ঢাকা, ২০২০-১০-২০ | ৫ কার্তিক,  ১৪২৭
সর্বশেষ: 
অমিতাভের পর অভিষেকও করোনা আক্রান্ত বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জালিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির ইরাকে মর্গের পাশে রাত কাটছে বাংলাদেশিদের! বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শক বাংলাদেশের সেঁজুতি সাহা সাহেদর টাকা থাকত নাসির, ইন্ডিয়ান বাবু ও স্ত্রী সাদিয়ার কাছে ‘বাংলাদেশিদের ভোট দিন’ মানবতার সেবায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ অনিশ্চিতায় ফেরদৌস খন্দকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা থামছেই না বিক্ষোভ অব্যাহত গভর্নরের সিদ্ধান্ত মানছে না মেয়র অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প করোনার ধাক্কা - মে মাসে রপ্তানি কমেছে ২০ হাজার কোটি টাকার পুলিশ সংস্কার বিল উঠলো মার্কিন কংগ্রেসে লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন আইসিইউ নিয়ে হাহাকার ঈদের ছুটিতে অনিরাপদ হয়ে উঠছে গ্রামগুলো ঘরে ঘরে ভুতুড়ে বিল, বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে সমন্বয় হবে নিউইয়র্কে ‘ট্রাম্প ডেথ ক্লক’ নিউইয়র্কে জেবিবিএ’র পরিচালক ইকবালুর রশীদ লিটনের মৃত্যু নিজ আয়ে চলা শুরু করলো বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি কবে খুলবে নিউইয়র্ক নিউইয়র্কে এবার নতুন ভাইরাসে শিশুরা আক্রান্ত

