ঢাকা, ২০২০-১০-২২ | ৭ কার্তিক,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

উদ্ভাবনী স্টার্টআপের খোঁজে `আইডিয়াথন` প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত: ০৩:২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আইডিয়া প্রকল্পের উদ্যোগে উদ্ভাবনী স্টার্টআপের খোঁজে ‘আইডিয়াথন’ প্রতিযোগিতা আয়োজিত হচ্ছে। শনিবার আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ডিজিটাল প্লাটফর্মে যুক্ত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এ  প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, জাতিগতভাবে আমাদের তরুণদের ঝুঁকি নেওয়ার যোগ্যতা রয়েছে। তারা নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে বিশ্ব জয় করবে। দেশে ইনোভেশন এবং এন্টারপ্রেইনিয়রস ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে সরকার, একাডেমিয়া ও ইন্ডাস্ট্রিকে যৌথভাবে কাজ করতে হবে।

‘লেটস স্টার্ট ইউ আপ’ স্লোগানে শুরু হওয়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন ৩০টির বেশি সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই ও বিভিন্ন ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা।

আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, বিজিএমইএ  সভাপতি  রুবানা হক এবং স্টার্টআপ প্রকল্পের এডভাইজার টিনা এফ জাবিন।  

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রতিযোগিতায় বিজয়ী পাঁচ উদ্যোগের উদ্যোক্তারা পাবেন দক্ষিণ কোরিয়ায় ছয় মাসের প্রশিক্ষণ, ইনকিউবেশন, ফান্ডিং, আন্তর্জাতিক পেটেন্টসহ কপিরাইট ও ট্রেডমার্ক নিবন্ধনের সহযোগিতা। এছাড়া সেরা ২৫ উদ্যোগ পাবে বিশেষ মেনটরিং এবং সম্মাননাপত্র। তবে এজন্য বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক আগ্রহী স্টার্টআপগুলো অনলাইনে প্রাথমিক নিবন্ধন করতে পারবেন।

প্রতিযোগিতায় সহ-আয়োজক হিসেবে রয়েছে কোরিয়া প্রোডাক্টিভিটি সেন্টার (কেপিসি) এবং কোরিয়া ইনভেনশন প্রমোশন অ্যাসোসিয়েশন (কাইপা)। এছাড়া রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এবং দক্ষিণ কোরিয়ার মিনিস্ট্রি অফ জাস্টিস ও গ্লোবাল স্টার্টআপ ইমিগ্রেশন সেন্টার। ২১ নভেম্বর পর্যন্ত নিবন্ধন করা যাবে। নিবন্ধন শেষে তাদের অংশ নিতে হবে আইডিয়াথন প্রতিযোগিতার সেরা স্টার্টআপ বাছাইপর্বে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়