বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯   ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
কোনো ভুল মানুষকে পাশে রাখতে চাই না বাসস্থানের চরম সংকটে নিউইয়র্কবাসী ট্রাকসেল লাইনে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত একাকার! ছুটি ৬ মাসের বেশি হলে কুয়েতের ভিসা বাতিল ১০ হাজার বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত চুক্তিতে বিয়ে করে ইউরোপে পাড়ি আইফোন ১৪ প্রোর ক্যামেরায় নতুন দুই সমস্যা পায়ের কিছু অংশ কাটা হলো গায়ক আকবরের ১৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ডলার নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে আবার বাড়লো স্বর্ণের দাম
৩০

খেরসন শহর থেকেও পিছু হটল রুশ বাহিনী

প্রকাশিত: ১০ নভেম্বর ২০২২  

ইউক্রেনের খেরসন শহর থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। আজ বুধবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই সোইগু রাশিয়ার দখলে থাকা খেরসন শহর থেকে রুশ সেনাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে গণভোট আয়োজন করে ইউক্রেনের যে চারটি অঞ্চলকে রাশিয়া তাদের অংশ করে নিয়েছে, এর মধ্যে একটি খেরসন। ওই অঞ্চলের রাজধানী খেরসন শহরের অবস্থান নিপরো নদীর পশ্চিম পারে। রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী খেরসন শহর থেকে সরে নিপরো নদীর পূর্ব তীরে সেনাদের অবস্থান নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

ইউক্রেন যুদ্ধে রুশ বাহিনীর নেতৃত্বে আছেন জেনারেল সের্গেই সুরোভিকিন। টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক অনুষ্ঠানে সুরোভিকিন বলেছেন, খেরসন শহরে রুশ সেনাদের রসদ সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না। জেনারেল সুরোভিকিন এমন কথা জানানোর পর প্রতিরক্ষামন্ত্রী সোইগু রুশ সেনাদের ওই শহর ছাড়ার নির্দেশ দেন।  

ওই অনুষ্ঠানে ছিলেন সের্গেই সুরোভিকিন ও সের্গেই সোইগু। যুদ্ধ পরিস্থিতি বর্ণনা করে সেখানে সুরোভিকিন বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতির সব দিক মূল্যায়ন করে খেরসন শহর ছেড়ে নিপরো নদীর পূর্ব তীরে অবস্থান নেওয়ার প্রস্তাব দিচ্ছি। আমি জানি এটা একটা কঠিন সিদ্ধান্ত। কিন্তু একই সঙ্গে এর মাধ্যমে আমরা আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেনাসদস্যদের প্রাণ বাঁচাতে পারব।’ সুরোভিকিনের এ কথার পরপরই প্রতিরক্ষামন্ত্রী সোইগু বলেন, ‘সেনাদের সরানো শুরু করুন।’

ইউক্রেনে রাশিয়ার সেনা কমান্ডার সের্গেই সুরোভিকিনকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী সোইগু আরও বলেন, ‘আমি আপনার মূল্যায়ন ও প্রস্তাবের সঙ্গে একমত। আমাদের জন্য রাশিয়ার সেনাসদস্যদের জীবন ও স্বাস্থ্য সর্বদা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া সাধারণ মানুষের ঝুঁকির বিষয়টি আমাদের অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। খেরসন থেকে নিপরো নদীর অন্য পারে সেনা ও অস্ত্র সরঞ্জাম সরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা নিন। এসব করার জন্য জন্য প্রয়োজনীয় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া দরকার, তা নিশ্চিত করুন।’

সাপ্তাহিক আজকাল
সাপ্তাহিক আজকাল
এই বিভাগের আরো খবর