সুপ্রীম কোর্টের রায় ‘ডাকা’ বাতিলে ট্রাম্পের উদ্যোগ বেআইনী

অভিবাসীরা জিতলেন হারলেন ট্রাম্প

প্রকাশিত: ০১:৪১, ২০ জুন ২০২০   আপডেট: ০১:৪১, ২০ জুন ২০২০



আজকাল রিপোর্ট
দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকা অভিবাসন বিষয়ক একটি আইনি প্রক্রিয়ায় অবশেষে অভিবাসীদের জয় হলো। হেরে গেলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ‘অভিবাসীদের স্বপ্ন’ হিসাবে অভিহিত ‘ডেফার্ড একশান ফর চাইল্ডহুড এরাইভালস’ বা ‘ডাকা’ কর্মসূচি বাতিলের জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উদ্যোগকে রদ করে দিয়েছে সুপ্রীম কোর্ট। আট বছর আগে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শাসনামলে প্রণীত এই কর্মসূচি বাতিল করে দিয়ে ট্রাম্প প্রশাসন যে বিধি জারি করেছিল সুপ্রীম কোর্ট গতকাল বৃহস্পতিবার তা নাকচ করে দিয়েছে।
৫-৪ ভোটে গৃহীত এক রায়ে সুপ্রীম কোর্ট এই বিধিকে এডমিনিস্ট্রেটিভ প্রসিডিউর অ্যাক্টের লংঘন বলে উল্লেখ করেছে এবং একে বেআইনী ঘোষণা করেছে। সুপ্রীম কোর্টের এই রায়কে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওপর একটি বড় আঘাত হিসাবে দেখছেন পর্যবেক্ষকরা।
‘ডাকা’ কর্মসূচি যুক্তরাষ্ট্রে শিশু হিসাবে আসা হাজার হাজার অভিবাসীকে ডিপোর্টেশনের কবল থেকে রক্ষা করে তাদেরকে সুরক্ষা দিয়েছিল। সুপ্রীম কোর্টের এই রায়ের ফলে ‘ডাকা’র সুবিধাপ্রাপ্ত ৮ লাখ অভিবাসী যাদের মধ্যে নিউইয়র্কের ৫০ হাজার অধিবাসী রয়েছেন তাদের আর ডিপোর্টেশন কিংবা পরিবার বা কমিউনিটি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকতে হবে না।
যে পাঁচজন বিচারপতি বৃহস্পতিবার এই রায়ের পক্ষে স্বাক্ষর করেন তাদের মধ্যে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস। তাঁর সঙ্গের অপর চার বিচারপতি হচ্ছেন বাদেও গিনসবার্গ, এলিনা কাগান, স্টিফেন ব্রেইয়ার এবং সোনিয়া সোতোমায়ার। এই রায় সমর্থনের মধ্য দিয়ে প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস আরো একবার উদারনীতিকদের পক্ষ নিলেন। এর আগে তিনি ওবামাকেয়ার বহাল রাখার পক্ষের রায়ে সিদ্ধান্তমূলক ভোট দিয়ে রক্ষণশীলদের ক্ষোভের শিকার হয়েছিলেন। উল্লেখ্য, এই নয় বিচারপতির মধ্যে দুজন সরাসরি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মনোনয়নে সুপ্রীম কোর্টে এসেছেন। তবে তারাও এই সপ্তাহেই গত সোমবার দেয়া আর একটি রায়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন। সোমবারের এই রায়ে ট্রাম্প প্রশাসনের বিরোধিতা করে বলা হয়েছে, এলজিবিটি আমেরিকানদের সমঅধিকার সিভিল রাইটস অ্যাক্ট দ্বারা সুরক্ষিত।
গতকালের রায়ে সুপ্রীম কোর্ট উল্লেখ করেছে, ডাকা কর্মসূচি বাতিলের পক্ষে পর্যাপ্ত কারণ ব্যাখ্যা করতে প্রশাসন ব্যর্থ হয়েছে।
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গতকালই এক টুইটে এই রায়কে ‘সুপ্রীম কোর্ট থেকে বেরিয়ে আসা একটি ভয়াবহ ও রাজনীতি প্রভাবিত রায়’ মন্তব্য করে বলেছেন, এটি দেশের জনগণ যারা নিজেদের রিপাবলিকান তথা রক্ষণশীল বলে দাবি করেন তাদের মুখে শটগানের গুলি বর্ষণ। রায় সম্পর্কে গতকাল সারাদিন ধরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আরো কয়েকটি টুইট করেন। একটিতে তিনি বলেন, এই রায় আইনের ওপর ভিত্তি করে দেয়া হয়েছে বলে মনে হয় না। এই রায় আপনাদের একটি কথাটিই জানিয়ে দিল যে, সুপ্রীম কোর্টের নতুন বিচার পদ্ধতি প্রয়োজন।
এই রায়ে গভীর সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। বৃহস্পতিবার এক টুইটার বার্তায় ডাকা’র সুবিধাপ্রাপ্তদের উদ্দেশে তিনি লিখেন, ‘তাদের জন্য তাদের পরিবারের জন্য এবং আমাদের সবার জন্য আজ আমি আনন্দিত। আমরা দেখতে ভিন্ন ভিন্ন ধরনের হতে পারি, আমরা বিভিন্ন জায়গা থেকে আসতে পারি কিন্তু আমরা সবাই আমেরিকান এবং সবাই আমেরিকান ভাবাদর্শ শেয়ার করি’। তিনি উল্লেখ করেন, আট বছর আগে এই সপ্তাহেই এই কর্মর্সূচিটি প্রণীত হয়েছিল।
আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন রায়ে আনন্দ প্রকাশ করে একে বিজয় হিসাবে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, তিনি নির্বাচিত হলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ডাকা কর্মসূচিকে আইনে পরিণত করে একে স্থায়ী রূপ দেবেন।  
সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, নিউইয়র্কে ডাকা’র সুবিধাভোগী ৯ হাজার ২০০ জন এখন ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার হিসাবে কর্মরত রয়েছেন। এদের মধ্যে ১ হাজার ২০০ জন নিয়োজিত রয়েছেন স্বাস্থ্যসেবায়। সূত্রটি জানায়, ডাকা সুবিধাপ্রাপ্তরা নার্স, ইএমটি কর্মী, শিক্ষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী এবং এ ধরনের বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশ নিয়ে দেশের মেরুদন্ডকে সোজা রাখতে অবদান রেখে চলেছে।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়