শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২0১৮, Current Time : 1:33 am
  • হোম »এই সপ্তাহের খবর» যাদের আবেদন জমা আছে তাদের শঙ্কার কারণ নেই : এটর্নী মঈন চৌধুরী
    পারিবারিক অভিবাসন ইস্যু যাচ্ছে সিনেটে দুশ্চিন্তায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা




যাদের আবেদন জমা আছে তাদের শঙ্কার কারণ নেই : এটর্নী মঈন চৌধুরী
পারিবারিক অভিবাসন ইস্যু যাচ্ছে সিনেটে দুশ্চিন্তায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা

সাপ্তাহিক আজকাল : 13/01/2018

আজকাল রিপোর্ট : যুগ যুগ ধরে আমেরিকায় চলে আসছে পারিবারিক অভিবাসন। এ অভিবাসনের কারণে বির্নিমাণ হয়েছে আমেরিকা। আমেরিকার ভূমি থেকে অট্টালিকা সবখানে লেগে আছে অভিবাসীদের শ্রম ও ঘামের চিহ্ন। একজন এসেছেনতো তিনি নিয়ে এসেছেন পরিবারের অন্য সদস্যদের। সবাই মিলে তৈরি করেছেন আজকের আমেরিকা। আমেরিকার র্দৈবদুর্বিপাক মোকাবেলা করেছেন অভিবাসীরা পরিবারের সবাই মিলে। উদার পারিবারিক অভিবাসন নীতির কারণে বিশ্ব দরবারে অন্যরকম মর্যাদায় আসীন হয়েছে আমেরিকা। যুক্তরাজ্য, অস্টেলিয়ার মতো দেশগুলোতে যখন পারিবারিক অভিবাসন বন্ধ তখনই বিশ্ববাসীর কাছে আমেরিকা হয়ে দাঁড়ায় স্বপ্নের আমেরিকা। বিশ্বের-পূর্ব থেকে পশ্চিমের সব দেশের মানুষের প্রত্যাশার অগ্রাধিকারে থাকে আমেরিকায় স্বপ্নের পারিবারিক অভিবাসন। শত শত বছর ধরে এমনটিই চলমান ছিল আমেরেকিায়। কিন্তু একবিংশ শতাব্দির এই সময়ে এসে ঐতিহ্যের আমেরিকা পারিবারিক ইস্যুতে খড়ক চালানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। আমেরিকার রাজনৈতিক পরিবর্তিত প্রেক্ষাপটে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন পারিবারিক অভিবাসন বন্ধে উদ্যোগ নিচ্ছে। এরই মধ্যে পারিবারিক অভিবান বন্ধে সিনেটে উত্থাপন করা হচ্ছে বিল। এ খবর কোটি কোটি অভিবাসীদের মধ্যে নানা শঙ্কার জন্ম দিচ্ছে। এ থেকে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশিরাও। নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশিরা পারিবারিক অভিবাসন বন্ধের উদ্যোগে চরম শঙ্কায় রয়েছেন। তারা বলছেন, পরিবারের সদস্যদের জন্য বছরের বছর আবেদেন করে বসে আছি। বুক ভরা আসা নিয়ে আছি পরিবারের লোকজন আমেরিকায় আসবে। এই আমেরিকা হবে আমাদের সবার। সবাই মিলে আমেরিকাকে নিয়ে যাবো অন্যরকম আমরেকিায়। এ বাস্তবতায় আইন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ নিয়ে দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই। যারা আগে আবেদন করেছেন তারা চিন্তামুক্ত থাকতে পারবেন।
যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রীম কোর্টের এটর্নী মঈন চৌধুরী আজকালকে বলেন, পারিবারিক অভিবাসন বন্ধে সিনেটে একটি বিল উত্থাপিত হচ্ছে। সিনেটে এ ধরনের বিল পাস হলেও কংগ্রেসে গিয়ে তা আটকে যাবে বলে আমি মনে করি। আর যদি কংগ্রেসও এ বিল পাশ করে তাহলে আমিই প্রথম কোন আমেরিকান যিনি পারিবারিক অভিবাসন ইস্যুতে আদালতে মামলা করবো।
জ্যামাইকার ১৭১ স্ট্রীটের বাসিন্দা বাংলাদেশি আজিমুর রহমান আজকালকে বলেন, পারিবারিক অভিবাসন নিয়ে গণমাধ্যম প্রায় প্রতিদিনই নানা খবর দিচ্ছে। আমি সাত বছর আগে পরিবারের সদস্যদের জন্য আবেদন করেছি। টাকাও জমা দিয়েছি। এখন পর্যন্ত তাদের ইন্টারভিউির জন্য ডাক পড়েনি। আমি শঙ্কায় আছি আদৌ পরিবারের লোকজনকে আমেরিকায় আনতে পারবো কি না?
ব্রঙ্কসের বাসিন্দা বাংলাদেশি হেফাজেতুর রহমান আজকালকে বলেন, আমি মা ও ভাইবোনের জন্য আবেদন করেছি প্রায় নয় বছর আগে। এর মধ্যে আমার মায়ের ইন্টারভিউ হয়েছে। ভাই-বোনদের ইন্টারভিউ এখনও হয়নি। মা হয়তো কয়েক মাসের মধ্যে চলে আসবেন। মা আসলে কি হবে? ভাই-বোনরা আসতে না পারলে মাও আমেরিকায় থাকবেনা।
জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশি গ্রোসারিতে কর্মরত ফজল করিম আজকালকে বলেন, আমার একমাত্র ভাইয়ের জন্য আবেদন করা আছে। তা কয়েক বছর হয়ে গেছে। আশা করেছিলাম দু‘এক বছরের মধ্যে চলে আসবে। আমার ভাই মার্স্টাস পাস করে বসে আছে। আমরা আশায় আছি ভাই আমেরিকা আসার পর কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে আরো পড়ালেখা করবে। বড় চাকুরি করবে।
তিনি বলেন, আমি এত কষ্ট করেছি পরিবারের জন্য। বিশেষ করে আমার ভাই যাতে আমেরিকায় আসতে পারে সেদিকে থাকিয়ে আছি। কিন্তু যা শুনতেছি তা হলেতো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।
নতুন অভিবাসী বাংলাদেশি এস্টোরিয়ার মফিজুর রহমান আজকালকে বলেন, আমার এক ভাই অস্ট্রোলিয়াতে থাকে। তিনি পরিবারের সদস্যদের সেখানে নিয়ে যেতে পারবেন না। আমি বিয়ে করে আমেরিকার অভিবাসনের স্বাদ গ্রহণ করেছি। ছয় মাস হলো পাসপোর্ট পেয়েছি। আশা করে আছি ছোট ভাই এবং পরিবারের সদস্যদের জন্য আবেদন করবো। সবাই মিলে আমেরিকায় থাকবো। কিন্তু পারিবারিক অভিবাসন বন্ধ হয়ে গেলে আমারও হয়তো আমেরিকায় থাকা হবেনা। কারণ স্বজনহীন থেকে লাভ কি?
পারিবারিক অভিবাসন ইস্যুতে বাংলাদেশিদের শঙ্কা ও আতঙ্কের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র সুপ্রীম কোর্টের এটর্নী মঈন চৌধুরী বলেন, আমি আশা করছি এ আইন প্রণিত হবে না। ইতোমধ্যে যারা পারিবারিক অভিবাসনের আবেদন করেছেন তাদের চিন্তার কোন কারণ নেই। কর্তৃপক্ষ আবেদন জমা নিয়েছে, ফিস জমা নিয়েছে। সূতরাং কোন সুযোগ নেই তাদেরকে অভিবাসনের স্বাদ গ্রহণ থেকে বিরত রাখতে।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: ajkalnews@gmail.com
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.