সোমবার   ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   মাঘ ২৩ ১৪২৯   ১৫ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন লুলা যে কোনো দিন খুলবে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল শীতে কাঁপছে উত্তরাঞ্চল দেশে করোনার নতুন ধরন, সতর্কতা বিএনপির সব পদ থেকে বহিষ্কার আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া নৌকার প্রার্থীর পক্ষে মাঠে কাজ করবো: মাহিয়া মাহি মর্মান্তিক, মেয়েটিকে ১২ কিলোমিটার টেনে নিয়ে গেল ঘাতক গাড়ি! স্ট্যামফোর্ড-আশাসহ ৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বর্ষবরণে বায়ু-শব্দদূষণ জনস্বাস্থ্যে ধাক্কা কোনো ভুল মানুষকে পাশে রাখতে চাই না বাসস্থানের চরম সংকটে নিউইয়র্কবাসী ট্রাকসেল লাইনে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত একাকার! ছুটি ৬ মাসের বেশি হলে কুয়েতের ভিসা বাতিল ১০ হাজার বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত চুক্তিতে বিয়ে করে ইউরোপে পাড়ি আইফোন ১৪ প্রোর ক্যামেরায় নতুন দুই সমস্যা পায়ের কিছু অংশ কাটা হলো গায়ক আকবরের ১৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ডলার নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে আবার বাড়লো স্বর্ণের দাম
১১১

রয়টার্সের প্রতিবেদন

কাতারে নিরাপদ বোধ করছেন নারী ফ্যানরা

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২২  

 অ্যালকোহলের ওপর নিষেধাজ্ঞাসহ নানা কারণে শুরুতে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছিল কাতার বিশ্বকাপ। সমকামিতা ও মানবাধিকারসহ নানা বিষয়ও ছিল বেশ আলোচনায়।

পশ্চিমা বা ইউরোপীয়রাই কাতারের এমন আচরণের ঘোর বিরোধী ছিল। তবে সময় যতো গড়াচ্ছে দুর্নামে পড়া কাতারের এখন সুনামও শোনা যাচ্ছে। যেমন, অনেক ইউরোপীয় ফুটবল সমর্থকই জানিয়েছেন অ্যালকোহল কিংবা অ্যালকোহলযুক্ত বিয়ার ছাড়া তাদের বিশ্বকাপ দেখতে খুব একটা খারাপ লাগছে না। কেউ কেউ বলছেন, অ্যালকোহল নিষিদ্ধ করায় উন্মাদের সংখ্যা কমেছে।
এবার নারীরাও দিল ইতিবাচক মত। রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নারী ফুটবল সমর্থকরা কাতারে বেশ নিরাপদ অনুভব করছেন।

এলি মলোসন নামে এক ইংল্যান্ড সমর্থক বলেন, ‘আমার ধারণা ছিল, মেয়েদের জন্য এটা ভয়ানক জায়গা। জানতাম না যে এখানে আমি এতটা নিরাপদ থাকব…দেশটিতে ভ্রমণে যাওয়া একজন নারী সমর্থক হিসেবে আমি বলতে পারি যে আমি খুব নিরাপদ বোধ করেছি।’

১৯ বছর বয়সী মলোসন আরও বলেছেন, ‘অ্যালকোহল পানে রাশ টানার সিদ্ধান্ত একটা জায়গায় দারুণ কাজে লেগেছে, আর সেটা হলো বিশ্বকাপ প্রাঙ্গণে তুলনামূলক কম বাজে পরিস্থিতির দেখা মিলেছে।’ তার মতে কাতারের সবকিছুই বেশ সাংস্কৃতিক, সুন্দর। 

তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, সামাজিকভাবে (কাতার) রক্ষণশীল হওয়ার কারণেই এমন নিয়ম (এখানে অ্যালকোহল নিষিদ্ধ)। আমার মতে, অ্যালকোহল মানুষকে কিছুটা উগ্র করে তোলে, একে অপরের মাঝে সমস্যার সৃষ্টি করে এবং এ কারণে যৌন নির্যাতনের মতো ঘটনাও ঘটে।’

আর্জেন্টিনা ভক্ত  ২১ বছর বয়সী আরিয়ানা গোল্ড রয়টার্সকে বলেছেন, ‘নারীদের জন্য এখানকার পরিবেশ খুব ভালো। আমি ফুটবল খুব ভালোবাসি। দেশে থাকতে আমার ধারণা ছিল, কাতার হয়তো কেবল পুরুষদের জন্য (নিরাপদ) এবং হয়তো মেয়েদের জন্য এখানে হয়তো ঠিক স্বস্তিকর পরিবেশ নয়। কিন্তু না, আমি এখানে খুব স্বাচ্ছন্দ্যে আছি এবং এখানকার সবকিছু খুব ভালো।’

ইংলিশ সমর্থক এমা স্মিথও জানালেন, ‘এখন পর্যন্ত এখানকার আবহ খুব ভালো, যদিও অ্যালকোহল পানে বাধা আছে এবং এ ব্যাপারে সবাই বেশ সংবেদনশীল। বিষয়টার সঙ্গে সবাই মানিয়ে নিচ্ছে এবং সবাই খুশি।’ তার মতে, ‘এখানে কোনো অ্যালকোহলজনিত সমস্যা নেই, খুবই নিরাপদ।’


সূত্র: রয়টার্স

সাপ্তাহিক আজকাল
সাপ্তাহিক আজকাল