ঢাকা, ২০২১-০৩-০৪ | ১৯ ফাল্গুন,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
সুন্দরী মডেলের অপহরণ চক্র ! মোটরসাইকেল উৎপাদনে বিপ্লবে দেশ যুক্তরাজ্যে করোনার আরও মারাত্মক ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত ৮ থেকে ১২ সপ্তাহ বিরতিতে অক্সফোর্ডের টিকা বেশি কার্যকর সবাই সপরিবারে নির্ভয়ে করোনা ভ্যাকসিন নিন: প্রধানমন্ত্রী শেষ রাতে দু’রাকাত নামাজ জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে নতুন করোনাভাইরাস আতঙ্কে ইউরোপ-আমেরিকার শেয়ারবাজারে ধস জুনের মধ্যে আসছে আরও ৬ কোটি করোনার টিকা বাড়িভাড়ায় নাভিশ্বাস, ফের বাড়ানোর পাঁয়তারা অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

করোনায় নিহত প্রত্যেক বাংলাদেশি পরিবার পাবে ৭ হাজার ডলার

প্রকাশিত: ০৩:১৬, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১  


 
আজকাল রিপোর্ট
মহামারি করোনায় নিহত বাংলাদেশি প্রত্যেক পরিবার সর্বোচ্চ ৭ হাজার ডলার পাবে। নিউইয়র্কে ৪ শতাধিক বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। সিনেটর চাক শ্যুমার ও কংগ্রেসওম্যান ওকাসিও কর্টেজের ঘোষিত ২৬০ মিলিয়ন ডলারের ‘ফিউনারেল ফান্ড’ থেকে এ অর্থ পাওয়া যাবে।
নিউইয়র্ক স্টেটে করোনায় মোট নিহতের সংখ্যা ৪৪ হাজার ৬ শ’ ৮৩ জন। নিহতদের পরিবারের সদস্যরা এ ফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে আবেদনকারিদের নি¤œ আয়ের ক্যাটাগরিতে পরতে হবে। এ অর্থ দেয়া হবে মৃতদের ফিউনারেল খরচ, ট্রান্সপোর্টেশন কস্ট, কবরস্থানের মূল্য, সৎকার খরচ, জানাজা ও অন্যান্য বিলের বিপরীতে। গত রোববার নিউইয়র্ক থেকে নির্বাচিত সিনেটর ও সিনেট লিডার চাক শ্যুমার এবং কুইন্স থেকে নির্বাচিত কংগ্রেসওমেন আলেকজান্ড্রিয়া ওকাসিও কর্টেজ এক যৌথ ঘোষণায় এ তথ্য প্রকাশ করেছেন। এ খাতে নিউইয়র্কের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২৬০ মিলিয়ন ডলার। তারা বলেন, করোনাকালে নিউইয়র্কের অনেকেই প্রিয়জনদের হারিয়েছেন। মৃতদের সৎকার ও  ফিউনারেল খরচ যোগাতে হিমশিম খেয়েছেন। লোনে র্জজরিত হয়েছেন। এখনও অর্থনৈতিকভাবে অসহায়। তারা এ অর্থ পাবেন।
‘ফিমার ডিজাস্টার ফিউনারেল সহায়তা কর্মসূচির’ ফান্ড থেকে এ অর্থ দেয়া হচ্ছে। ফিমার অনলাইন পোর্টালে অর্থের জন্য আবেদন করতে হবে। তারা একটি কল সেন্টারও খুলছে। আবেদনকারিরা সেখানে কল করে পরামর্শ নিতে পারবেন। চাক শ্যুমার বলেছেন, নিহতদের পরিবার এ আবেদন করতে সিটি, স্টেট ও ফিউনারেল পরিচালকের সাথে যোগাযোগ রাখবেন। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে তাদের সহায়তার প্রয়োজন হবে। আবেদনের সাথে অবশ্যই করোনায় মৃত সংক্রান্ত ডেথ সার্টিফিকেট দাখিল করতে হবে। যারা ২০ জানুয়ারি ২০২০ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ সময়ের মধ্যে করোনায় মারা গেছেন তাদের পরিবার এ অর্থ পাবেন। ২০২১ সালেও যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারের সদস্যদেরও আগামীতে বিবেচনায় আনা হবে। ওকাসিও কর্টেজ বলেছেন, কাগজপত্রহীন (আনডকুমেন্টেড) ইমিগ্র্যান্ট পরিবারও এ অর্থ পাবেন এবং নির্দ্বিধায় আবেদন করতে পারবেন।

 

নিউইয়র্ক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়