদের সভাপতি বদরুল খানের বক্তব্য জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য এখন ১১ জুনের সাধারণ সভার দিকে। এটিকে সাফল্যমন্ডিত করাই বড় দায়িত্ব। মইনুল ইসলামের ব্যাপারটি আইনী প্রক্রিয়াধীন আছে। এর বেশি আমি কিছু বলতে পারবো না। তবে সংগঠনের অর্থ লোপাট করে কেউ রেহাই পাবে না। জবাবদিহিতার আওতায় তাকে আসতেই হবে। মনে রাখতে হবে জালালাবাদের অর্থ সিলেটবাসীদের আমানত। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রোকন হাকিম বলেন, ২০২১ সালে নবায়নকৃত সদস্য ও আজীবন সদস্যদের নিয়ে এই সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেই সংগঠন পরিচালনায় করণীয় ও দিক নির্দেশনা প্রদান করবেন সদস্যরা।
ট্রাস্টি বোর্ডের সাথে বৈঠক ও আইনী প্রক্রিয়া সম্পর্কে সাময়িক বহিস্কৃত সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলামের কাছে জানতে চাওয়া হয়। তিনি বলেন, ট্রাস্টি বোর্ডের সাথে আমার বৈঠক হয়েছে। তারা বদরুল খান ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে বেঠক করে একটি প্রস্তাব নিয়ে আবারও আমার সাথে আলোচনা করবেন। মইনুল বলেন, এ ছাড়া অনেক কিছুই নির্ভর করছে ১১ জুনের সাধারণ সভার ওপর। আইনী প্রক্রিয়া প্রশ্নে তিনি এ ধরনের কোন উদ্যোগ সম্পর্কে তার অজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

 

সাপ্তাহিক আজকাল
সাপ্তাহিক আজকাল
এই বিভাগের আরো খবর